ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

এশিয়া প্যাসিফিকে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম তৈরিতে ৪ উদ্যোগ হুয়াওয়ের

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৯ ঘণ্টা, আগস্ট ৮, ২০২১
এশিয়া প্যাসিফিকে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম তৈরিতে ৪ উদ্যোগ হুয়াওয়ের

ঢাকা: এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে টেকসই স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম তৈরিতে নিজেদের উদ্যোগ ত্বরান্বিত করার ঘোষণা দিয়েছে হুয়াওয়ে ক্লাউড। সম্প্রতি সিঙ্গাপুর ও হংকং-এ অনুষ্ঠিত এশিয়া-প্যাসিফিক স্পার্ক প্রতিষ্ঠাতা সামিটে স্টার্টআপের প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে ক্লাউডের অন্তর্ভুক্তি ও উদ্ভাবন সম্পর্কিত কর্মসূচি গ্রহণের পরিকল্পনা ঘোষণা করে প্রতিষ্ঠানটি।

এ লক্ষ্যে চারটি উদ্যোগ নেবে হুয়াওয়ে। এ ব্যাপারে হুয়াওয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট, হুয়াওয়ে ক্লাউড বিইউর সিইও এবং হুয়াওয়ে কনজ্যুমার ক্লাউড সার্ভিসের প্রেসিডেন্ট ঝাং পিং আন বলেন, বিভিন্ন অঞ্চলে স্টার্টআপের সহায়ক প্ল্যাটফর্ম তৈরির লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার, শীর্ষস্থানীয় ইনকিউবেটর, স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় ও ভাইস চ্যান্সেলরদের সঙ্গে কাজ করছে হুয়াওয়ে।

তিনি বলেন, আমরা গত বছর এশিয়া প্যাসিফিকে স্পার্ক প্রোগ্রাম চালু করেছি। এখন পর্যন্ত ৪০টি স্টার্টআপ আমাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে। এর মধ্যে চারটি স্টার্টআপকে আমরা ইতোমধ্যে নতুন পণ্য আনতে ও ব্যবসায় রূপান্তর ঘটাতে সহায়তা করেছি। এ সময় আটটি নতুন স্টার্টআপকে বাজারে প্রবেশে সাহায্যের কথা উল্লেখ করেন প্রেসিডেন্ট ঝাং পিং আন।

প্রথম উদ্যোগটি হুয়াওয়ে ক্লাউড ও হুয়াওয়ে মোবাইল সার্ভিসের (এইচএমএস) যৌথ উদ্যোগ। হুয়াওয়ে ক্লাউড অবকাঠামোকে এইচএমএসের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে মিডিয়া, বিনোদন ও অর্থনীতি থেকে শুরু করে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইন্টারনেট, স্বাস্থ্যসেবা এবং শিক্ষা পর্যন্ত সব শিল্পের ক্ষমতায়নে কাজ করবে হুয়াওয়ে। সমন্বিত অ্যাকাউন্ট, ওয়ান স্টপ ডেভেলপমেন্ট প্ল্যাটফর্ম, ওয়ান স্টপ অ্যাপ ডিস্ট্রিবিউশন ও মার্কেটিং থেকে হুয়াওয়ে ক্লাউড, এইচএমএস ডেভলপার এবং অংশীজনরা এর সুবিধা ভোগ করবে।

দ্বিতীয় উদ্যোগের মধ্যে রয়েছে প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন চালিয়ে যাওয়া। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স এবং নিরবচ্ছিন্ন অভিজ্ঞতা দেওয়ার সঙ্গে বিশ্বব্যাপী স্টার্টআপগুলোকে তাদের প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে এবং ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে সহায়তা করছে হুয়াওয়ে ক্লাউড।

তৃতীয় উদ্যোগটি এশিয়া প্যাসিফিকের স্টার্টআপগুলোকে বৈশ্বিক বাজারে তাদের ব্যবসা সম্প্রসারণে সাহায্য করবে। হুয়াওয়ে ক্লাউড বিশ্বের ২৩টি ভৌগলিক অঞ্চলের ৪৫টি সহজলভ্য স্থানে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এর মধ্যে এশিয়া প্যাসিফিকে হংকং, সিঙ্গাপুর ও থাইল্যান্ডে সাতটি স্থানে কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি ১০টিরও বেশি অঞ্চলে রয়েছে স্থানীয় সেবাদাতা টিম। তাই হুয়াওয়ে ক্লাউড নিরবচ্ছিন্ন অভিজ্ঞতার সঙ্গে বিশ্বব্যাপী ক্লাউড সেবা দিতে সক্ষম।

সর্বশেষ উদ্যোগটি হচ্ছে, উচ্চ মানের ব্যবসায়িক ইকোসিস্টেম প্রদান। এ লক্ষ্যে এশিয়া প্যাসিফিকের স্টার্টআপগুলোর জন্য উচ্চমানের ইকোসিস্টেম তৈরি করেছে হুয়াওয়ে ক্লাউড। ইতোমধ্যে হুয়াওয়ে ক্লাউড এশিয়া প্যাসিফিকের দুই হাজারেরও বেশি ইকোসিস্টেম অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করেছে।

এছাড়া এইচএমএসের সঙ্গে হুয়াওয়ে ক্লাউডের সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রোগ্রামটি রিসোর্স সম্পর্কিত সহায়তা, ফান্ডিংয়ের সুযোগ, চ্যানেল শেয়ারিং এবং মেধা বিকাশের মাধ্যমে স্টার্টআপগুলোর প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে সহায়তা করবে। হুয়াওয়ে ক্লাউড চীনে দ্বিতীয় ও বিশ্বব্যাপী আইএএএস বাজারে পঞ্চম এবং বিশ্বের দ্রুত বর্ধনশীল প্রধান ক্লাউড সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৭ ঘণ্টা, আগস্ট ০৮, ২০২১
এনএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa