ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৫ জিলহজ ১৪৪৩

অন্যান্য দল

দুর্নীতি-লুণ্ঠনই জনগণের দুরাবস্থার কারণ: সাকি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২২, ২০১৮
দুর্নীতি-লুণ্ঠনই জনগণের দুরাবস্থার কারণ: সাকি কোদাল প্রতীকের প্রার্থী জোনায়েদ সাকির প্রচার মিছিল

ঢাকা: দুর্নীতি-লুণ্ঠনই বাংলাদেশের জনগণের দুরাবস্থার কারণ বলে উল্লেখ করেছেন ঢাকা-১২ আসনে কোদাল প্রতীকের প্রার্থী জোনায়েদ সাকি। দুর্নীতি-লুণ্ঠন বন্ধ করে শিল্পের বিকাশ ও শ্রমজীবী মানুষের জন্য নিরাপদ খাদ্য, আবাসন ও হয়রানিমুক্ত পরিবেশ গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় ঢাকা-১২ সংসদীয় আসনের ২৪ নং ওয়ার্ডে গণসংযোগের সময় এসব প্রতিশ্রুতি দেন গণতান্ত্রিক বামজোট সমর্থিত প্রার্থী জোনায়েদ সাকি।  

গণসংহতি আন্দোলনের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ও দলটির প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকির ফেসবুক আইডি ‘ডিজিটাল দুর্বৃত্তরা’ হ্যাক করা হয়েছে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে জোনায়েদ সাকি বলেন, সরকার নিরাপত্তার নাম করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করলেও জনগণের নিরাপত্তা না দিয়ে তা জনগণের কণ্ঠরোধের কাজে লাগানো হচ্ছে।

বিষয়টি নিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে এই সাইবার অপরাধের জন্য দায়ী অপরাধীদের চিহ্নিত ও অবিলম্বে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার অনুরোধ করেন জানান সাকি। তিনি বলেন, আমরা আশঙ্কা করছি, নিয়ন্ত্রণগ্রহীতা হ্যাকার এই সুযোগ গ্রহণ করে যেকোন অপতৎপরতায় লিপ্ত হতে পারে। ফলে দ্রুততার সাথে পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি।

নির্বাচনী প্রচারণায় জোনায়েদ সাকি বলেন, দুর্নীতি-লুণ্ঠনই বাংলাদেশের শিল্প বিকাশ ও জনগণের দুরাবস্থার কারণ। সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে তিনি শিল্পের বিকাশ এবং শ্রমিকস্বার্থ সংরক্ষণে সচেষ্ট খাকবেন। এলাকার শ্রমজীবী মানুষের জন্য স্বাস্থ্যকর খাদ্য, আবাসন ও হয়রানিমুক্ত কাজের পরিবেশ গড়ে তোলায় বিশেষ উদ্যোগ নেবেন।

তিনি আরো বলেন, সবার জন্য সমান সুযোগ অনেক পরের কথা, এখনও নির্বাচনের পরিবেশ আদৌ সৃষ্টি হয়েছে তা বলা যাবে না। তবে আমরা বিশ্বাস করি যে, জনগণই নির্ধারক শক্তি। তাই হামলা-মামলা, ভয়-ভীতি উপেক্ষা করে জনগণকে সজাগ ও সক্রিয় এবং ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে, নিজের ভোটাধিকার রক্ষায় সচেষ্ট থাকতে হবে।  

সরকারের পক্ষ থেকে নানা গুজব ছড়ানোর সংবাদ প্রকাশিত হবার খবরের উল্লেখ করে জোনায়েদ সাকি বলেন, অথচ আমাদের নির্বাচন কমিশন বিশেষ সেল গঠন করেও এসব গুজবের সন্ধান পায়নি। তারা বরং সরকারের বিরুদ্ধে যায় এমন সত্য ঘটনাকে গুজব বলে চিহ্নিত করে ভিন্নমত দমনে কাজে লাগাচ্ছে।  

গণসংযোগকালে জোনায়েদ সাকির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা দেওয়ান আবদুর রশীদ নীলু, বাচ্চু ভূইয়া, দীপক রায়, বেলায়েত হোসেন, মুসা কলিমুল্লাহ এবং ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

এ সময় প্রার্থীর নির্বাচনী প্রতীক কোদাল, কোদালের ছবি, ফেস্টুন, প্লাকার্ড ও প্রচারপত্র এবং মাইক সহযোগে বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী ও স্থানীয় বাসিন্দারা প্রচার মিছিলে অংশ নেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২১, ২০১৮
এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অন্যান্য দল এর সর্বশেষ

Alexa