ঢাকা, সোমবার, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৪ জুন ২০২১, ০৩ জিলকদ ১৪৪২

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

শওকত ওসমান ও আহসান হাবীবের জন্ম

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০২১
শওকত ওসমান ও আহসান হাবীবের জন্ম

ঢাকা: ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে।

প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

২ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার। ১৯ পৌষ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
•     ১৭৫৭ - ব্রিটিশরা কলকাতা দখল করে।
•     ১৭৮৮ - জর্জিয়া আমেরিকার চতুর্থ রাজ্য হিসেবে যুক্ত হয়।
•     ১৯৪১ - দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ: ব্রিটেনে জার্মানির বিমান হামলা।
•     ১৯৪২ - দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ: জাপান বাহিনী ফিলিপাইনের ম্যানিলা দখল করে।

জন্ম
•    ১৮২২- জার্মান পদার্থবিজ্ঞানী রুডলফ ক্লসিয়াস।  
•    ১৯৬০- ভারতীয় ক্রিকেট খেলোয়াড় রমন লাম্বা।
বাংলাদেশের প্রখ্যাত কবি, শিশু সাহিত্যিক আহসান হাবীব। পঞ্চাশ দশকের অন্যতম প্রধান আধুনিক কবি আহসান হাবীব ১৯১৭ সালের ২ জানুয়ারি পিরোজপুরের শংকরপাশা গ্রামে জন্ম নেন। তিনি একাধারে লিখেছেন কাব্যগ্রন্থ, বড়দের উপন্যাস, গল্প, প্রবন্ধ-নিবন্ধ, ছোটদের ছড়া ও কবিতার বই।  
•    ১৯১৭- বাংলাদেশি ঔপন্যাসিক ও ছোটগল্পকার শওকত ওসমান।
১৯১৭ সালের ২ জানুয়ারি ব্রিটিশ ভারতের হুগলিতে জন্ম নেওয়া শওকত ওসমানের আসল নাম শেখ আজিজুর রহমান। নাটক, গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ, রম্যরচনা, রাজনৈতিক লেখা, শিশু-কিশোর সাহিত্য সর্বত্র তিনি উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে গেছেন। তার অসংখ্য রচনার মধ্যে ‘জননী’ ও ক্রীতদাসের হাসি’ উপন্যাস দু’টি সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। বাংলাদেশের সাহিত্য, সংস্কৃতি ও মুক্তবুদ্ধির আন্দোলনে জীবনব্যাপী অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পুরস্কার ও স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত হন।
•    ১৯৪৮- সালের এই দিনে ব্রিটিশ বিজ্ঞানী মেরি আর্চার।
•    ১৯৫৩- বাংলাদেশি সংগীতশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ।


মৃত্যু
•     ১৯৭৬ - ভারতীয় বাঙালি সাহিত্যিক ও চলচ্চিত্র পরিচালক শৈলজানন্দ মুখোপাধ্যায়। বর্ধমানে স্কুলে পড়ার সময় কাজী নজরুল ইসলামের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। দুজনে একসঙ্গে লিখতে শুরু করেন। পরবর্তীতে প্রথম বিশ্বযুদ্ধে একসঙ্গে যোগ দেন তারা। কিন্তু ডাক্তারি পরীক্ষায় শৈলজানন্দ বাদ পড়েন। তার জীবনে তিনি উপন্যাস ও গল্পসহ লিখেছেন ১৫০টি গ্রন্থ। শৈলজানন্দ রচিত চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় প্রকাশ পেয়েছে বিখ্যাত ছবি নন্দিনী, বন্দী, শহর থেকে দূরে, অভিনয় নয় ইত্যাদি।

বাংলাদেশ সময়: ০০১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২, ২০২১
এএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa