ঢাকা, সোমবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

পেঁয়াজ ক্ষেতে খাল খনন করে মাটি বিক্রি করল ইউপি সদস্য

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
পেঁয়াজ ক্ষেতে খাল খনন করে মাটি বিক্রি করল ইউপি সদস্য

ফরিদপুর: ফরিদপুরের সালথায় পেঁয়াজ ক্ষেতের ভেতর দিয়ে খাল খনন করে মাটি বিক্রির অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী এক ইউপি সদস্যে (মেম্বার) মো. ফরিদ হোসেনের বিরুদ্ধে। কয়েক বিঘা জমির পেঁয়াজের চারা নষ্ট করে ও একটি মেহগনির বাগানের ভেতর দিয়ে প্রায় দেড় কিলোমিটার খাল খনন করা হয়েছে।

এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বেশ কয়েকজন কৃষক।

উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়নের খারদিয়া ছয়আনি গ্রামের আশ্রয়ণ প্রকল্পের সামনে কয়েক বিঘা জমির পেঁয়াজের চারা নষ্ট করে ও একটি মেহগনি বাগানের ভেতর দিয়ে প্রায় দেড় কিলোমিটার এই খাল খনন করা হয়েছে। ফলে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বেশ কয়েকজন কৃষক।

অভিযুক্ত ফরিদ হোসেন উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।  

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, খারদিয়া ছয়আনি আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে বলতলা এলাকা পর্যন্ত পেঁয়াজ ক্ষেত ও একটি মেহগনি ভেতর দিয়ে ভেকু মেশিন (খননযন্ত্র) দ্বারা একটি খাল খনন করা হয়েছে। ভেকুর তাণ্ডবে নষ্ট হয়েছে কয়েক বিঘা জমির পেঁয়াজের তাজা চারা। উপড়ে ফেলা হয়েছে একটি বাগানের কয়েকটি মেহগনির গাছ। পাশেই কৃষিজমিতে খনন করা হয়েছে আরেকটি পুকুর।

স্থানীয় কৃষকেরা জানান, খাল খননের মাটি অবৈধ ট্রলি গাড়িতে করে নেওয়া-আনা করায় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত স্থানীয় পাকা সড়কগুলোও নষ্ট হয়েছে। ফসলসহ পাকা সড়কের ব্যাপক ক্ষতি হলেও স্থানীয়ভাবে ওই ইউপি সদস্য প্রভাবশালী হওয়ায় তার ভয়ে কেউ মুখ খুলেনি।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে ইউপি মেম্বার মো. ফরিদ হোসেনের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার ফোন বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।  

তবে কয়েকদিন আগে একটি সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছিলেন, এ খালটি সম্পন্ন ব্যক্তিমালিকানাধীন জমির ওপর দিয়ে কাটা হচ্ছে। স্থানীয় কৃষকদের জমির জলাবদ্ধতা নিরসন ও জনস্বার্থে কৃষকদের দাবির প্রেক্ষিতে এ খালটি কাটা হচ্ছে বরে জানান।

যদুনন্দী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, এই খাল কাটার ব্যাপারে আমি কিছু জানি না। কোনো প্রকল্পের মাধ্যমে খাল কাটা হচ্ছে না। তবে শুনেছি খাল কেটে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে।    

এ ব্যাপারে সালথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আনিছুর রহমান বালী বাংলানিউজকে বলেন, ওই এলাকার কৃষকদের জমির জলাবদ্ধতা নিরসনে তাদের ব্যক্তিমালিকানা জমির ওপর দিয়ে খালকাটা হচ্ছে। তবে জোরপূর্বক কোনো কৃষকের জমির ওপর দিয়ে খাল কাটা হচ্ছে এরকম কারো পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।