ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

টিকা নিয়ে নৈরাজ্য চলছে: ফখরুল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২৪ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২১
টিকা নিয়ে নৈরাজ্য চলছে: ফখরুল কথা বলছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ঢাকা: করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদানে সরকারের ব্যবস্থাপনায় নৈরাজ্য চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) সকালে এক অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব এই অভিযোগ করেন।



তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় এই সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। যেটাকে বলা যায়, করোনা মোকাবিলায়-টোট্যাল ম্যানেজমেন্ট ফেইলিউর। এর ফলে আজকে টিকা প্রদানে ম্যানেজমেন্টের প্রচণ্ড রকমের যে নৈরাজ্য সৃষ্টি হয়েছে, সেই নৈরাজ্যের কারণে গোটা জনজীবন বিপন্ন হয়ে পড়েছে। আমরা পত্র-পত্রিকায় তা দেখতে পারছি।

আমরা আবারও সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, অবিলম্বে টিকা সংগ্রহ করে এই করোনা মোকাবিলার জন্য একটি রোডম্যাপ ঘোষণা করে সত্যিকার অর্থেই জনগণের জন্য কাজ করুন।

‘কঠোর বিধি-নিষেধ’ (লকডাউন) তুলে নেওয়ার পর সংক্রমণ কমছে না, লকডাউন তুলে নেওয়া ঠিক হয়েছে কিনা প্রশ্ন করা হলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমি প্রথম থেকে বলছি যে, আসলে করোনা মোকাবিলায় সরকারের টোট্যাল ম্যানেজমেন্ট ব্যর্থ হয়েছে। দিজ গর্ভামেন্ট হেজ ফেইল্ড টোট্যালি টু ম্যানেজ করোনা।

অপরিকল্পিত লকডাউন, অপরিকল্পিত টিকা ব্যবস্থা, অপরিকল্পিত মানুষের জীবন ব্যবস্থা করা সব মিলিয়ে এই সরকারের আর এক মুহূর্ত ক্ষমতা থাকা উচিত নয়। দে সুড বি রিজাইন ইমিডেইটলি।

আরাফাত রহমান কোকোর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে ক্রীড়া সংগঠন এবং ক্রিকেটের উন্নয়নের তার একনিষ্ঠ ভূমিকার কথা স্মরণ করেন বিএনপি মহাসচিব।

জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর ৫২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এদিন সকাল ১১টায় বিএনপি মহাসচিব নেতাকর্মীদের নিয়ে বনানী কবরাস্থানে তার কবরে ফাতেহা পাঠ ও পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।

এ সময় দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হক, দক্ষিণের রফিকুল আলম মজনু, যুব দলের সাইফুল আলম নীবর, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, মোরতাজুল করীম বাদরু, মামুন হাসান, এসএম জাহাঙ্গীর, স্বেচ্ছাসেবক দলের মোস্তাফিজুর রহমান, আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল, ছাত্র দলের ফজলুল রহমান খোকনসহ অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি ৪৫ বছর বয়সে মালয়েশিয়ায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন কোকো। পরে ২৮ জানুয়ারি তার মরদেহ দেশে এনে বনানী কবরাস্থানে দাফন করা হয়।

কোকোর আত্মার মাগফেরাত কামনায় আজ দুপুরে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও বিকেলে চেয়ারপারসনের গুলশানের কার্যালয়ে মিলাদ মাহফিলের কর্মসূচির আয়োজন করেছে বিএনপির।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২১
এমএইচ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa