ঢাকা, সোমবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৮ আগস্ট ২০২২, ০৯ মহররম ১৪৪৪

ফুটবল

নিউক্যাসল কিনে নিল সৌদি মালিকানাধীন কনসোর্টিয়াম

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৮, ২০২১
নিউক্যাসল কিনে নিল সৌদি মালিকানাধীন কনসোর্টিয়াম

বহু জল্পনা-কল্পনার পর অবশেষে ইংলিশ ক্লাব নিউক্যাসল ইউনাইটেডের মালিকানা কিনে নিল সৌদি মালিকানাধীন কনসোর্টিয়াম সৌদি পাবলিক ইনভেস্ট ফান্ড (পিআইএফ)। সৌদি যুবরাজ প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান, পিআইএফ-এর প্রধান।

 

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ফলে ১৪ বছর পর ক্লাবের মালিকানা হাতছাড়া হলো মাইক অ্যাশলির হাত থেকে। সবমিলিয়ে এই মালিকানা হাতবদলে অ্যাশলির হাতে উঠলো ৩০ কোটি পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩ হাজার ৪৯৮ কোটি টাকা)।

নিউক্যাসলের ২০ শতাংশ মালিকানা থাকবে ক্যাপিটাল পার্টনার্স এবং আরবি স্পোর্টস মিডিয়ার হাতে। তবে মালিকানার ৮০ শতাংশ থাকবে পিআইএফের হাতে। এই প্রতিষ্ঠানের হাতে আছে ২৫০ বিলিয়ন পাউন্ডের বেশি সম্পদ, যা সর্বশেষ ১৯৫৫ সালে বড় কোনো শিরোপা (এফএ কাপ) জেতা নিউক্যাসলকে বিশ্বের অন্যতম ধনী ক্লাবের একটিতে পরিণত করেছে।

যদিও মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বাধীন প্রতিষ্ঠানের কাছে নিউক্যাসলের মালিকানা তুলে দেওয়ার ব্যাপারে সতর্ক করেছিল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাটির দাবি, নিউক্যাসলকে ব্যবহার করে নিজেদের অতীত মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা আড়াল করার চেষ্টা করবে সৌদি আরবের রাজতন্ত্র, যাকে বলে 'স্পোর্টসওয়াশিং'। কিন্তু প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষের দাবি, সৌদি রাজতন্ত্র এই ক্লাব নিয়ন্ত্রণ করবে না বলে 'আইনগত প্রতিশ্রুতি' পাওয়ার পর চুক্তি স্বাক্ষরে সম্মতি জানানো হয়েছে।

সৌদি আরবের তথা বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল কোম্পানি সৌদি আরমাকোর চেয়ারম্যান ইয়াসির আল-রুমাইয়ান পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (পিআইএফ) গভর্নর। তিনিই ক্লাবটির নির্বাহী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। অবশ্য এখনও তাদের হাতে অনেক কাজ বাকি। কারণ ইংল্যান্ডের খ্যাতিমান ক্লাব হওয়া সত্ত্বেও প্রিমিয়ার লিগে এখনও কোনো শিরোপা জেতেনি নিউক্যাসল। অবশ্য ৪ বার প্রথম বিভাগ লিগ জিতেছে ক্লাবট। কিন্তু বহু বছর ধরে লিগে তাদের অবস্থান থাকে তলানিতে। এবারও দলটি আছে অবনমনের শঙ্কায়। অবশ্য সৌদি-সমর্থিত বিনিয়োগের পর তাদের কপাল খুলে গেছে। এখন দলবদলের বাজারে ঝড় তুলতে পারবে তারা, কিনতে পারবে ফুটবল তারকাদেরও।  

অবশ্য এক বছর আগেই নিউক্যাসল কিনতে চেয়েছিল সৌদি মালিকানাধীন কনসোর্টিয়াম। কিন্তু ওই সময় কাতারভিত্তিক মিডিয়া বিইন স্পোর্টসের সঙ্গে সৌদি আরবের বিরোধের জের ধরে অনুমোদনে রাজি হয়নি প্রিমিয়ার লিগ। সৌদি আরবে প্রিমিয়ার লিগের খেলা সম্প্রচারের স্বত্ব ছিল কাতারভিত্তিক চ্যানেলটির হাতে। কিন্তু তাদের দাবি, সৌদি আরব গোপনে অবৈধভাবে ভিন্ন মাধ্যমে খেলার সম্প্রচার করতো। পরে অবশ্য এই বিরোধের অবসান ঘটে।

এদিকে সৌদি-সমর্থিত বিনিয়োগের পর নিউক্যাসল এখন বিশ্বের অন্যতম দামি ক্লাবে পরিণত হয়েছে। বিশেষ করে ইংল্যান্ডে তাদের ধারেকাছে নেই অন্য কোনো ক্লাব। পিআইএফ-এর ৩০ কোটি পাউন্ড তহবিলের বিপরীতে প্রিমিয়ার লিগের সবচেয়ে ধনী ক্লাব হিসেবে পরিচিত ম্যানচেস্টার সিটির সম্পদ নিতান্ত নগন্য মনে হবে। সিটির মালিক তথা সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজ পরিবারের সদস্য ও উপ-প্রধানমন্ত্রী শেখ মনসুরের চেয়ে পিআইএফের তহবিলের পরিমাণ প্রায় ১১ গুণ বেশি। এমনকি মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেকে এক দলে ভিড়িয়ে চমকে দেওয়া পিএসজিও এখন নিউক্যাসলের চেয়ে আর্থিকভাবে অনেক 'দুর্বল'।

বাংলাদেশ সময়: ০৬৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৮, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa