ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২১ মে ২০২৪, ১২ জিলকদ ১৪৪৫

তথ্যপ্রযুক্তি

৫৫ হাজার ফ্রিল্যান্সার তৈরির উদ্যোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৭, ২০১৫
৫৫ হাজার ফ্রিল্যান্সার তৈরির উদ্যোগ

ঢাকা: অনলাইনে আউট সোর্সিংয়ের বৈশ্বিক বাজার তৈরি হচ্ছে। সেই সঙ্গে অনলাইন আউটসোর্সিং এ এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

এ ক্ষেত্রকে আরও সম্প্রসারিত করতে ৫৫ হাজার ফ্রিল্যান্সার তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরমধ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবেন ২০ হাজার নারী।

মঙ্গলবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে বিসিসি অডিটোরিয়ামে ‘মাঠ পর্যায়ে আউটসোর্সিং দক্ষতা উন্নয়নে চাই আপনার মতামত’ শীর্ষক কর্মশালায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এসব জানান।

‘লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট’ প্রকল্পের অধীনে সারাদেশের ৫৫ হাজার তরুণ-তরুণীকে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে গড়ে তোলা হবে। জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে শুরু করে জুনের মধ্যে এ প্রশিক্ষণ শেষ করা হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ১৮০ কোটি ৩৯ লাখ ৯৯ হাজার টাকা ব্যয়ে দুই বছর মেয়াদী (জানুয়ারি ২০১৪- জুন ২০১৬) প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। প্রকল্প অনুযায়ী ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ে ২৫ হাজার, উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে ১০ হাজার তরুণ-তরুণীকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে গড়ে তুলতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে সরকারি তহবিল থেকে।

এ প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন পর্যায়ে এক হাজার ৯২০ জন গণমাধ্যমকর্মীকেও ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে প্রশিক্ষণ দেবে সরকার।

তিনি বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশ ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে এক ধাপ এগিয়ে যাবে এবং ইন্টারনেট ভিত্তিক কার্যক্রমে এক নতুন দিগন্তের সূচনা করবে।
 
ফ্রিল্যান্সারদের আরও দক্ষ করে গড়ে তুলতে ‘মাস্টার ট্রেইনার’ তৈরি করে তৃণমূল পর্যায়ে ফ্রিল্যান্সিংয়ের কার্যক্রম  সম্প্রসারণ করা হবেও জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয় থেকে লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং কর্মসূচির আওতায় এর আগে ১৫ হাজার তরুণ-তরুণীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। তথ্য প্রযুক্তির ব্যাপক ব্যবহার এ প্রজন্মের তরুণ তরুণীদের জন্য সুযোগের দুয়ার খুলে দিয়েছে। এখন মেধা ও দক্ষতার সমন্বয়ে সে দুয়ার দিয়ে বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে পড়তে হবে।

কর্মশালায় আরো উপস্থিত ছিলেন, ইল্যান্স ও ওডেক্স’র কান্ট্রি ম্যানেজার সাইদুর মামুন খান, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিংয়ের (বাক্কো) সভাপতি আহমেদুল হক, তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব শ্যামা প্রসাদ ব্যাপারী এবং কর্মশালায় প্রশিক্ষণের দায়িত্ব পাওয়া ৬৪ জেলার ৬৪টি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।
 
বাংলাদেশ সময়: ২১৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৭, ২০১৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।