ঢাকা, বুধবার, ৩ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

সংস্কৃতির মধ্য দিয়ে আমাদের বেঁচে থাকতে হবে: নৌ-প্রতিমন্ত্রী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৪৭ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২৪
সংস্কৃতির মধ্য দিয়ে আমাদের বেঁচে থাকতে হবে: নৌ-প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা: আমাদের সমৃদ্ধ সংস্কৃতি রয়েছে সেই সংস্কৃতির মধ্য দিয়ে আমাদের বেঁচে থাকতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (১ মার্চ) নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী রাজধানীর ইস্কাটনস্থ সুইড বাংলাদেশ মিলনায়তনে ‘ভাওয়াইয়া সংরক্ষণ ও গবেষণা পরিষদ’ আয়োজিত ‘ভালোবাসি ভাওয়াইয়া গান’ শীর্ষক সঙ্গীত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি৷

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ভাওয়াইয়া গানের অন্যতম ছন্দ হাঁকাও গাড়ি এবং গাড়িয়াল ভাই।

আগামী প্রজন্ম এসব গাড়ি বা গাড়িয়াল ভাইকে চিনতে পারবে না।  ভাওয়াইয়া গানের বৃহৎ অংশ কুড়িগ্রাম অঞ্চলের হলেও বর্তমানে কুড়িগ্রামের ঐতিহ্য প্রকৃতি, নদী-নালা সেগুলো হারিয়ে যাচ্ছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। পৃথিবীর সঙ্গে পুরোপুরি যুক্ত হয়ে গেছে। এখানকার বড় বড় নদী শুকিয়ে যাচ্ছে। মনের মধ্যে প্রেম আসছে না, ভাব আসছে না। ভাওয়াইয়া গানকে ধরে রাখতে হবে। এটা আমাদের সংস্কৃতির একটি পরিচয়। এই পরিচয় থেকে সরে যাওয়া যাবে না।  

তিনি বলেন, অনেক চ্যালেঞ্জ আছে। পরিচয় ধরে রাখার জন্য এত কষ্ট করার কথা না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংস্কৃতি বান্ধব। আমাদের সমৃদ্ধ সংস্কৃতি রয়েছে। সংস্কৃতির মধ্য দিয়ে আমাদের বেঁচে থাকতে হবে। আমাদের দেশে অবকাঠামোর অনেক উন্নয়ন হয়েছে। এবার মানুষ কাঠামোর উন্নয়ন দরকার। মানুষের কাঠামো উন্নয়নের জন্য সংস্কৃতির কোনো বিকল্প নেই।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের মানব কাঠামোর উন্নয়নের জন্য সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চা খুবই জরুরি। বঙ্গবন্ধুর পরিবার একটি সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়াবান্ধব পরিবার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সংস্কৃতি বিকাশের লক্ষ্যে জেলায় জেলায় শিল্পকলা একাডেমি করেছে। উপজেলা পর্যায়ে শিল্পকলা একাডেমির অবকাঠামো নির্মিত হচ্ছে।

এ অনুষ্ঠানে ভাওয়াইয়া গানের অন্যতম প্রাণপুরুষ বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়কে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়।

সুইড বাংলাদেশের মেন্টর জওয়াহেরুল ইসলাম মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকার, ভূমি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. কফিলউদ্দিন,  ভাওয়াইয়া সংরক্ষণ ও গবেষণা পরিষদের সভাপতি এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক বকুল চন্দ্র মহন্ত এবং সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. এজানুর রহমান।

অনুষ্ঠানে বেলি রোডে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২২৪৭ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০২৪
এসকে/এমএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।