ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৫ জিলহজ ১৪৪৩

জাতীয়

টিকটক করতে গিয়ে নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৯ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২২
টিকটক করতে গিয়ে নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু!

নীলফামারী: নীলফামারীর সৈয়দপুরে টিকটক করতে গিয়ে নদীতে ডুবে মোস্তাকিন (১৬) নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।  

শুক্রবার (২০ মে) সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের খড়খড়িয়া নদীর দীঘলডাঙ্গী ব্রিজে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের চাচা মো. মোখলেছুর রহমান জানান, উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের খোর্দ্দ বোতলাগাড়ী গ্রামের মন্টু রহমান ও আহেলা খাতুন দম্পতির ছেলে মোস্তাকিন। সে সৈয়দপুর শহরের অদূরে ঢেলাপীরে একটি সাবান কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতো। ঘটনার দিন কারখানা ছুটি থাকায় সে তার কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে বাড়ির পাশের খড়খড়িয়া নদীর দীঘলডাঙ্গী ব্রিজে যায়। এ সময় টিকটক তৈরির জন্য নদীর ব্রিজের ওপর থেকে পানিতে লাফ দেয় মোস্তাকিন। সে ‍দৃশ্য বন্ধুরা তার মোবাইল ফোন থেকে ভিডিও করছিল। লাফ দেওয়ার পরে পানিতে ডুবে নিখোঁজ সে।  

পরে খবর পেয়ে সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ছুটে এসে তাকে উদ্ধারে নদীতে নামেন। এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় প্রায় দেড় ঘণ্টা পর  ঘটনাস্থল থেকে ৫০ গজ দূর থেকে মোস্তাকিনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করেন। পরে তাকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে সৈয়দপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. তারেক রহমান হাসপাতালে গিয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন। পরে আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল হাসানাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা হয়েছে। সামাজিক অবক্ষয় রোধে বাংলাদেশে টিকটক, লাইকির মতো অপসংস্কৃতি বন্ধে সবার এগিয়ে আসা প্রয়োজন।  

তিনি বলেন, এই প্রজন্মের জন্য সুন্দর, সাবলীল বিনোদনের ব্যবস্থা করে খেলাধুলাসহ বিভিন্ন ধরনের প্রতিযোগিতামূলক কার্যকলাপে অংশগ্রহণের ব্যবস্থা করতে হবে আমাদের। সামাজিকভাবে অভিভাবক ও সমাজের সবাই এগিয়ে এলেই আগামী প্রজন্মকে সঠিক পথে পরিচালিত করা সম্ভব হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৬ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa