ঢাকা, শনিবার, ২২ আশ্বিন ১৪২৯, ০৮ অক্টোবর ২০২২, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ফ্রান্স

প্যারিসে “অক্ষর” এর প্রস্ফুটন

ওয়াহিদুজ্জামান, প্যারিস থেকে | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৩০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০১৬
প্যারিসে  “অক্ষর” এর প্রস্ফুটন

প্যারিস: ফ্রান্সের প্যারিসে সমৃদ্ধ বাংলা পাঠাগার প্রতিষ্ঠা এবং বাংলা কমিউনিটিতে মননশীল সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চার বিকাশ ঘটাতে আত্মপ্রকাশ করেছে সাহিত্য  সংগঠন “অক্ষর”।  

রোববার (১৭ জানুয়ারি) ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের ল্য তেয়ার দু ত্ব  (LE THEARE DU TEMPS) থিয়েটার হলে এক মনোজ্ঞ সংস্কৃতি  সন্ধ্যার মধ্য দিয়ে এ সংগঠনের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়।



প্যারিসে “অক্ষর”-এর বীজ অঙ্কুরিত হয় মূলত প্রায় দু’ বছর আগে। শুরুটা কয়েকজন কবিতা-প্রেমী বন্ধুর সাহিত্য আড্ডার মধ্যদিয়ে। সেই আড্ডায় নিয়মিত নতুন-পুরাতন বন্ধুদের যাওয়া আসার মধ্য দিয়ে কয়েকজন বন্ধুর আড্ডা স্থায়ীরূপ নেয় Centre national d'art et de culture Georges-Pompidou ( সংক্ষেপে সেন্টর  জর্জ পম্পেডু) এর নিচ তলায়।

এখানে প্রতিমাসেই বসে কবিতা পাঠের আসর। ধীরে ধীরে আসরে অংশগ্রহণকারীরা তাদের কবিতার সুধা প্যারিসের বাংলা কমিউনিটিতে ছড়িয়ে দেওয়ার স্বপ্ন দেখতে থাকেন। তারা উপলব্ধি করেন, সৃজনশীল সাহিত্য, সাংস্কৃতিক চর্চা ও পাঠাভ্যাসের ভেতর দিয়ে একটি মননশীল জাতি গঠনের যে উত্তাল স্রোত প্রবাহমান ছিল, রাজনৈতিক অস্থিরতা, সামাজিক অবক্ষয় ও অপসংস্কৃতির প্রভাবে তার গতি আজ মন্থর। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে প্রয়োজন পুনঃজাগরণের। এ লক্ষ্যেই বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে বসবাসরত শিল্পমনা বাংলাভাষী মানুষ সামাজিক আন্দোলন গড়ার চেষ্টা করছে। এ সামাজিক আন্দোলনের ক্ষুদ্র অংশ হিসেবে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার উপলব্ধি থেকেই মূলত “অক্ষর”-এর সৃষ্টি।

মানুষের জ্ঞান চর্চার ইতিহাস সুদীর্ঘ। কিন্তু জ্ঞান লিপিবদ্ধের যাত্রা শুরু অক্ষর আবিষ্কারের মাধ্যমে। অক্ষর সৃষ্টির ফলেই আজ জ্ঞান-বিজ্ঞানের প্রতিটি শাখা-প্রশাখার বিকাশ। অক্ষর জ্ঞান অর্জনের ভেতর দিয়েই মানুষের জ্ঞানের বিস্তৃত ভুবনে প্রবেশ। এজন্য “অক্ষর” নামে এ সাহিত্য সংগঠনের আত্মপ্রকাশ। “অক্ষর”কে কেন্দ্র করেই এর সহযাত্রীরা তাদের লক্ষ্য ও প্রয়াসকে এগিয়ে নিতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। “অক্ষর”-এর সতীর্থরা সাহিত্য ও সংস্কৃতির বোদ্ধা নন, বরং তারা সাহিত্য ও সংস্কৃতি অনুরাগী।

শিল্পীদের তবলায় সহযোগিতা করেন প্লাসিড শিপন। মঞ্চ সজ্জায় ছিলেন মোহিত জ্যোতি ও আলোক চিত্রে সহযোগিতা করেন সুমন আজাদ।

এ সংস্কৃতি সন্ধ্যায় সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন প্যারিসের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মুনির কাদের। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও সাহিত্য অনুরাগী হাসনাত জাহান।

বাংলাদেশ সময়: ০৬২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০১৬
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

ফ্রান্স এর সর্বশেষ

Alexa