ঢাকা, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬ রজব ১৪৪৪

ফুটবল

সাইফকে হারিয়ে বসুন্ধরা কিংসের আটে আট

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৩ ঘণ্টা, মার্চ ১৬, ২০২২
সাইফকে হারিয়ে বসুন্ধরা কিংসের আটে আট

বসুন্ধরা কিংসের জয়রথ ছুটছেই। সর্বশেষ রোমাঞ্চকর এক ম্যাচে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়ে প্রিমিয়ার লিগে টানা অষ্টম জয় তুলে নিয়েছে অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা।

আজ বুধবার কিংস অ্যারেনায় সাইফ স্পোর্টিংকে ৪-৩ গোলে হারিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। স্বাগতিকদের হয়ে জোড়া গোল করেছেন মতিন মিয়া; বাকি দুটি রবসন রবিনহো ও খালেদ শাফির। সাইফের হয়ে গোল করেছেন এমফন সানডে, ফাহিম ও রাফি।

ঘরের মাঠে আজ তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় বসুন্ধরা কিংস। সোহেল রানার বাড়ানো পাস ধরে সাইফের ডিফেন্ডারদের দর্শক বানিয়ে বক্সে ঢুকে ডান পায়ের নিচু শটে দুরের পোস্টে লক্ষ্যভেদ করেন রবসন রোবিনহো। চলতি লিগে নয় গোল নিয়ে গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে উঠে এলেন এই ব্রাজিলিয়ান।

১৮তম মিনিটে কিংস রক্ষণের ভুলে সমতায় ফেরে সাইফ স্পোর্টিং। আসরোর গফুরভের থ্রু বলে অফ সাইডের ফাঁদ ভেঙে নিয়ন্ত্রণ নিতে গেলে ফয়সাল আহমেদ ফাহিমকে ফেলে দেন জিকো, সেখানে বল পেয়ে আলতো টোকায় লক্ষ্যভেদ করেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এমফন সানডে।  

২৬তম মিনিটে মতিন মিয়ার গোলে আবারও ব্যবধান বাড়ায় বসুন্ধরা কিংস। সাইফের মিডফিল্ডার মেরাজের ব্যাক পাস ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণ নিতে পারেননি নাসিরুল, তার কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে সাইফের দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দুরের পোস্টের উপরের দিকে লক্ষ্যভেদ করেন মতিন।  

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর পাঁচ মিনিটে দু'দফা আক্রমণে যায় বসুন্ধরা কিংস। ৪৮তম মিনিটে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন বিপলু আহমেদ। গোলরক্ষক শান্তকে বোকা বানিয়ে বল নিয়ন্ত্রণে নেন বিপলু, সামনে ছিল শুধু রিয়াদুল রাফি। পোস্টের দুই পাশে না মেরে সরাসরি রাফির গায়ে মেরে গোলের সুযোগ নষ্ট করেন বিপলু।  

৫৫তম মিনিটে সাইফের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার ভুলে আবারও গোল হজম করে সাইফ। নিজেদের বক্সের ভেতরে বল পেয়ে সতীর্থের উদ্দেশে বাড়াতে গিয়ে জামাল বল তুলে দেন মতিন মিয়ার পায়ে, সেখান থেকে সহজেই জালে জড়ান এই স্ট্রাইকার। গতকাল হাভিয়ের কাবরেরার স্কোয়াড থেকে বাদ পড়ার পর দুই গোল করে একপ্রকার জবাব দিলেন মতিন।  

সাত মিনিটের মধ্যে দুই গোল করে দারুণ ভাবে ম্যাচে ফিরে আসে সাইফ। ৫৯তম মিনিটে এমফন সানডের পাসে দুরের পোস্টে অরক্ষিত থাকা ফয়সাল আহমেদ ফাহিম সহজেই বল জালে জড়ান। ৬৭তম মিনিটে জামালের কর্নার মেরাজের মাথা ছুঁয়ে আসা বল জিকো ফিস্ট করলে বল পেয়ে যান রিয়াদুল রাফি। নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ডান পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করে সাইফকে সমতায় ফেরান এই ডিফেন্ডার।  

৭৬তম মিনিটে ভ্রানিয়েসের হেড দারুণভাবে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকিয়ে দেন শান্ত। তবে পরের মিনিটে কিংসকে জয়সূচক গোলটি এনে দেন খালেদ শাফি। রবিনহোর কর্নারে শাফির হেড এমেরি বাইসেঙ্গের গায়ে লেগে বল জালে জড়ায়। শেষ দিকে ইব্রাহিমের শট ফিরিয়ে দেন শান্ত। বাকি সময়ে আর গোলের দেখা পায়নি দুই দল।

এই নিয়ে ৯ ম্যাচে ৮ জয়ে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই থাকল বসুন্ধরা কিংস। সমান ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ অবস্থানে নেমে গেছে সাইফ স্পোর্টিং।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৩ ঘণ্টা, মার্চ ১৬, ২০২২
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa