ঢাকা, রবিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২১ শাবান ১৪৪৫

আইন ও আদালত

কিশোরগঞ্জে হত্যা মামলায় তিনজনের ফাঁসি, একজনের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৩
কিশোরগঞ্জে হত্যা মামলায় তিনজনের ফাঁসি, একজনের যাবজ্জীবন

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য রফিকুল ইসলাম ওরফে রতন ভূঁইয়া হত্যা মামলায় তিনজনকে ফাঁসি ও একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেইসঙ্গে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামিকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. জান্নাতুল ফেরদৌস ইবনে হক এ রায় দেন।  

রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন-কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের মধ্য ভাট্টা গ্রামের মৃত সিন্দু ভূঁইয়ার ছেলে মো. ফোরকান ভূঁইয়া (৪৮), একই এলাকার জমশেদ ভূঁইয়ার ছেলে মো. শাহেদ ভূঁইয়া (৩৪) ও মো. এ্যাংগু ভূঁইয়া (৫৮)।  

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন-একই এলাকার জমশেদ ভূঁইয়ার ছেলে মো. মোস্তফা ভূঁইয়া (৪৬)।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ২০১৩ সালের ২৯ আগস্ট রাত ৯টার দিকে কটিয়াদী উপজেলার করগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য রফিকুল ইসলাম ওরফে রতন ভূঁইয়া ভাট্টা নতুন বাজার থেকে প্রতিবেশী লোকজনের সঙ্গে বাড়িতে ফিরছিলেন। পূর্ব শত্রুতার জেরে বাড়ির উত্তর পাশে কাঁচা রাস্তায় পৌঁছালে ফোরকান ভূঁইয়ার লোকজন দা, লাঠি, ছুরি, চাপাতি ও লোহার রড নিয়ে রফিকুলকে কুপিয়ে জখম করে। পরে তাকে উদ্ধার করে বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৫ সেপ্টেম্বর তার (রতন ভূঁইয়া) মৃত্যু হয়। নিহত রতন ভূঁইয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার সময় তার চাচতো ভাই আনার ভূঁইয়া ৩০ আগস্ট কটিয়াদী মডেল থানায় এ হামলার ঘটনায় একটি মামলা করেন। পরে রতন ভূঁইয়া মারা গেলে সেই মামলা হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়। মামলার তদন্ত শেষে কটিয়াদী মডেল থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাখাল দেবনাথ ২০১৪ সালের ৮ জানুয়ারি আদালতে আসামিদের নামে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন। রায় ঘোষণার আগে অভিযুক্ত জমশেদ ভূঁইয়া মৃত্যুবরণ করায় মামলা থেকে আগেই তাকে অব্যাহতি দেন আদালত। দীর্ঘ শুনানি শেষে মঙ্গলবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আদালতের বিচারক মো. জান্নাতুল ফেরদৌস ইবনে হক এ রায় দেন।  

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পারিচালনা করেন অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (ভারপ্রাপ্ত) জগেশ্বর রায় এবং আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আজিজুল হক মিন্টু।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০২৩
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।