ঢাকা, শনিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ আগস্ট ২০২২, ১৪ মহররম ১৪৪৪

ফুটবল

মালয়েশিয়াকে ১ গোল দিয়ে ৪ গোল হজম করল বাংলাদেশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৮ ঘণ্টা, জুন ১৪, ২০২২
মালয়েশিয়াকে ১ গোল দিয়ে ৪ গোল হজম করল বাংলাদেশ সমতায় ফেরার এই আনন্দ দীর্ঘস্থায়ী হয়নি, বরং বড় হারের লজ্জায় পুড়তে হয়েছে জামাল ভূঁইয়াদের

ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের কোচ হ্যাভিয়ের কাবরেরা বলেছিলেন, আমাদের হারানোর কিছু নেই। ইঙ্গিত দিয়েছিলেন নির্ভার ফুটবল খেলে মালয়েশিয়াকে ভড়কে দেয়ার।

তবে হলো ঠিক উল্টো। ১ গোল দিতে পারলেও জামাল ভূঁইয়ারা হজম করলেন ৪ গোল।

এএফসি এশিয়া কাপের বাছাইপর্বের ম্যাচে আজ মঙ্গলবার কুয়ালালামপুরের বুকেত জলিল স্টেডিয়ামে বাংলাদেশকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিল স্বাগতিকরা। ফলে শেষটাও রাঙাতে পারল না কাবরেরার শিষ্যরা।

শুরুতেই গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়া বাংলাদেশ আশার আলো জাগিয়েছিল ইব্রাহিমের গোলে। ইঙ্গিত দিয়েছিল ঘুড়ে দাঁড়িয়ে লড়াই করার। তবে আবারও সঙ্গী হলো হতাশা।  

এবারের আসরে প্রথম দুই ম্যাচে র‌্যাংকিংয়ে অনেক এগিয়ে থাকা বাহরাইনের বিপক্ষে ২-০ এবং তুর্কমেনিস্তানের বিপক্ষে হেরেছিল ২-১ ব্যাবধানে। তবে ঐ ম্যাচগুলোতে নিজেদের পারফরম্যান্স দিয়ে নতুন দিনের আশা জাগিয়েছিলেন জামাল ভূঁইয়ারা। তবে এই ম্যাচে নিজেদের ঠিক সেভাবে মেলে ধরতে পারেনি বাংলাদেশ।

ম্যাচের ১৫তম মিনিটে পেনাল্টি গোলে পিছিয়ে পড়া বাংলাদেশ ম্যাচে ফিরেছিল ৩২তম মিনিটে। তুর্কমেনিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের গোলটি এসেছিল বিশ্বনাথের লম্বা থ্রো থেকে। থ্রো থেকে রাকিবের ব্যাক হেড, তারপর ইব্রাহিমের হেডে গোল। আজ মালয়েশিয়ার গোলটি যেন ওই গোলেরই ফটোকপি।

সমতায় ফিরে স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে উপস্থিত ১২ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশিদের আনন্দে ভাসিয়েছিলেন জামাল ভূঁইয়ারা; কিন্তু সে আনন্দ বেশিক্ষণ থাকেনি। ৫ মিনিট পরই মালয়েশিয়াকে এগিয়ে দেন দিওন কুলস।

পুরো ম্যাচেই নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে মালয়েশিয়া। বাংলাদেশ নিজেদের রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত থেকেছে।

২-১ ব্যবধানে প্রথমার্ধ শেষ হলেও দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ৪৭তম মিনিটে শফিক আহমেদের গোলে এগিয়ে যায় মালয়েশিয়া। এরপর বেশ কিছু গোলের সুযোগ তৈরি করেছিল তারা। সেই সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারলে ব্যবধান আরও বড় হতে পারত। ৭৩তম মিনিটে ড্যারেন লুকের গোলে এশিয়ান কাপের মূল পর্ব নিশ্চিত করে মালয়েশিয়া।

কাবরেরা বলেছিলেন, শেষ মাচে কিছুই হারানোর নেই। তবে হারালেন অনেক কিছুই। প্রথম দুই ম্যাচে প্রতিপক্ষের বিপক্ষে বুক চিতিয়ে লড়াই করা বাংলাদেশকে দেখা গেল না এই ম্যাচে। দেখা গেল না রক্ষণটা ভালোভাবে সামলে নিয়ে প্রতি-আক্রমণে যাওয়া বাংলাদেশকে।

অন্যদিকে এই ম্যাচের সব সুযোগই কাজে লাগাল মালয়েশিয়া। এশিয়া কাপ নিশ্চিত করার ম্যাচটি রাঙিয়ে নিল বড় জয়ে। এই ম্যাচটি বাংলাদেশ হয়তো ভুলে যেতে চাইবে। তবে মালয়েশিয়া মনে রাখবে বহুকাল।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৭ ঘণ্টা, জুন ১৪, ২০২২
এআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa