ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

ফুটবল

টটেনহাম-অধ্যায় শেষ কন্তের

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১২৭ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২৩
টটেনহাম-অধ্যায় শেষ কন্তের

দায়িত্ব নেওয়ার ১৬ মাস পর টটেনহাম ছাড়লেন আন্তোনিও কন্তে। ইতালিয়ান কোচের সঙ্গে পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে সম্পর্কচ্ছেদ করেছে ইংলিশ ক্লাবটি।

গত সপ্তাহে সাউদাম্পটনের বিপক্ষে ড্রয়ের পর টটেনহামের খেলোয়াড় ও মালিকপক্ষের প্রকাশ্য সমালোচনা করেছিলেন কন্তে। নিজ দলের খেলোয়াড়দের 'স্বার্থপর' বলতেও দ্বিধা করেননি তিনি। তখনই তার টটেনহাম-অধ্যায়ের শেষ দেখেছিলেন অনেকে। এক সপ্তাহ পর সেই আশঙ্কা সত্যি হলো।  

মৌসুমের বাকি সময়টা টটেনহামের ডাগআউট কন্তের সহকারী ক্রিস্টিয়ান স্তেলিনি। আর তার সহকারী হিসেবে থাকবেন সাবেক ইংলিশ মিডফিল্ডার রায়ান ম্যাসন।  

কন্তে চলে যাওয়ায় এখন চার বছরে চতুর্থবারের মতো স্থায়ী কোচের সন্ধানে নামবে টটেনহাম। ২০১৯ সালে মাউরিসিও পচেত্তিনোর বিদায়ের পর থেকে তারা দীর্ঘ মেয়াদে কোনো কোচকে ধরে রাখতে পারেনি।  

প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলে এখন চতুর্থ স্থানে অবস্থান টটেনহামের। কিন্তু এই মৌসুমে তাদের কোনো শিরোপা জেতার সম্ভাবনা আর নেই। এই মার্চে এসি মিলানের কাছে হেরে তারা বিদায় নিয়েছে চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে। এরপর এ মাসের শুরুতেই তাদের এফএ কাপ থেকে বিদায় করে দিয়েছে চ্যাম্পিয়নশিপের ক্লাব শেফিল্ড ইউনাইটেড।  

টটেনহামে সাফল্য না পেলেও কন্তের কোচিং ক্যারিয়ার বেশ সমৃদ্ধ। চেলসি, জুভেন্টাস এবং ইন্টার মিলানকে লিগ শিরোপা জিতিয়েছিলন তিনি। ২০২১ সালের নভেম্বরে নুনো এসপিরিতো সান্তোকে বরখাস্ত করার পর কন্তেকে নিয়োগ দিয়েছিল টটেনহাম।  

টটেনহাম-অধ্যায়ের শুরুতে কিছুটা নড়বড়ে অবস্থা হলেও, ধীরে ধীরে দলকে ধারাবাহিক জয়ের পথে রেখেছিলেন কন্তে। এমনকি টানা ছয় ম্যাচ অপরাজিত ছিল তার দল। এর মধ্যে শীর্ষে থাকা আর্সেনালের বিপক্ষে ৩-০ গোলের জয়ও আছে, যা তাদের লিগে চতুর্থ স্থান নিশ্চিত করে।  

কিন্তু লিগের এ মৌসুমে ২৮ ম্যাচে ৯ হার ও ৪ ড্র কন্তের সব অর্জন ম্লান করে দিয়েছে। এরপর চ্যাম্পিয়নস লিগে মিলানের কাছে হেরে শিরোপা জেতার সব আশাও শেষ হয়ে গেলে সমর্থকরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখান। ফলে তার বিদায় অনেকটা নিশ্চিত ছিল।  

এরপর গত ১৮ মার্চ সাউদাম্পটনের বিপক্ষে ৩-১ গোলে এগিয়ে থেকেও ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে টটেনহাম। ম্যাচ শেষে ক্ষোভে ফেটে পড়েন কন্তে। মালিকপক্ষকে রীতিমত ধুয়ে দেন তিনি। এমনকি খেলোয়াড়দের স্বার্থপরতা নিয়েও মুখ খোলেন এই অভিজ্ঞ কোচ।  

এ বছর কন্তে মাঠের বাইরেও নানা সমস্যার ভেতর দিয়ে গেছেন। গত ফেব্রুয়ারিতে তার গলব্লাডারে অস্ত্রোপচার করাতে হয়েছিল। এ কারণে কয়েকটি ম্যাচে মাঠে থাকতে পারেননি তিনি। তাছাড়া গত কয়েক মাসে তার খুব কাছের কয়েকজন বন্ধু- ফিটনেস কোচ জিয়ান পিয়েরো ভেন্ত্রোনে, সিনিসা মিহাজলোভিচ এবং জিয়ানলুকা ভিয়াল্লি মারা গেছেন। সবমিলিয়ে সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না কন্তের।  

বাংলাদেশ সময়: ১১২৭ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২৩
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।