ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

৫৬ টাকায় চাকরি পেলেন ৩০ তরুণ-তরুণী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৫৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২১
৫৬ টাকায় চাকরি পেলেন ৩০ তরুণ-তরুণী

নোয়াখালী: শুক্রবার নিয়োগ পরীক্ষা দিয়ে রোববার মধ্যে চাকরির সুখবর পেলেন নোয়াখালীর ৩০ জন তরুণ-তরুণী। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে এক অনন্য নজির সৃষ্টি করেছে নোয়াখালী জেলা প্রশাসন ও জেলা প্রশাসক মো. খোরশেদ আলম খান।

মাত্র ৫৬ টাকার ব্যাংক ড্রাফটে ও ঘুষ ছাড়াই চাকরি পেয়ে আবেগ-আপ্লুত হয়ে পড়েন ৩০ তরুণ-তরুণী। আর এমন চাকরি দিয়ে ধারণা পাল্টে দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের কক্ষে ৩০ তরুণ-তরুণীর হাতে ফুল ও নিয়োগপত্র তুলে দেন জেলা প্রশাসক।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের আওতায় ৩০টি ৪র্থ শ্রেণির শূন্য পদে নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৬ হাজার ৫০০ জন আবেদনকারী। এর মধ্যে অফিস সহায়ক ৫ জন, নিরাপত্তা প্রহরী ১০ জন, মালি ২ জন, পরিচ্ছন্নতা কর্মী ৯ জন, বেয়ারার ৩ জন ও সহকারী বাবুর্চি পদে ১ জন রয়েছেন।

চাকরি পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে অফিস সহায়ক পদে নিয়োগপ্রাপ্ত সুমাইয়া আক্তার জানান, সদর উপজেলার লক্ষ্মীনারায়পুর গ্রামে তার বাড়ি। মাত্র ৫৬ টাকা খরচে চাকরি পাবে স্বপ্নেও ভাবেনি সে। যেহেতু ঘুষ ছাড়া চাকরি পেয়েছে তাই আজীবন ঘুষ ছাড়া মানুষকে সেবা দেওয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

সহকারী বাবুর্চি পদে নিয়োগ প্রাপ্ত আবদুর রহিম জানান, শুনেছি সরকারি চাকরি মানে ঘুষের ছড়াছড়ি। কিন্তু এই পদে চাকরির জন্য কাউকে একটাও ঘুষ দেওয়া দিতে হয়নি।

অফিস সহায়ক পদে নিয়োগপ্রাপ্ত শারীরিক প্রতিবন্ধী আশরাফুল করিম জানান, শারীরিক সীমাবদ্ধতা থাকায় অনেক জায়গায় লাঞ্ছিত হয়েছি। মাত্র ৩ দিন আগে পরীক্ষা নিয়ে এত দ্রুত সময়ের মধ্যে সরকারি চাকরি পাবো তা স্বপ্নেও ভাবিনি।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান জানান, ৩০ পদের জন্য সাড়ে ছয় হাজার আবেদন জমা পড়েছে। আমরা ২৬ নভেম্বর লিখিত পরীক্ষা, ২৭ নভেম্বর মৌখিক পরীক্ষা এবং ২৯ নভেম্বর নিয়োগপত্র তুলে দিলাম। যোগ্যতা ও দক্ষতার বিচারে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যেহেতু তারা বিনা টাকায় নিয়োগ পেয়েছে তারা যেনো বিনা টাকায় মানুষের সেবা করে।

ডিসি আরও জানান, যারা আজকে নিয়োগ পেয়েছেন তাদের দেশের জন্য অনেক কিছু করার আছে। নিষ্ঠার সঙ্গে নিজের ওপর অর্পিত দায়িত্বটুকু পালন করলে দেশ দুর্নীতি মুক্ত হবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইসরাত সাদমীনের সঞ্চালনয়া অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তারিকুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. রবিউল হাসান, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ আবু ইউসুফ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. নাজিমুল হায়দার, সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারহানা জাহান উপমা সহ জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৪৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২১
এনএইচআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa