ঢাকা, শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

বিনোদন

মৃত্যুর পরে শেখ কামালের নামে অনেকে বদনাম করেছে: ডলি জহুর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৩৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২২
মৃত্যুর পরে শেখ কামালের নামে অনেকে বদনাম করেছে: ডলি জহুর

ঢাকাঃ প্রবীণ অভিনেত্রী ডলি জহুর বলেন, মৃত্যুর পরে শেখ কামালের নামে অনেকে বদনাম করেছে। তখন নিজের দায়িত্ব নিয়ে সত্যি কথাগুলো বলেছি।

আমাদের রিহার্সাল শেষে নাট্যদলের প্রধান ম হামিদ ভাই, ধানমন্ডির বাড়িতে যাওয়ার সময় কামাল ভাইয়ের সঙ্গে পাঠাতেন। কামাল ভাই তেমন খারাপ হলে এটা হামিদ ভাই করতেন? দায়িত্ব নিয়ে কতটা বিশ্বস্ত হলে তার সঙ্গে পাঠাতেন হামিদ ভাই।

রোববার (২৭ নভেম্বর) 'বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি' তে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামালকে নিয়ে এভাবেই স্মৃতিচারণ করেন ডলি জহুর।

বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক পরিষদ আয়োজনে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক পরিষদের সভাপতি পীরজাদা শহীদুল হারুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।  

অনুষ্ঠানে ডলি জহুর বলেন, শেখ কামাল রাস্তায় সাধারণভাবে চলতেন। কাউকে বলেননিও কোনদিন রাস্তা ছাড়। সাধারণ একজন মানুষ নিয়ে এতো বাজে কথা ছড়িয়েছে। তখন আমি দায়িত্ব নিয়ে মানুষকে বলেছি, সাংবাদিকদের বলেছি সত্য কথাগুলো। রেহেনাকে (শেখ রেহানা) যে নজরে দেখতেন কামাল ভাই, আমাকেও তেমনই দেখতেন। ভাবি, কী সাধারণ ছিলেন তিনি।

এ বর্ষীয়ান অভিনেত্রী বলেন, খুকি (সুলতানা কামাল) আপার কানেও বাজে কথাগুলো যেত। তখন আমি খুকি আপাকে বলতাম, কী করে হয়, যে লোকটার সাথে আমি সবসময় বাড়িতে রিকশায় করে যাই! যদি খারাপ মেয়ে না হয়ে থাকি তবে কামাল ভাইয়ের পক্ষে বলব। বাচ্চা মেয়ে ছিলাম তখন আমি, কেবল সত্যি কথাগুলো বলেছিলাম।

তিনি বলেন, আমি এখনও কষ্ট পাই।  আমি আপার (প্রধানমন্ত্রী) শেখ হাসিনার সামনে যাই না, কথা বলি না। আপা যখন ডাকেন, নিজেকে সামলাতে পারি না।

বঙ্গবন্ধু পরিবার নিয়ে স্মৃতিচারণা করতে গিয়ে ডলি জহুর বলেন, অনেকদিন পরে ধানমণ্ডি ৩২ গিয়েছিলাম নাটক করতে। পুলিশের কাছে অনুমতি নিয়ে রান্নাঘরে যাই। তখন চাচির কথা মনে পড়ল। মনে হচ্ছিল, রুইমাছ রান্না করছেন, বঙ্গবন্ধু বললেন, এই খেয়ে যাবি।

ডলি জহুর আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে গেলে উনি ভাত খেতে বলতেন সবসময়। এমনকি রিকশাওয়ালা, শ্রমিকদের দেখলে ডেকে ভাত খাওয়াতেন। বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে টিনের প্লেট-বাটি ছিল। ভাবা যায় প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে টিনের প্লেট!।

বাংলাদেশ সময়:০৮২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০২২
এনবি/এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa