ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ মাঘ ১৪২৯, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ০৮ রজব ১৪৪৪

ফিচার

রমনা পার্কে বানর-কুকুরের অসম বন্ধুত্ব

দেলোয়ার হোসেন বাদল, সিনিয়র ফটো করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০২২
রমনা পার্কে বানর-কুকুরের অসম বন্ধুত্ব কুকুর ছানাকে বুকে আগলে রেখেছে বানরটি। ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: রমনা পার্ককে বলা হয় রাজধানীর ফুসফুস। হাজারো সবুজ গাছ-পালা, সুন্দর একটি লেক আর নানা রকমের ইটপাথরের দিয়ে সাজানো হয়েছে পুরো পার্কটি।

শত শত কাঠবিড়ালির আনাগোনা। কখনও কখনও চলে কাঠবিড়ালিদের মধ্যে খুনসুটি। গাছে গাছে পাখির কিচিরমিচির।

আর সবুজে ঘেরা পার্কের মাটিতে রাজত্ব করে চলেছে কয়েকটি কুকুর। পার্কে বেড়াতে আসা দর্শনার্থীদের ফেলে দেওয়া খাবার  খেয়ে বেঁচে আছে কুকুরগুলো। কোনো খাবার পেলে তারা ভাগ করে খায়।  হঠাৎ করেই তাদের সেই খাবারে ভাগ বসাতে শুরু করে দিলো একটি সঙ্গীহীন বানর।

কোথাও খাবার পড়লেই ছোঁ মেরে নিয়ে গাছের ডালে বসে আরামে খাওয়া শুরু করে দিচ্ছে বানরটি। খাবার কেড়ে নেওয়ার কারণে কুকুরগুলো খুবই বিরক্ত, ঠিক যেন উড়ে এসে জুড়ে বসার মতো।

এর আগে তো এই বানরটি কোথাও দেখা যায়নি। আর এতো বড় সাহস বা কেমন করে হলো যে কুকুরে খাবারে হাত দেয়। তাই সব কুকুরগুলো মিলে এই বানরটিকে ভয় দেখাতে ফন্দি আটল। বানরটি যখন নিচে নেমে এলো কুকুরগুলো ঘেউ ঘেউ শুরু করে দিল। বানরটি লাফ দিয়ে গাছের ডালে চড়ে বসলো।

অনেকক্ষণ গাছে বসেই আছে সঙ্গীহীন বানরটি।  না খেতে পেরে সে পড়েছেও মহাবিপদে। কুকুরের সঙ্গে বানরের সম্পর্ক শত্রুর মতো হবে এটাই তো স্বাভাবিক। কুকুরের যন্ত্রণায় বানরটি গাছের ডালে ঘাপটি মেরে বসে চিন্তা করতে লাগলো।

বানরটিও সুযোগ বুঝে রমনা পার্কের সবচেয়ে ছোট কুকুর ছানার সঙ্গে ভাব জমানোর চেষ্টা করলো। বানরটি ফাঁকা পেয়ে কুকুর ছানাকে কোলে নিয়ে গাছে চড়ে বসে, আবার মাঝেমধ্যে গাছ থেকে নেমে খেলাধুলা করে। এমন করতে করতে কয়েকদিনের মধ্যে ওদের সঙ্গে বেশ ভাব জমে গেল।  

শত্রু-শত্রু খেলা বন্ধ করে দিলো ওরা। এরই মধ্যে তাদের বন্ধুত্ব গড়ে ওঠল। এখন বানরটি সারাক্ষণ কুকুর পালের সঙ্গে ঘুরে বেড়ায়। খাবার পেলে ভাগাভাগি করে খায়। একসঙ্গে ঘুমায়। কোনো কুকুর যদি শুয়ে থাকে বানরটিও ঘাড়ে ওঠে শুয়ে থাকে। মাঝেমধ্যে কুকুরের লোম নিয়ে দুষ্টুমি করে বানরটি। দেখলে মনে হয় যেন তারা একই পরিবারের সদস্য।

রমনা পার্কে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বানরটি কুকুর ছানাকে গাছে চড়িয়ে মমতা দিয়ে বুকে আগলে রেখেছে। আবার কখনো কখনো নিজের বুকে চেপে রেখে কুকুর ছানাকে ঘুম পাড়াচ্ছে। এ যেন এক মমতাস্পর্শী চিত্র!
 



ক্যামেরা দেখেই নানা রকমের অঙ্গভঙ্গি শুরু করে দেয় বানরটি। ছবি তোলার জন্য বিভিন্ন পোচ দিতে শুরু করে, আবার হুট করে নিচে নেমে আইসক্রিম খাওয়ায় ব্যস্ত হয়ে পড়ে। কেউ কলা ছুড়ে দিচ্ছে, সেগুলো নিয়ে এসে অন্য কুকুরদের সঙ্গে ভাগ করে খাচ্ছে। হঠাৎ দৌড়ে গিয়ে বয়স্ক এক কুকুরে পিঠে শুয়ে পড়ছে বানরটি।

দেখলে মনে হবে এটা যেন কুকুরেরই নিজের গর্ভের বাচ্চা। কুকুর ও বানরের এই অসম বন্ধুত্ব পার্কে বেড়াতে আসা দর্শনার্থীদের নজর কাড়ছে। সেই সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের শিরোনাম হচ্ছে ওই দুই প্রাণীর বন্ধুত্বের কাহিনী।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০২২
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa