ঢাকা, মঙ্গলবার, ২ বৈশাখ ১৪৩১, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ শাওয়াল ১৪৪৫

ফিচার

বিশ্ব যুব উৎসব, নানা চমক নিয়ে প্রস্তুত রাশিয়া 

হোসাইন মোহাম্মদ সাগর, ফিচার রিপোর্টার  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২৪
বিশ্ব যুব উৎসব, নানা চমক নিয়ে প্রস্তুত রাশিয়া 

ঢাকা: আগামী ১-৭ মার্চ রাশিয়ার সিরিয়াস ফেডারেল টেরিটরিতে (সোচি) অনুষ্ঠিত হবে ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফেস্টিভ্যাল (WYF) বা বিশ্ব যুব উৎসব। ১৮৮টি দেশের ২০ হাজার তরুণ অংশগ্রহণ করবে এই উৎসবে।

এই বিশাল উৎসবের জন্য রাশিয়া প্রস্তুতি নিয়েছে তুঙ্গে। উৎসবের অংশগ্রহণকারীদের জন্য রাশিয়া রেখেছে নানান চমক। এসব চমকের মধ্যে রয়েছে সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যের প্রদর্শনী, রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী খাবার, পোশাক এবং সংস্কৃতি তুলে ধরা; বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রদর্শনী, বিভিন্ন খেলাধুলার প্রতিযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন; বিভিন্ন বিষয়ে কর্মশালা এবং আলোচনা সভা।

এছাড়া রাশিয়ার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য বিশ্বের কাছে তুলে ধরার পাশাপাশি বিশ্ব শান্তি ও সমৃদ্ধির জন্য কাজ করা এই ফেস্টিভ্যালে আগাত অতিথি এবং অংশগ্রহণকারীদের জন্য প্রস্তুত রাশিয়ার সিরিয়াস ফেডারেল টেরিটরিও। নিজেদের সবটুকু দিয়েই যেন ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফেস্টিভ্যালের মাধ্যমে বিশ্বের কাছে নতুন আঙ্গিকে নিজেদের পরিচয় তুলে চায় রাশিয়া।

উৎসবের জন্য ৩০০ গাইডের প্রশিক্ষণ শুরু

বিশ্ব যুব উৎসব ২০২৪-এর জন্য ৩০০ জন গাইডের প্রশিক্ষণ সিরিয়াসে (সোচি) শুরু হয়েছে। রুশ যুবকল্যাণ প্রতিষ্ঠান 'রোজমলদেজ'-এর 'মোর দ্যান এ ট্রিপ' প্রোগ্রামের অধীনে এই প্রশিক্ষণ চলবে ১ মার্চ পর্যন্ত। এই গাইডরা ১৮৮টি দেশের ১০ হাজার বিদেশি এবং ১০ হাজার রাশিয়ান অংশগ্রহণকারীকে উৎসবে স্বাগত জানাবেন। এছাড়া তারা ১০টি থিমেটিক রুটের মাধ্যমে রাশিয়ার সম্ভাবনা, সাফল্য এবং সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্য তুলে ধরবেন বিশ্ব যুব উৎসবে অংশ নেওয়া তরুণদের কাছে। তারা রাশিয়ার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সঙ্গে অতিথিদের পরিচয় করিয়ে দেবেন।

এ বিষয়ে গাইড তাতিয়ানা উশাকোভা জানান, আমি বিশ্ব যুব উৎসবে অংশগ্রহণকারীদের সকলের সঙ্গে রাশিয়ার প্রতি আমার ভালোবাসা, এর সম্ভাবনা, প্রতিভাবান মানুষ, আতিথেয়তা এবং ঐতিহ্য ভাগ করে নেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছি। সারা বিশ্ব থেকে আসা ২০ হাজার তরুণকে দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির গর্ব ও সম্মানের কথা জানানো আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্ব ও সম্মানে। আমি নিশ্চিত বিশ্ব যুব উৎসব একটি দুর্দান্ত ও অর্থপূর্ণ উৎসব হবে।

খাবারের উৎসব জমবে ১৫০ জন তরুণ শেফের সঙ্গে

এবারের ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফেস্টিভ্যালের অংশ হিসেবে ২ মার্চ উৎসবে অংশগ্রহণকারী সকলের জন্য রাশিয়ার বহুজাতিক খাবারের স্বাদ নেওয়ার প্রেক্ষিতে ‘টেস্ট অব রাশিয়া- রিজিওনাল ফুড ফেস্টিভাল’ অনুষ্ঠিত হবে। এই আয়োজনে ১৫০ জনেরও বেশি শেফ রান্নার কর্মশালা এবং রাশিয়ার বিভিন্ন খাবার পরিবেশন করবেন। এতে ফেস্টিভ্যালে অংশগ্রহণকারীরা রাশিয়ার সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য সম্পর্কে জানতে পারবেন। উৎসবের মূল আকর্ষণ হলো ‘মেইন টেবিল অব রাশিয়া’ গ্যাস্ট্রোকালচারাল পারফরম্যান্স। এই অনুষ্ঠানে রাশিয়ার সকল অঞ্চলের ৩২০ জন প্রতিনিধি– রাশিয়ার গঠনতন্ত্রগত সত্তার প্রধানরা, বিখ্যাত আঞ্চলিক শেফ এবং ফেস্টিভ্যালে অংশগ্রহণকারীরা একত্রিত হবেন। উৎসবের অতিথিরা ১০০ মিটারেরও বেশি দীর্ঘ একটি টেবিলে বসবেন। এই টেবিলটি রাশিয়ার বহুজাতিক গ্যাস্ট্রোনমিক ঐতিহ্যের পাশাপাশি অংশগ্রহণকারী প্রতিটি অঞ্চলের সাংস্কৃতিক পরিচয়কে তুলে ধরবে।

এদনি সন্ধ্যা পর্যন্ত খাবারের স্বাদ গ্রহণ পর্ব চলবে। ফেস্টিভ্যালে অংশগ্রহণকারীরা তরুণ শেফদের তৈরি রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের খাবার বিনামূল্যে খেতে পারবেন। আর এই খাবারগুলোর মধ্যে বিশ্বখ্যাত রাশিয়ান খাবার থেকে শুরু করে ক্ষুদ্র আদিবাসী জনগোষ্ঠীর খাবারও থাকবে।  

এ বিষয়ে উৎসব কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, তরুণ শেফদের একটি দল ২০১৮ সালে ফিফা বিশ্বকাপের সময় সোচিতে রাশিয়ান আঞ্চলিক খাবারের প্রথম উৎসব করেছিল। ৫ বছর পর রাশিয়া আবারও বিশ্ব যুব উৎসবে আগত অতিথিদের স্বাগত জানাবে। রান্নার ঐতিহ্য এবং খাবার কোনো দেশের সংস্কৃতি জানার সবচেয়ে দ্রুত এবং গুরুত্বপূর্ণ উপায়। এটি যোগাযোগের একটি আন্তর্জাতিক ভাষা। রাশিয়ান এবং বিদেশি অংশগ্রহণকারী এবং ফেস্টিভ্যালের অতিথিরা উদ্বোধনী দিন ২ মার্চ একটি টেবিলে একত্রিত হবেন। আর আশা করা যাচ্ছে এর মধ্য দিয়ে বহুজাতিক মানুষগুলোর সঙ্গে রাশিয়ার আরও নিবিড় সম্পর্ক তৈরি হবে।

ছবির প্রদর্শনীতে উঠে আসবে রাশিয়ার অর্জন

বিশ্ব যুব উৎসবে রাশিয়ান নলেজ সোসাইটি এবং তাস নিউজ এজেন্সি কর্তৃক ব্যবস্থা করা হবে একটি আলোকচিত্র প্রদর্শনীর। উৎসবের শিক্ষাগত কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই প্রদর্শন করা হবে। এতে ২৮টি ছবির মাল্টিমিডিয়া প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে এই একটি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এই ছবিগুলো নির্বাচন করা হয়; যেখানে প্রায় ১৩ হাজারের বেশি প্রতিযোগি অংশগ্রহণ করে। আর সেখান থেকেই আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে থেকে নির্বাচিত ২৮টি ছবি দেখতে পাবেন ফ্যাস্টিভ্যালে অংশগ্রহণকারীরা।

এই প্রদর্শনীর মূল উদ্দেশ্য হলো ছবির মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে থাকা তরুণদের কাছে বিজ্ঞান, ক্রীড়া এবং শিল্পে রাশিয়ার বর্তমান অর্জন তুলে ধরা। এছাড়া এই প্রদর্শনী রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের ফটোগ্রাফারদের আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিজেদের পরিচয় করিয়ে দেওয়ার সুযোগ করে দেবে বলেও মনে করা হচ্ছে। দেশটির ১০টি অঞ্চলের পেশাদার ও অপেশাদার ফটোগ্রাফারদের ছবি এই প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হবে। প্রদর্শনীতে ৭টি স্ট্যান্ড থাকবে, প্রতিটিতে ৪টি ছবি এবং একটি কিউআর কোড থাকবে। এই কোড ব্যবহার করে দর্শকরা এআর প্রযুক্তির মাধ্যমে জীবন্ত ছবিগুলো দেখতে পারবেন। ছবিগুলো ভিজ্যুয়ালাইজেশন ইফেক্ট, আকর্ষণীয় তথ্য এবং অডিও সঙ্গীতের সঙ্গে উপস্থাপন করা হবে। এসবের মাধ্যমে অতিথিরা ছবিতে দেখানো ঘটনাগুলোর পরিবেশ অনুভব করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, আগামী ১ থেকে ৭ মার্চ রাশিয়ার সোচিতে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফেস্টিভ্যাল। এতে অংশ নেবেন শিক্ষা, বিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক সহযোগিতা, সংস্কৃতি, স্বেচ্ছাসেবামূলক কাজ, দাতব্য কাজ, ক্রীড়া, ব্যবসা, গণমাধ্যম ইত্যাদি ক্ষেত্রের ২০ হাজার যুব নেতা, যার মধ্যে ১০ হাজারই বিদেশি অংশগ্রহণকারী। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের আন্তর্জাতিক যুব সহযোগিতা বাড়ানোর আদেশ অনুসারে ২০২৪ সালে দেশটিতে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: শুরু হচ্ছে ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফেস্টিভ্যাল, থাকছে বাংলাদেশও

বাংলাদেশ সময়: ১২৩৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২৪
এইচএমএস/এসআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।