ঢাকা, সোমবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৮ আগস্ট ২০২২, ০৯ মহররম ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

উত্তেজনার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার নৌমহড়া শুরু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬১৫ ঘণ্টা, জুলাই ২৫, ২০১০
উত্তেজনার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার নৌমহড়া শুরু

সিউল: জাপান সাগরে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার চার দিনব্যাপী যৌথ নৌমহড়া রোববার সকালে শুরু হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্রের হামলার হুমকির পর কোরীয় উপদ্বীপে উত্তেজনা তৈরি হলো।



চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী যথাক্রমে রবার্ট গেটস  ও কিম তায়ে-ইয়ং একটি যৌথ বিবৃতিতে বলেন, “উত্তর কোরিয়ার আক্রমণাত্মক আচরণের বিরুদ্ধে এটি একটি সতর্কবার্তা। ”

গত মার্চে যুদ্ধজাহাজ চিওনান ডুবির ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ও একটি বহুজাতিক তদন্তে উত্তর কোরিয়া দোষী প্রমাণিত হয়েছে। পীত সাগরে ওই যুদ্ধজাহাজ ডুবির ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়ার ৪৬ জন নাবিক নিহত হয়েছে। তবে, উত্তর কোরিয়া বরাবরই এ অভিযোগ নাকচ করে আসছে।

এর আগে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জাতিসংঘ কমান্ড জানায়, চার দিনের এই নৌমহড়ায় বিমানবহনকারী জাহাজ ইউএসএস জর্জ ওয়াশিংটন ও প্রায় ২০০টা বিমান অংশ নেবে।

জাতিসংঘ কমান্ড আরও জানিয়েছে, নৌমহড়ায় দুই দেশের আট হাজার নৌসদস্যও অংশ নেবে। রোববার সকালে মহড়া শুরু হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, চীনের বিরুদ্ধতার মুখে নৌমহড়াটি পীত সাগর থেকে জাপান সাগরে স্থানান্তর করা হয়েছে। তবে, ভবিষ্যতে উভয় সাগরেই নৌমহড়া অনুষ্ঠিত হবে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

এদিকে, উত্তর কোরিয়ার প্রতিরক্ষা কমিশন জানিয়েছে, “এসব যুদ্ধের মহড়া উত্তর কোরিয়াকে উস্কানি দেওয়া জন্য করা হচ্ছে। এর লক্ষ্য, অস্ত্রের সাহায্যে বলপ্রয়োগ করে ডেমোক্রাটিক পিপলস রিপাবলিক অব কোরিয়াকে (উত্তর কোরিয়া) দমন করা। ” এর আগে, পরমাণু অস্ত্রের মাধ্যমে পাল্টা হামলার হুমকি দেয় দেশটি। উত্তর কোরিয়া আরও জানায়, “নৌমহড়াটি হবে ঘুমন্ত বাঘকে জাগিয়ে তোলার মতো অপরিণামদর্শী। ”

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফিলিপ ক্রাউলি বলেন, “আমরা কথার যুদ্ধে আগ্রহী নয়। উত্তর কোরিয়ার উস্কানিমূলক আচরণ কমেছে এটা দেখতে চাই আমরা, গঠনমূলক কাজ চাই বেশি। ”

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ০৫৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ২৫, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa