ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

পোলিং অফিসারকে থাপ্পড়, আ.লীগ নেতা কারাগারে 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপনডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২১
পোলিং অফিসারকে থাপ্পড়, আ.লীগ নেতা কারাগারে 

জামালপুর: জামালপুর মেলান্দহের নয়ানগর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে পোলিং অফিসারকে থাপ্পড় মারার দায়ে আওয়ামী লীগ নেতা শফিকুল ইসলামকে (৪৫) ১ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।  

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) স্থগিত বুরুঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ঘটনাটি ঘটে।

শফিকুল ইসলাম নয়ানগর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। তিনি বজরদ্দিপাড়ার আবুল হোসেন মাস্টারের ছেলে।  

প্রিসাইডিং অফিসার জাকির হোসেন বলেন, নির্বাচন শুরুর এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর হাতপাখা মার্কার এজেন্ট শফিকুল ইসলাম প্রকাশ্যে ভোটারদের নৌকায় সিল মারার তৎপরতার অংশ হিসেবে নির্বাচনী কাজে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন। একপর্যায়ে পোলিং এজেন্ট মনোয়ার হোসেনের গায়ে হাত তোলেন। এ ঘটনায় তাকে আটক করার পর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোকনুজ্জামান ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এক মাসের কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করে জেল হাজতে পাঠান।

ইসলামী আন্দোলন মনোনিত হাতপাখা মার্কার প্রার্থী মুফতি রহমতুল্লাহ আল হোসাইনী বলেন, নৌকা মার্কার প্রার্থী শাহাবুদ্দিন আমাকে পরিস্থিতি শিকারে বাধ্য করে এজেন্টের কাগজে স্বাক্ষর নেন। কাকে, কীভাবে এজেন্ট দিয়েছেন জানি না। আমি কোনো এজেন্ট দেইনি।

মেলান্দহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত বলেন, আমি জানি শফিকুল নৌকার এজেন্ট হয়ে কেন্দ্রে যান। হাতপাখার এজেন্ট হওয়ার বিষয়টি আমার জানা নেই।

এদিকে, ৭নং চরবানিপাকুরিয়া ইউনিয়নের স্থগিত ভোটকেন্দ্র মধ্যেরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জাল ভোট প্রদানকালে মমিনুল ইসলাম (২৫) এবং রাকিবুল ইসলামকে (২৬) আটক করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপমা ফারিসা ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাদের কাছ থেকে মোট ৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২১
জেএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।