ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

দুর্লভ আবাসিক পাখি ‘কালাপিঠ-চেরালেজি’

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০২১৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২, ২০১৮
দুর্লভ আবাসিক পাখি ‘কালাপিঠ-চেরালেজি’ দুর্লভ পাখি ‘কালাপিঠ-চেরালেজি’। ছবি: আবু বকর সিদ্দিক

মৌলভীবাজার: পড়ন্ত দুপুর। রোদ তার তীব্রতা নিয়ে গ্রাস করে রেখেছে চারপাশ। এর মাঝে পাখিদের অপূর্ব ডাকাডাকি। অদূরবর্তী জলাশয়ের কিনারে শরীরে কালো-সাদা রং নিয়ে একটি পাখি তার নিজের খাদ্য অনুসন্ধানে ব্যস্ত। মাটিতে কয়েকটি ঠোকর দিয়েই আবার এদিক-ওদিক পর্যবেক্ষণের পালা। এভাবে কিছুটা সময় কাটানো পর নিজের ডানা দুটোকে বাতাসে মেলে ধরে। 

হারিয়ে যায় প্রকৃতির এই প্রান্ত থেকে। আবার হয়তো কোনো সময় কোনো দিন একই স্থানে খাদ্যসন্ধানে ফিরে আসবে।

পাখিদের এমন যখন-তখন হুটহাট ছুটে চলা নিজের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের এক চঞ্চল সংমিশ্রণ।  

এ পাখিটির নাম ‘কালোপিঠ চেরালেজি’। তবে কালোপিঠ-চেরারেজ বলেও কোনো কোনো বইতে এর নাম উল্লেখ করা রয়েছে। এর ইংরেজি নাম Black-backed Forktail এবং বৈজ্ঞানিক নাম Enicurus immaculatus। দৈর্ঘ্য ২৫ সেন্টিমিটার। এরা লম্বা ও সরু আকারের পতঙ্গভুক পাখি। পাখি বিষয়ক আলোকচিত্রী আবু বকর সিদ্দিক এ ছবিটি তুলেছেন।  দুর্লভ পাখি ‘কালাপিঠ-চেরালেজি’।  ছবি: আবু বকর সিদ্দিকএ পাখিটি সম্পর্কে পাখি বিষয়ক লেখক ও গবেষক অধ্যাপক আ ন ম আমিনুর রহমান বলেন, কালোপিঠ চেরালেজি দুর্লভ আবাসিক পাখি। এরা দেখতে আকারে অনেকটা দোয়েলের মতো। চট্টগ্রাম এবং সিলেট অঞ্চলের চিরসবুজ বনের জলাশয় বা ঝিরি-ছড়া-ঝরনার আশপাশে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়।  

এদের শারীরিক বর্ণনায় তিনি জানান, এদের রয়েছে দীর্ঘলেজ । মাথা, গলা ও পিঠ কালো। কপাল সাদা। বুক ও পেট সাদা এবং চোখ বাদামি। এদের চঞ্চু সাদা।  

কালোপিঠ চেরালেজি পাখিটি পানিতে থাকা পাথর-ইট ও পাড়ে দাঁড়িয়ে একা খাবার খোঁজে। পানির পোকা ও কেঁচো তার খাদ্য তালিকায় রয়েছে। এদের পাহাড়ি ছড়া বা জলাশয়ের ধারে একা বা জোড়ায় ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় বলে জানান অধ্যাপক আ ন ম আমিনুর রহমান।  

বাংলাদেশ সময়: ০৮০৩ ঘণ্টা, আগস্ট ০২, ২০১৮
বিবিবি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।