ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ মাঘ ১৪২৯, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

প্রধানমন্ত্রীর কাছে কক্সবাজারবাসীর আরও ১১ দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০২২
প্রধানমন্ত্রীর কাছে কক্সবাজারবাসীর আরও ১১ দাবি ছবি: বাংলানিউজ

কক্সবাজার: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এবারের কক্সবাজার জনসভায় স্মরণকালের সর্ববৃহৎ জনসমাগম হবে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ। এ জনসভায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে নতুন করে আরও ১১টি দাবি উত্থাপন করা হবে কক্সবাজারবাসীর পক্ষ থেকে।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে কক্সবাজার শহীদ শেখ কামাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবির কথা জানানো হয়।

এই ১১টি দাবি হচ্ছে কক্সবাজার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল সংযুক্তিকরণ, কক্সবাজারের সঙ্গে মহেশখালী উপজেলার সংযোগ সেতু ও বাঁকখালী নদীর তলদেশ দিয়ে টানেল নির্মাণ, কুতুবদিয়া মগনামার মধ্যে ফেরি সার্ভিস চালুকরণ, কক্সবাজার পর্যটন গবেষণা ইনস্টিটিউট, চার লেনের মেরিন ড্রাইভ, ছয় লেনের কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়ক, কক্সবাজার সিটি কর্পোরেশন, কক্সবাজার সিটি কলেজকে সরকারিকরণ, চকরিয়া উপজেলা থেকে মাতামুহুরীকে পৃথক করে উপজেলা ঘোষণা, ঝিনুক ব্যবসায় সাথে জড়িত উচ্ছেদকৃত ব্যবসায়ীদের পুনর্বাসন ও স্থায়ী আধুনিক ঝিনুক মার্কেট নির্মাণ।

আওয়ামী লীগের মতে, প্রধানমন্ত্রী গত ২০১৭ সালের ৬ মে সর্বশেষ কক্সবাজার এসে কক্সবাজারকে প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছিলেন। ঘোষণার আলোকে কক্সবাজারে চলছে প্রায় ৩ লাখ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প। যার সুফল পাবেন কক্সবাজারসহ দেশবাসী।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, এবার প্রধানমন্ত্রীর জনসভাটি কক্সবাজারবাসী কৃতজ্ঞতা প্রকাশের মাধ্যম হিসেবে নিয়েছে। কেবল স্টেডিয়াম না পুরো কক্সবাজার শহর জনসমুদ্রে পরিণত হবে। এর জন্য সকল প্রস্তুতি শেষ হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা বলেন, জনসভাস্থলে সকাল থেকেই হারিয়ে যাওয়া স্থানীয় সংস্কৃতি তুলে ধরা হবে, এছাড়া নৃগোষ্ঠী সংস্কৃতিও তুলে ধরা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব শাখাওয়াত মুন ও হাসান জাহিদ তুষার, আওয়ামী লীগের জেলা সভাপতি ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, সংসদ সদস্য যথাক্রমে সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক ও জাফর আলম সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৫, ২০২২
এসবি/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa