ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

নভেম্বরে ডেঙ্গুতে দিনে নয়জনের মৃত্যু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০২৩
নভেম্বরে ডেঙ্গুতে দিনে নয়জনের মৃত্যু

ঢাকা: জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বেড়েছে ডেঙ্গুর আগ্রাসন। চলতি বছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা দেশের ইতিহাসে ইতোমধ্যে অতীতের সব বছরের রেকর্ড ছাড়িয়েছে।

জুন থেকে সেপ্টেম্বর মাস ডেঙ্গু রোগের মৌসুম হলেও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বর্তমানে সারা বছরজুড়েই ডেঙ্গু রোগের প্রকোপ দেখা যাচ্ছে। বর্ষা মৌসুমের আগেই হানা দেওয়া ডেঙ্গুর প্রকোপ যেন কমছেই না।

চলতি বছরের ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ১২ হাজার ৯৬৪ জন। এর মধ্যে ঢাকাতে এক লাখ আট হাজার ১১৩ জন ও সারা দেশে (ঢাকা সিটি ব্যতীত) দুই লাখ চার হাজার ৮৫১ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন।

চলতি বছরের এ যাবত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মোট এক হাজার ৬২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকাতে ৯৪২ জন এবং সারা দেশে (ঢাকা সিটি ব্যতীত) ৬৮৭ জন মারা যান।

নভেম্বর মাসে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে মারা গেছেন মোট ২৭৪ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৪০ হাজার ৭১৬ জন। নভেম্বর মাসে ডেঙ্গুতে গড়ে নয়জন মারা গেছেন এবং আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৩৫৭ জন।  

২০২২ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা সর্বমোট ৬২ হাজার ৩৮২ জন এবং ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মোট ২৮১ জন মারা যান।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, গত কয়েক বছর ধরে অব্যাহতভাবে ডেঙ্গুর সংক্রমণ ঘটলেও, যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ না করায় ডেঙ্গু ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। ইতোপূর্বে ডেঙ্গু রাজধানী কেন্দ্রিক থাকলেও বর্তমানে তা সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনির্ণয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) সাবেক প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এবং বর্তমান উপদেষ্টা ডা. মুশতাক হোসেন বলেন, ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে বৃষ্টিপাতের আশংকা আছে, বৃষ্টি হলে এডিস মশার প্রজনন আবার বাড়ে। আমাদের দেশে শীতকালে তাপমাত্রা এত বেশি কমে যায় না যে, ডিম ফুটে মশার লার্ভা বের হবে না। বৃষ্টি না হলে মশার প্রজনন কম হবে, হলে আরও বাড়বে।

তিনি আরও বলেন, যেহেতু আমরা ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে স্থায়ী কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছি না, বলতে গেলে মশা নিয়ন্ত্রণে স্থায়ী কোন ব্যবস্থা এখনও শুরু হয়নি, পাশাপাশি হাসপাতাল ব্যবস্থাপনারও কোন পরিবর্তন হয়নি, বিকেন্দ্রীকৃত জনস্বাস্থ্যভিত্তিক ব্যবস্থাপনা না নিলে আমরা ডেঙ্গুতে মৃত্যু কমাতে পারবো না। মশা কমাতে আমাদের দুই তিন বছর সময় লাগতে পারে, কিন্তু স্বাস্থ্য ব্যবস্থার পুনর্গঠন এবং পুনর্সজ্জিতকরণের মাধ্যমে আমরা কম সময়েই ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা কমাতে পারি।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০২৩
আরকেআর/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।