ঢাকা, বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

আ. লীগ সন্ত্রাসী দল, ছাত্রলীগ পেটোয়াবাহিনী: ফখরুল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
আ. লীগ সন্ত্রাসী দল, ছাত্রলীগ পেটোয়াবাহিনী: ফখরুল মুন্সীগঞ্জে আহত জাহাঙ্গীরকে দেখতে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে যান মির্জা ফখরুল

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের হামলায় আহত ছাত্রদল নেতাদের হাসপাতালে দেখতে গিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই হামলার মধ্যে দিয়ে আবারও প্রমাণিত হয়েছে যে, আওয়ামী লীগ একটি সন্ত্রাসী দল আর ছাত্রলীগ হলো তাদের পেটোয়াবাহিনী। সন্ত্রাস করেই তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কাকরাইলে ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছাত্রদল নেতাদের দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, গতকাল ঢাবি ছাত্রদলের নেতারা ভাইস চ্যান্সেলরের দেওয়া নির্ধারিত সময়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। নেতারা ফুলের তোড়া নিয়ে দেখা করতে যাচ্ছিলেন। ঢাবি ক্যাম্পাসে প্রবেশের স্থানে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা আক্রমণ করে। তাদের অমানবিকভাবে বর্বরোচিত মধ্যযুগীয় কায়দায় ভয়ঙ্করভাবে মারধর করে। যে কারণে প্রায় ১৫ জন আহত হন। এদের মধ্যে সাতজন ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে গতকাল ভর্তি হয়েছেন। দুজনের অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক। বাকিরাও মারাত্মক যখম হয়েছেন, তাদের চিকিৎসা চলছে। এই আক্রমণ এবং ছাত্রদলের নেতাদের আহত করার মধ্যে দিয়ে আবারও প্রমাণিত হলো যে, আওয়ামী লীগ একটা সন্ত্রাসী দল আর ছাত্রলীগ হচ্ছে তাদের পেটোয়াবাহিনী।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের জন্মের পর থেকেই সন্ত্রাস করে রাজনীতিতে আছে। সন্ত্রাসের মাধ্যমেই তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। জনগণের ভোটের অধিকার, স্বাধীকার, বেঁচে থাকার জন্য যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, সেই আন্দোলনকে দমন করার জন্যে আজকে এভাবে সর্বত্র সন্ত্রাস ছড়িয়ে দিয়েছে। বিশেষ করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষা ব্যবস্থাকে তারা ধ্বংস করে ফেলেছে। আমরা প্রত্যেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দেখতে পাচ্ছি ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা একই কায়দায় ভিন্নমতাবলম্বীদের আক্রমণ করছে। নিজেদের মধ্যে বিরোধে তারা ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির সৃষ্টি করছে। আমরা ইডেন কলেজ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে দেখেছি। সব বিশ্ববিদ্যালয়ে একই ঘটনা ঘটছে। আজকে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করা হচ্ছে। সন্ত্রাসের রাজত্ব, নৈরাজ্য সৃষ্টি করা হচ্ছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছি, জানাচ্ছি। এর সঙ্গে যারা জড়িত যাদের ছবি এসেছে তাদের অবিলম্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছি। একই সঙ্গে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নৈরাজ্য সৃস্টি করার জন্য, দেশে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করার জন্য সমস্ত দায় নিয়ে এই সরকারকে পদত্যাগের দাবি জানাচ্ছি।

মুন্সীগঞ্জের শহীদুল ইসলাম শাওন মাথায় ইটের আঘাতে মারা গেছেন—এ সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, তারা যখন থেকে ক্ষমতায় এসেছে তখন থেকেই মিথ্যা, বানোয়াট কথা বলে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্কে যে বক্তব্য দিয়েছেন সেখানে তিনি বলেছেন, দেশে চমৎকার নির্বাচন হয়, কিন্তু কী নির্বাচন হয় দেশের মানুষ তা জানে। গুম করার ব্যাপারে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেছেন, এখানে কোনো গুমের কেস নেই। অথচ কী গুম হয় আমরা জানি। মূল বিষয়টা হলো, তারা এ ধরনের রিপোর্টগুলোকে মাঝে মধ্যে ম্যানিপুলেট করে। (শাওনের) যে ডেথ সার্টিফিকেট দেওয়া হয়েছে, সেখানে পরিষ্কারভাবে বলা হয়েছে ‘ইনজুরি ইজ মেড বাই গান শট’।

ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল থেকে বিএনপির মহাসচিব পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চিকিৎসাধীন মুন্সীগঞ্জে আহত জাহাঙ্গীরকে দেখতে যান। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
এমএইচ/এমজেএফ

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa