ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

ইসলাম

হিজাব পরিধানের নিষেধাজ্ঞা বাতিল করলো সুইজারল্যান্ডের আদালত

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৫
হিজাব পরিধানের নিষেধাজ্ঞা বাতিল করলো সুইজারল্যান্ডের আদালত ছবি: সংগৃহীত

সুইজারল্যান্ডের সানগোলান প্রদেশের স্কুলে হিজাব পরিধানের ওপর চালু থাকা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে সেদেশের ফেডারেল আদালত। সুইজারল্যান্ড ফেডারেল আদালত শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।



২০১৩ সালে সানগোলান প্রদেশের একটি স্কুলের পক্ষ থেকে মুসলিম শিক্ষার্থীদের হিজাব পরিধানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারির আর্জি জানানো হয়। তাদের যুক্তি যেহেতু সনাতনি আইনের কারণে সুইজারল্যান্ডে ইসলাম ধর্মের পোশাক নিষিদ্ধ। তাই স্কুলেও হিজাব পরিধান করা যাবে না।  

ওই আর্জির বিপরীতে আদালতে আইনি লড়াই চালায় মুসলমানরা। অবশেষে ২ বছর পর হিজাব নিষেধাজ্ঞা জারির আদেশ বাতিল করে সেদেশের ফেডারেল আদালত।

ফেডারেল আদালত স্কুল কর্তৃপক্ষের আবেদনে সাড়া না দিয়ে, মুসলিম শিক্ষার্থীদেরকে হিজাব পরিধান করে স্কুলে যাতায়াতের অধিকার দেওয়ার ঘটনায় মুসলমানরা দারুণ খুশি।

সুইজারল্যান্ডের ফেডারেল বিচারক ফ্লোরেন্স অবরু ঝারারডিন (Florence Aubry Girardin) তার রায়ে বলেন, ‘স্কার্ফ ব্যবহার করা কোনো খারাপ লক্ষণ নয় বরং যদি কেউ স্কার্ফ ব্যবহার করে তাহলে এটা অবশ্যই একটি উত্তম লক্ষণ। ’

উল্লেখ্য যে, সুইজারল্যান্ডের মোট ৮০ লাখ জনগণের মাঝে প্রায় ৫ লাখ মুসলমান। সুইজারল্যান্ডে ১৯৬১ সালে প্রথম মসজিদ নির্মিত হয়।

বর্তমানে সুইজারল্যান্ডে ২০০টি মসজিদ ও নামাজখানা রয়েছে। এসব মসজিদের অধিকাংশই পরিত্যক্ত কারখানা এবং গুদামে নির্মাণ করা হয়েছে। মাত্র ৪টি মসজিদে মিনার রয়েছে। অনেক মসজিদে মাইকে আজান দেওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যদিও রাজধানী স্টকহোমের মসজিদগুলো এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে।

গত শতাব্দীর মাঝামাঝি সময় থেকে সুইজারল্যান্ডে আরব দেশগুলোর পর্যটকদের আনাগোনা শুরু হয়। এর সূত্র ধরে, সত্তরের দশকে প্রথম মুসলিম বসবাস শুরু হয়। মসজিদ ও বিভিন্ন ইসলামিক সেন্টার স্থাপিত হয় নব্বইয়ের দশকে। এ সময়ই বিভিন্ন দেশ থেকে মুসলিম নাগরিকরা এখানকার অভিবাসী হন।



বাংলাদেশ সময়: ১৬১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৫
এমএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa