ঢাকা, বুধবার, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

সরকার গঠনে সুবিধাজনক অবস্থানে জুলিয়া গিলার্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬২৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২৬, ২০১০

ক্যানবেরা: অষ্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী জুলিয়া গিলার্ড মনে করছেন সরকার গঠনের জন্য তিনি সুবিধাজনক অবস্থানে পৌঁছেছেন।   বৃহস্পতিবার তিন স্বতন্ত্র প্রার্থী রক্ষণশীলদের সমালোচনা করায় গিলাডের জন্য সরকার গঠনের পথ প্রশস্ত হয়েছে।

খবর রয়টার্সে’র।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে স্বতন্ত্র সাংসদদের প্রাথমিক সাতটি অনুরোধ মেনে নিয়ে সরকার গঠনের জন্য গিলার্ড আগেভাগেই আলোচনা শুরু করতে ইচ্ছুক।

সম্পদ, ব্রডব্যান্ড নীতি, স্বাস্থ্য, জলবায়ু পরিবর্তন, শক্তি, প্রতিরক্ষা, শিক্ষা, কর্মসংস্থান আইন, অবকাঠামো, যাতায়াত ব্যবস্থা ও কৃষিসহ সাতটি বিষয়ে তাদেরকে সংক্ষেপে জানানোর জন্য গিলার্ড ও অ্যাবোটের কাছে দাবি জানিয়েছেন তিনজন স্বতন্ত্র প্রার্থী ।

গিলার্ড এ সাতটি দাবি মেনে নিয়ে নিজ অধিকারবলে পরবর্তী নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার সিদ্ধান্ত না নেওয়ার বিষয়ে একমত হয়েছেন।

এদিকে লেবার পার্টির নতুন সম্পদ করের পরিকল্পনাকে সমর্থন জানিয়েছেন মন্ত্রীদের তিনজন।
তবে অর্থ বাজার রক্ষণশীলদের চাচ্ছে। কেননা, করের পরিমাণ ৩০ শতাংশ পর্যন্ত কমানো ও কার্বণ নির্গমনসহ লেবার সরকারের ৩ কোটি ৮ লাখ ডলারের ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্কের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বাধা দিতে তারা সক্ষম হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।  

নির্বাচনের ভোট গণনার কাজ এগিয়ে চলেছে। সর্বশেষ গণনায় লিবারেল-ন্যাশনাল কোয়ালিশন ৭৩টি, লেবার ৭১টি আসন পেয়েছে।  

উল্লেখ্য,সরকার গঠনের জন্য ৭৬ টি আসন প্রয়োজন। তবে ভোট গণনা শেষ না হওয়ায় এবং ডাকে পাঠানো হাজার হাজার ভোট এখনও না পৌঁছানোর কারণে অষ্ট্রেলিয়ার সংখ্যালঘু সরকার গঠন বিষয়ক আলোচনার সময়সীমা বেড়ে আগামী সপ্তাহে পৌঁছেছে।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ১৭২৯ ঘণ্টা, আগস্ট ২৬, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa