ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

সমাবেশে যোগ দিতে রাঙামাটি থেকে ঢাকায় ৫০০ নেতাকর্মী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১১, ২০২২
সমাবেশে যোগ দিতে রাঙামাটি থেকে ঢাকায় ৫০০ নেতাকর্মী

ঢাকা: যুবলীগের ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশে যোগ দিতে সুদূর পার্বত্য উপজেলা রাঙামাটি থেকে ঢাকায় এসেছেন প্রায় ৫০০ এর বেশি নেতাকর্মী।

স্থানীয় বিভিন্ন দলীয় সমাবেশে অংশগ্রহণ করলেও প্রথমবারের মতো সশরীরে ঢাকায় এসে যুবলীগের সমাবেশে যোগদান করতে পেরে তারা আবেগাপ্লুত।

শুক্রবার (১১ নভেম্বর) রমনা পার্কে সকাল ৯টা থেকে অপেক্ষমান যুবলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য জানা গেছে। রাঙামাটি জেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে ছয়টি বাসযোগে প্রায় ৫০০ জনের মতো নেতাকর্মী ভোরে ঢাকায় এসে পৌঁছান।

রাঙামাটি জেলা যুবলীগের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আশিস কুমার চাকমা বাংলানিউজকে বলেন, গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীর বাংলাদেশকে উন্নত থেকে উন্নত করার প্রয়াসে যে ডাক দিয়েছেন সেটা বাস্তবায়নে আমরা রাঙামাটি জেলা যুবলীগ এ সমাবেশে এক হয়েছি। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আজকে যে নির্দেশনা দেবেন তা শোনা ও অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়ন করার দৃঢ় প্রতয় রয়েছে আমাদের নেতাকর্মীদের মধ্যে।

রাঙামাটি জেলা যুবলীগ কর্মী স্বর বিন্দু চাকমা বাংলানিউজকে বলেন, দলের যে কোনো সভা-সমাবেশে যোগদান করতে পারাটা আমাদের জন্য আনন্দের। গত কয়েক দিন ধরেই আমরা অপেক্ষায় ছিলাম কখন ঢাকার সমাবেশে যোগদান করবো। প্রথমবারের মতো ঢাকায় এত বড় সমাবেশে উপস্থিত হতে পেরে আমরা সত্যই আনন্দিত-আবেগআপ্লুত।

রাঙামাটি জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিমুল্লাহ সেলিম বলেন, আজকে যুবলীগের ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। যুবলীগের এ জন্মদিন পালন ও আসন্ন ২০২৪ সালের জানুয়ারির জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে টানা বিজয়ী করতে আমাদের যুবলীগের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান পরশ ভাইয়ের নেতৃত্বে আজকে রাঙামাটি জেলা পর্যায় থেকে শুরু করে তৃণমূল সব নেতাকর্মীসহ ৫০০ নেতাকর্মী এখানে এসেছি। এখানে উৎসবমুখর পরিস্থিতি বিরাজমান আমাদের নেতাকর্মীদের মধ্যে। আজকের সমাবেশ থেকে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা যে নির্দেশনা দেবেন তা অক্ষরে অক্ষরে রাঙামাটির প্রত্যেকটি ওয়ার্ডের নেতাকর্মীদের মধ্যে পৌঁছে দেব।

রাঙামাটি জেলার সাধারণ সম্পাদক নূর মো. কাজল বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের নেতাকর্মীদের নিয়ে ঢাকায় আসার একটাই কারণ বিএনপি দেশব্যাপী যে নাশকতা ও সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ড করতে চাচ্ছে তা প্রতিহত করতে আজকে আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে দিকনির্দেশনা দেবেন যুব সমাজের পক্ষ হতে তা নিয়ে নিজ জেলায় কার্যকর করবো। আমরা কোনো ধরনের নৈরাজ্য বরদাস্ত করবো না।

এদিকে সমাবেশকে ঘিরে বিকেলে বক্তব্য দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইতোমধ্যেই সমাবেশ উপলক্ষে সারা দেশ থেকে অজস্র নেতাকর্মী সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও আশপাশের এলাকায় জড়ো হতে শুরু করেছেন। তাদের ঢোল, বাদ্য, স্লোগানে আশপাশের এলাকা মুখরিত হয়ে উঠেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১১, ২০২২
এমকে/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।