ঢাকা, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

ইসলাম

বিশ্ব ইজতেমা এ বছর থেকে ৩২ জেলার মুসল্লিদের

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১, ২০১৬
বিশ্ব ইজতেমা এ বছর থেকে ৩২ জেলার মুসল্লিদের ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

গাজীপুর: এ বছর থেকে দেশের ৩২টি জেলার মুসল্লিদের নিয়ে দুই ধাপে শুরু হবে বিশ্ব ইজতেমা। এবার দুই ধাপে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেবে দেশে ৩২টি জেলার মুসল্লিরা।

বাকি ৩২ জেলার মুসল্লি আগামী ২০১৭ সালে দুই ধাপে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেবে।

এবারের (২০১৬) বিশ্ব ইজতেমা তিন দিনের প্রথম পর্ব শুরু হবে ৮ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে তা শেষ হবে ১০ জানুয়া‍রি। দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে ১৫ জানুয়ারি শেষ হবে ১৭ জানুয়ারি। বিশ্ব ইজতেমার শীর্ষ পর্যায়ের মুরুব্বিরা ইজতেমার এ তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

বিশ্ব ইজতেমার মাঠের অন্যতম জিম্মাদার তাবলিগের মুরুব্বি গিয়াস উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, ইজতেমার ময়দানে মুসল্লিদের স্থান না হওয়ায় এ বছর থেকে দেশে ৬৪ জেলাকে ৪ ভাগে ভাগ করা হয়েছে। এবারে বিশ্ব ইজতেমায় দুই ধাপে অংশ নেবে দেশে ৩২টি জেলার মুসল্লিরা। বাকি ৩২ জেলার মুসল্লিরা আগামী ২০১৭ সালে দুই ধাপে অংশ নেবে।

প্রতিটি জেলার মুসল্লি এক বছর পরপর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতে পারবে। যে সব জেলাগুলো এ বছর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিবে সেই সব জেলাগুলো আগামী ২০১৭ সালে অংশ নিতে পাবে না। এবার যে জেলার মুসল্লিরা  ইজতেমায় অংশ নিতে পারবে না সেই সব জেলায় জেলায় ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। তবে বিদেশি মুসল্লিরা প্রতি বছর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতে পারবেন।

তিনি আরও জানান, ২০১১ সাল থেকে বিশ্ব ইজতেমা দুই ধাপে করা হয়েছে। দেশের ৬৪ জেলার মুসল্লিরা প্রতিবছর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিয়ে আসছেন। তবে মুসল্লিদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় এবং স্থান না হওয়ায় ৬৪ জেলার মুসল্লিরা অংশ নিতে পারছে না বিশ্ব ইজতেমায়।

২০১১ সালের আগে প্রতি বছর এক ধাপে অনুষ্ঠিত হতো বিশ্ব ইজতেমা।

এবারে বিশ্ব ইজতেমায় প্রথম ধাপে ১৭টি জেলার মুসল্লিরা অংশ নেবেন। এবার ইজতেমায় অংশ নেওয়া জেলা ও তাদের খিত্তা নম্বর হলো- ঢাকা ১ থেকে ৬ নং খিত্তা, শেরপুর ৭ নং খিত্তা, নারায়নগঞ্জ ৮ ও ১১ নং খিত্তা, নীলফামারী ৯ নং খিত্তা, সিরাজগঞ্জ ১০ নং খিত্তা, নাটোর ১২ নং খিত্তা, গাইবান্ধা ১৩ নং খিত্তা, লক্ষ্মীপুর ১৪ ও ১৫ নং খিত্তা, সিলেট ১৬ ও ১৭ নং খিত্তা, চট্রগ্রাম ১৮ ও ১৯ নং খিত্তা, নড়াইল ২০ নং খিত্তা,  মাদারীপুর ২১ নং খিত্তা, ভোলা ২২ ও ২৩ নং খিত্তা, মাগুড়া ২৪ নং খিত্তা, পটুয়াখালী ২৫ নং খিত্তা, ঝালকাঠি ২৬ নং খিত্তা এবং পঞ্চগড় ২৭ নং খিত্তা।

দ্বিতীয় ধাপেই ইজতেমায় অংশ নেবেন ১৬ জেলার মুসল্লিরা। ওইসব জেলা ও খিত্তাগুলো হলো- ঢাকা ১ থেকে ৭ নং খিত্তা, ঝিনাইদহ ৮ নং খিত্তা, জামালপুর ৯ ও ১১ নং খিত্তা, ফরিদপুর ১০ নং খিত্তা, নেত্রকোনা ১২ ও ১৩ নং খিত্তা, নরসিংদী ১৪ ও ১৫ নং খিত্তা, কুমিল্লা ১৬ ও ১৮ নং খিত্তা, কুড়িগ্রাম ১৭ নং খিত্তা, রাজশাহী ১৯ ও ২০ নং খিত্তা, ফেনী ২১ নং খিত্তা, ঠাকুরগাঁও ২২ নং খিত্তা, সুনামগঞ্জ ২৩ নং খিত্তা, বগুড়া ২৪  ও ২৫ নং খিত্তা,  খুলনা ২৬ ও ২৭ নং খিত্তা, চুয়াডাঙ্গা ২৮ নং খিত্তা এবং পিরোজপুর ২৯ নং খিত্তা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৭ ঘন্টা, জানুয়ারি ০১, ২০১৬
এমএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।