ঢাকা, বুধবার, ১২ আশ্বিন ১৪৩০, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

রানা প্লাজায় ‘নিখোঁজ’ শ্যামলীর ছবি ব্যবহার করে প্রতারণার অভিযোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১১ ঘণ্টা, জুন ৪, ২০২৩
রানা প্লাজায় ‘নিখোঁজ’ শ্যামলীর ছবি ব্যবহার করে প্রতারণার অভিযোগ

ঢাকা: রানা প্লাজা ধ্বসে ‘নিখোঁজ’ শ্যামলীসহ একাধিক ক্ষতিগ্রস্তদের নাম ও ছবি ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের কয়েকটি দেশে চ্যারিটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করা হয়েছে। তবে সেসব অর্থ আহত শ্রমিকদের না দিয়ে আয়োজক সংগঠনগুলো আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন মানবাধিকার সংগঠন লাভদেশ–এর সিইও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক ইয়াসমিন চৌধুরী হ্যাপী।

 

রোববার (৪ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ করেন মানবাধিকার সংগঠন লাভদেশ-এর সিইও ইয়াসমিন চৌধুরী হ্যাপী।

এসব অর্থ ফেরত দিতে আওয়াজ ফাউন্ডেশন, ফ্যাশন রেভোলেশন-ইউকে এবং ফেয়ার ওয়ার ফাউন্ডেশন নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি।  

সংবাদ সম্মেলনে ইয়াসমিন চৌধুরী হ্যাপী বলেন, অভিযুক্ত তিনটি সংস্থা রানা প্লাজায় আহত মরিয়ম আক্তার, ‌‘নিখোঁজ’ শ্যামলীসহ কয়েকজন ক্ষতিগ্রস্তের ছবি ব্যবহার করে প্রায় ২৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। লন্ডনে কয়েকটি চ্যারিটি প্রোগ্রামের মাধ্যমে আওয়াজ ফাউন্ডেশনের বাংলাদেশ প্রতিনিধি নাজমা আক্তার, ফ্যাশন রেভোলেশন বাংলাদেশ অ্যান্ড ইউকের কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর মাছরুর রহমান ও ফেয়ার ওয়ার ফাউন্ডেশন নেদারল্যান্ডের কান্ট্রি ম্যানেজার বাবলুর রহমান সুইজারল্যান্ডের লাউডিস ফাউন্ডেশনের লেসলে জন্সটন এবং আমেরিকান সংস্থা রেড কার্পেট গ্রিন ড্রেসের কাছ থেকে এসব অর্থ সংগ্রহ করে।

তিনি আরো বলেন, এ সংস্থা তিনটি রানা প্লাজায় আহত শ্রমিকদের নাম ও ছবি ব্যবহার করে বিদেশ থেকে ফান্ড রেইজিং করেছে। কিন্তু শ্রমিকদের কোনো আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেনি। প্রায় ৩০টি প্রতিষ্ঠান রানা প্লাজার শ্রমিকদের নামে টাকা তুলছে। এরা একটা চক্রের মতো কাজ করছে। দেশে যাদের বিরুদ্ধে শক্ত প্রমাণ আছে, যাদের অফিস আছে। আমি তাদের বিরুদ্ধে গত ১৫ মে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাও করেছি। পাশাপাশি লন্ডনেও এদের সঙ্গে জড়িতদের নামে মামলা করবো।

এই মামলার সাক্ষী ও রানা প্লাজায় ক্ষতিগ্রস্তদের নানাভাবে হুমকি ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে অভিযোগ করে রানা প্লাজা সার্ভাইভার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মাহমুদুল হাসান হৃদয় বলেন, আমাদের ছবি ব্যবহার করে বিভিন্ন এনজিও বিদেশে থেকে টাকা তুলছে। তাই তাদের বিরুদ্ধে আমরা সবাই মিলে মামলা করলাম। এরপর আওয়াজ ফাউন্ডেশনের লোকজন আমার ওপর হামলা চালিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করে।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- রানা প্লাজা ধ্বসে আহত শ্রমিক মাসুদা, মরিয়ম আক্তার, ইয়ানুর বেগম, আইনজীবী সুপ্রীম কোর্টের অ্যাড. মোহাম্মদ জাকারিয়া ও আইনজীবী অ্যাড. মার্জিনা আমিন চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১১ ঘণ্টা, জুন ০৪, ২০২৩
এসসি/ এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa