ঢাকা, সোমবার, ৯ আশ্বিন ১৪৩০, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

ইসলাম

ইজতেমার অংশ নেওয়া দুই বিদেশির অভিমত

যারা দ্বীনের দাওয়াত পাচ্ছে, সাদরে গ্রহণ করছে

তানজিল আমির, ইজতেমার ময়দান, বিদেশি খিত্তা থেকে | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০১৬
যারা দ্বীনের দাওয়াত পাচ্ছে, সাদরে গ্রহণ করছে ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লাখো মুমিনের জনাস্রোতে টঙ্গির তুরাগ তীর এখন মুখরিত। বিশ্ব ইজতেমায় দেশি মুসল্লিদের পাশাপাশি বিদেশিরাও অংশগ্রহণ করেছেন প্রতিবারের মতো।

ইজতেমার মাঠের পশ্চিম পার্শ্বে বিদেশিদের জন্য নির্মিত আবাসন কানায় কানায় ভরে গেছে। পূর্ণ নিরাপত্তা রয়েছে বিদেশিদের জন্য।

ইজতেমার প্রথম পর্বে এখন পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজারের মতো বিদেশি মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। দ্বিতীয় পর্বে অারো ১০ হাজার মুসল্লি অাসার কথা জানিয়েছেন বিদেশি মেহমানখানার জিম্মাদাররা।

ইজতেমা মাঠের পশ্চিম পার্শ্বে কামারপাড়া ব্রিজঘেষে নির্মিত হয়েছে বিদেশিদের জন্য বিশেষ খিত্তা। বিভিন্ন দেশ ও ভাষাভিত্তিকভাবে সাজানো হয়েছে মেহমানখানাটি। রয়েছে তাদের সংস্কৃতি ও রুচি অনুযায়ী আলাদা আলাদা খাবারের ব্যবস্থা।

শতাধিক দেশের বিদেশিদের মাঝে অারবদের সংখ্যাই বেশি। তবে অামেরিকা, ইংল্যান্ড, ফ্রান্সসহ পশ্চিমা বিভিন্ন দেশ থেকেও এসেছেন প্রচুর মুসল্লি। বিদেশি মেহমানদের মাঝে উল্লেযোগ্য তরুণ রয়েছে।

অাজ বিকেলে ইজতেমার ময়দানে এসে যোগ দিয়েছেন লন্ডনের দুই তরুন মো. মোয়াজ ও উবাইদ‍। ইজতেমার নানা প্রসঙ্গ নিয়ে তাদের সঙ্গে কথা হয় ভার্সিটি পড়ুয়া এ দুজনের সঙ্গে।

কথা প্রসঙ্গে তারা পশ্চিমা সমাজের তরুণ প্রজন্মের বেসামাল অবস্থা ও গতি প্রকৃতি নিয়ে বেশ হতাশা প্রকাশ করলেন। সঙ্গে এও বললেন, ওই সমাজের তরুণ প্রজন্ম প্রাচুর্যের মাঝে বড় হলেও তাদের অন্তরে কোনো প্রশান্তি নেই। অজানা এক হতাশা তাদের মাঝে ভর করে আছে। ফলে যারাই দ্বীনের দাওয়াত পাচ্ছে, সাদরে গ্রহণ করছে। কারণ, অাত্মার প্রশান্তির জন্য শেষ নবী হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অাদর্শ গ্রহণের কোনো বিকল্প নেই।

তাদের জন্য করণীয় কী- এমন প্রশ্নের উত্তরে উবাইদ বলেন, আমি মনে করি; পশ্চিমা সমাজের তরুণ প্রজন্মের মাঝে দ্বীনের দাওয়াত অারো বেশি বেশি পৌঁছাতে হবে। সুন্দর ও সাবলীলভাবে তাদের কাছে ইসলামের নান্দনিক রূপকে তুলে ধরতে হবে। দেখুন, অামাদের লন্ডনে তাবলিগ জামায়াতের মেহনত তরুণদের মাঝে বেশ সাড়া জাগিয়েছে। আমার বিশ্বাস মুরুব্বিদের দেখানো পদ্ধতিতে ইসলামের দাওয়াত দিলে তা অবশ্য অবশ্যই সফল হবে।

ইতোমধ্যেই ভারত ও পাকিস্তান থেকেও এসেছে প্রচুর মুসল্লি। অন্যদিকে বিশ্ব ইজতেমায় এবার প্রথমবারের মতো অংশ নিয়েছে অাফগানিস্থানের মুসল্লিরা। এ ছাড়াও চায়না, রাশিয়া, তুরস্ক ও অাফ্রিকা থেকেও এসেছে অনেক মুসল্লি।



বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৯, ২০১৬
এমএ/

** দাওয়াতের কাজে কখনও শিথিলতা দেখানো যাবে না
** বিশ্ব ইজতেমায় শতাধিক দেশের ৮ হাজার মুসল্লি
** ইজতেমায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa