ঢাকা, সোমবার, ২ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

অন্যান্য দল

‘একলা চল’ নীতি আত্মঘাতী হবে: মেনন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০১৮
‘একলা চল’ নীতি আত্মঘাতী হবে: মেনন ওয়ার্কার্স পার্টি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। ছবি: সুমন শেখ

ঢাকা: আগামী জাতীয় নির্বাচন কোনো দলের ‘একলা চল’ নীতিতে চলে তা ১৪ দলের মহাজোটের জন্য আত্মঘাতী হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

** মন্ত্রণালয়ের অর্জন বিমানে শেষ: মেনন 

মেনন বলেন, ২০০৮ সালের নির্বাচনে ১৪ দল ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিজয় লাভ করেছে।

এর পর থেকে দেশে ধারাবাহিকভাবে উন্নয়ন হয়েছে। তবে উন্নয়নে কিছুটা ত্রুটি-বিচ্যুতিও হয়েছে। এর ফলে উন্নয়ন কিছুটা ম্লান হয়েছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে জনগণের অংশীদারিত্ব আরও বাড়াতে হবে।

আগামী জাতীয় নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, এ বছর নির্বাচনের বছর। তাই আমাদের সবাইকে বছরের শুরু থেকেই নির্বাচনী প্রচারণায় নামতে হবে। দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিতা ও মুক্ত গণতন্ত্র বজায় রাখতে হলে ১৪ দলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগোতে হবে। কোনো দল যদি ‘একলা চল’ নীতিতে চলতে চায় তাহলে এটি আত্মঘাতী হবে।

রাশেদ খান মেনন আরও বলেন, নির্বাচন যেন তড়িঘড়ি করে অনুষ্ঠিত না হয়। সবাই যেন নির্বাচনী প্রস্তুতির সুযোগ পায়। এছাড়া নির্বাচনে ১৪ দলের ঐক্যে বজায় রেখে চলতে হবে।

১৪ দলে মধ্যে কোনো অনৈক্যের সুর আছে কিনা জানতে চাইলে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী বলেন, আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে আছি, আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে থাকতে চাই। কেননা ১৪ দলেন ঐক্য হলো প্রধান শক্তি। আমরা বাংলাদেশের ইতিহাস দেখলেও বুঝতে পারবো, এই দেশের স্বাধীনতা থেকে শুরু করে সব কিছুই হয়েছে ঐক্যের মাধ্যমে। তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়েই থাকতে হবে।

তাহলে কেন ‘একলা চল’ নীতির কথা বলেছেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি বলেন, এটা বিশেষ কোনো দলকে ইঙ্গিত করে নয়। আমাদের সবার মধ্যে যেন আগামী নির্বাচনকে ঘিরে ঐক্য থাকে সেই বিষয়ে বলা।

১৪ দলের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দিয়েছে শুনা যাচ্ছে এমন প্রশ্নের মেনন বলেন, নির্বাচন আসলে বহুমুখী ধারা-উপধারার সৃষ্টি হয়। সিটি বণ্টনসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা বা মতবিরোধ থাকতে পারে। তবে আশা করি শেষ পর্যন্ত ঐক্যবদ্ধ হয়েই আমরা মাঠে নামবো।

মন্ত্রণালয় রদবদলের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, নির্বাচন যখন আসে তখন নানা ইকুয়েশন তৈরি হয়। ভারতেও এমনটা হয়। এটা নতুন কিছু নয়। আমি মনে করি এটা একটি রাজনৈতিক পক্রিয়া মাত্র।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পাটির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা ও দলটির কয়েকজন পলিটব্যুরোর (নীতি নির্ধারণী কমিটি) সদস্যরা।

বাংলাদেশ সময়: ১২১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০১৮/আপডেট সময়: ১২৪০ ঘণ্টা
এমএসি/জিপি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অন্যান্য দল এর সর্বশেষ