ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সাক্ষাৎকার

পঞ্চগড়কে মডেল পৌরসভা করতে চান তৌহিদুল

রাজিউর রহমান রাজু, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮১২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৬
পঞ্চগড়কে মডেল পৌরসভা করতে চান তৌহিদুল ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পঞ্চগড়: ‘আমার বিশ্বাস ছিল, শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে পৌরবাসী এবারও আমাকে মেয়র নির্বাচিত করবেন। ৯টি ওয়ার্ডের প্রতিটি কেন্দ্রেই ভোটাররা ভোট দিয়ে আমাকে জয়ী করেছেন’।



‘দীর্ঘদিন ধরে আমি মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। মানুষের ভালোবাসার কারণেই আমার এ বিজয় হয়েছে। গরিব মানুষেরা, বিশেষ করে বস্তিবাসী আমাকে তাদের প্রকৃত বন্ধু মনে করেন’।

‘মেয়র হিসেবে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডই আমার ওয়ার্ড। এ পৌরসভার সব মানুষ ও সব এলাকার উন্নয়ন করাই আমার দ্বায়িত্ব। আমি পঞ্চগড় পৌরসভাকে তৃতীয় শ্রেণি থেকে প্রথম শ্রেণিতে উন্নীত করেছি। এখন মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই’।

বাংলানিউজকে দেওয়া সাক্ষাতকারে এভাবেই নিজের অভিব্যক্তি জানান পঞ্চগড় পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মো. তৌহিদুল ইসলাম।

মেয়র পদে পঞ্চমবারের মতো নির্বাচিত হওয়া এ জনপ্রতিনিধি বলেন, পঞ্চগড়বাসী আবারও তাদের সেবা করার সুযোগ দেওয়ায় আমি সবার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। নির্বাচনের আগেই আমি বলেছিলাম, এ নির্বাচনই আমার শেষ নির্বাচন। শেষ সময়ের প্রতিনিধিত্বে আমার সর্বশক্তি দিয়ে পৌরসভার রাস্তা, ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ যাবতীয় উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করবো।

তিনি বলেন, পঞ্চগড় শহরটি অত্যন্ত সম্ভাবনাময় এলাকা। বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে পূর্ণ ইমিগ্রেশন চালু হলে পঞ্চগড়ের চেহারা পাল্টে যাবে। তাই এ পৌরসভার উন্নয়নে দূরদর্শী ও টেকসই উন্নয়ন পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হবে।

সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে বিএনপির এ মেয়র প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ১৩ হাজার ৮৬৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাকিয়া খাতুন নৌকা প্রতীক নিয়ে পান ৬ হাজার ৭৯৮ ভোট।

১৯৮৫ সালের ১৫ জুন ২২ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে যাত্রা শুরু করা পঞ্চগড় পৌরসভা বর্তমানে প্রথম শ্রেণির পৌরসভায় উন্নীত হয় ২০০৫ সালে। এ ব্যাপারে গর্ব করে মেয়র তৌহিদুল বলেন, এ পৌরসভাটি আমার হাত দিয়েই ১৯৯৪ সালে দ্বিতীয় শ্রেণি আর ২০০৫ সালে প্রথম শ্রেণির পৌরসভায় পরিণত হয়েছে।

আগামী দিনে তার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করে পঞ্চগড় পৌরসভাকে মডেল হিসেবে পরিচিত করতে চান। পৌরসভার সব নাগরিক সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে পৌরবাসীর সেবাপ্রাপ্তি সহজ করতে নানামুখী কার্যক্রম হাতে নিতে চান এ বিএনপি নেতা।

পঞ্চগড় পৌর বিএনপির সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম আরও বলেন, যারা আগামী দিনে এদেশে নেতৃত্ব দেবেন, সেই যুবসমাজ যাতে মাদকের ছোবলে ধ্বংস না হন, সেদিকে আমি নজর রাখছি। আমি চাই না কোনো মেধাবী সন্তান মাদকের অন্ধকার জগতে গিয়ে তার পরিবার তথা সমাজকে কলুষিত করুন। তাই আমি এ পৌরসভাকে মাদকমুক্ত পৌরসভা গড়ারও ঘোষণা দিয়েছি।

পৌরবাসীকে সঙ্গে নিয়ে তিনি মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অতীতের মতোই অব্যাহত রাখবেন বলেও জানান তৌহিদুল ইসলাম।  



বাংলাদেশ সময়: ০৮১৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৬
আরএ/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa