ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

স্পিকারের সঙ্গে হেকস/ইপার কান্ট্রি ডিরেক্টরের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৭ ঘণ্টা, জুলাই ৩, ২০২২
স্পিকারের সঙ্গে হেকস/ইপার কান্ট্রি ডিরেক্টরের সৌজন্য সাক্ষাৎ

ঢাকা:  জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সামাজিক উন্নয়ন সংস্থা হেকস/ইপার বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ডোরা চৌধুরী সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

রোববার (৩ জুলাই) বিকেলে সংসদ ভবনে স্পিকারের কার্যালয়ে এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয় ৷

সাক্ষাৎকালে তারা বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন, কোভিডকালীন বাংলাদেশের মানুষের খাদ্য ও জীবনমানের নিরাপত্তার সুব্যবস্থা, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির সফল বাস্তবায়ন, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, হিজড়া, পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে বহুমুখী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। গভীর নলকূপের মাধ্যমে পানি সরবরাহ, স্যানিটেশন উন্নয়ন, আদিবাসী মেয়েদের বাইসাইকেল সরবরাহ ইত্যাদি কার্যক্রমের মাধ্যমে তাদের মূল স্রোতে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে রংপুরের পীরগঞ্জসহ দেশব্যাপী কার্যক্রম চলমান। প্রধানমন্ত্রীর বিচক্ষণ পদক্ষেপের কারণে করোনা মহামারিকালীন সবার খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে।

বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নের প্রশংসা করে ডোরা চৌধুরী বলেন, ২০০৬ সাল থেকে রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ, রংপুর, দিনাজপুর প্রভৃতি অঞ্চলে তৃণমূলের সুবিধাবঞ্চিত মানুষকে মূল স্রোতে আনতে হেকস/ইপার কাজ করছে। বর্তমান সরকার আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে ভূমিহীন-গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এসময় তিনি আশ্রয়ণ প্রকল্পে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীকে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়টি বিবেচনার অনুরোধ করেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সামাজিক উন্নয়নে সরকার নিরাপত্তামূলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। ইউনিয়ন-উপজেলা-জেলা পর্যায়ে সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্তরা এ সব কার্যক্রম বাস্তবায়নে কাজ করছেন। সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নের কারণে সামাজিক বৈষম্য বিলুপ্ত হচ্ছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রশিক্ষণ দেওয়ার মাধ্যমে নারীসহ অন্যান্যদের দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৫ ঘন্টা, জুলাই ০৩, ২০২২
এসকে/এসএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa