ঢাকা, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক

ধ্বংসস্তূপ, নীরবতা আর জীবনচিহ্ন পাওয়ার অপেক্ষা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৩
ধ্বংসস্তূপ, নীরবতা আর জীবনচিহ্ন পাওয়ার অপেক্ষা

তুরস্কে শক্তিশালী ভূমিকম্পে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সোমবার ভোরের দিকে ৭ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

এই ভূমিকম্পে তুরস্কের পাশাপাশি সিরিয়াতেও বহু মানুষ হতাহত হয়েছে। ভূমিকম্পটির কেন্দ্র ছিল গাজিয়ান্তেপ অঞ্চলে।

ভূমিকম্পের কেন্দ্রের দিকে যাওয়া সহজ নয়। প্রধান প্রধান মহাসড়কগুলো নিরাপদ নয়, উদ্বেগ রয়েছে। ঘুরানো পাহাড়ি পথে সবকিছু সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।  
 
সেখানে অ্যাম্বুলেন্স ও উদ্ধার দল পাঠানোর জোর চেষ্টা চলছে। তবে ওই এলাকা ছেড়ে আসা লোকজন বহনকারী ট্রাকের বিপরীতে আটকে পড়ছে।  

সড়কপথে ফাটল রয়েছে, ভাঙা, অসমান। এসবের কারণে এই সংকটময় মুহূর্তে উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হচ্ছে।

যতই কেন্দ্রস্থলের দিকে যাওয়া যায়, দেখা যায়, ধ্বংসের মাত্রা ক্রমেই বাড়ছে। এখনও আফটারশক অনুভূত হচ্ছে। ফলে লোকজন ভবনের পাশে থাকতে চাচ্ছে না। আফটারশক টের পেলেই লোকজন দৌড়াচ্ছে।
 
ওসমানি অঞ্চলে সোমবার সন্ধ্যায় ধসে পড়া একটি হোটেল থেকে আটজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। হোটেলটিতে ১৪ জন লোক ছিলেন। এখনও আশা করা হচ্ছে কেউ হয়তো বেঁচে আছেন।  

এখন পর্যন্ত ভেঙে পড়া অনেক ভবনে উদ্ধারকাজ শুরু করা সম্ভব হয়নি। এটি ধারণা করা যায় না যে, ভবনগুলো ফাঁকা ছিল। উদ্ধারচেষ্টা  বড় বড় ভবনকে ঘিরেই কেন্দ্রীভূত। ধারণা করা হয়, এসবের মধ্যে অনেক লোক রয়েছে।  

যা ঘটেছে, তাতে লোকজন নির্বাক। তারা দাঁড়িয়ে আগুন জ্বালিয়ে নিজেদের উষ্ণ রাখার চেষ্টা করছেন আর উদ্ধারকাজ দেখছেন। ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে জীবনের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায় কি না, তা শুনতে তারা একেবারে নীরব হয়ে দাঁড়িয়ে আছেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৩
আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।