ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

জ্বালানির ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করলেন মেয়র তাপস

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৮ ঘণ্টা, মার্চ ৯, ২০২৩
জ্বালানির ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করলেন মেয়র তাপস সেমিনারে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসসহ অন্যরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: বায়ু দূষণে ঢাকা শীর্ষ স্থানে থাকায় সব ধরনের জ্বালানির ব্যবহার জানার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

বৃহস্পতিবার (০৯ মার্চ) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে এক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শক্তি ইনস্টিটিউট ও ক্লাইমেট বাংলাদেশ ‌‘সুস্টাইনাবলে এনার্জি পলিসি অ্যান্ড আওয়ার লিভলিহুড’ শীর্ষক এই সেমিনার আয়োজন করে।  

ইনস্টিটিউটের পরিচালক এস এম নাসিফ শামসের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান ওয়াসিকা আয়শা খান, ক্লাইমেট পার্লামেন্ট বাংলাদেশের কার্যকরী সদস্য আহসান আদেলুর রহমান আদেল ও ডিবিসি নিউজের প্রধান সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম।

মেয়র তাপস বলেন, পানিও জ্বালানি, সৌর শক্তিও জ্বালানি, বায়ু সেটাও জ্বালানি, ইউরেনিয়াম সেটাও জ্বালানি, কয়লাও জ্বালানি, সারাদিন আমি যেটা পরিষ্কার করি; আমরা-আপনারা তৈরি করি সেই বর্জ্যটাও জ্বালানি। জ্বালানিগুলো কিভাবে ব্যবহার করা প্রয়োজন সেটা আমাদের জানতে হবে। জীবাশ্ম জ্বালানি বেশি ব্যবহার করার কারণে আমরা বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ বায়ুদূষণগ্রস্থ শহরে পরিণত হয়েছি। ধুলার জ্বালা সয়া যায় না কিন্তু লেইজ এবং ম্যাগনেসিয়াম প্রতিনিয়ত নিচ্ছি সেটাতো কেউ খেয়াল করছি না।

জ্বালানিকে কাজে লাগিয়ে কেউ উন্নত হচ্ছে আবার কেউ দেউলিয়া হচ্ছে সেটি বিশ্লেষণের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা দেখি সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের যে রাষ্ট্রগুলো জ্বালানির ওপর দাঁড়িয়ে কত বড় উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। এসব নমুনা আমাদের যাচাই-বাছাই করতে হবে, আমাদের এখান থেকে শিক্ষা নিতে হবে। ভেনিজুয়েলা, নাইজেরিয়া জ্বালানিতে ভরপুর হলেও তারা দেউলিয়াগ্রস্ত রাষ্ট্র।  

এসময় তিনি মানবসভ্যতা উত্থানের জন্যও জ্বালানি ব্যবহার হয়, আবার সভ্যতাকে ধ্বংস করার জন্য জ্বালানি একটা নিয়ামক ভূমিকা পালন করে বলে মন্তব্য করেন।

সেমিনারে অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, আপনারা শুধু সমস্যার কথা বলবেন না, শুধু প্রশ্ন ছুঁড়ে দেবেন না, আপনারা সমাধান দেবেন, আমাদেরকে বলবেন এই পথে হাঁটেন, অন্য পথে হাঁটলে বিপদ। সরকারকে পরামর্শ দেবেন, সরকার আপনাদের সমাধান গ্রহণ করবে।  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে হলে স্মার্ট সিটি এবং সবুজ নগরী গড়ে তোলতে হবে মন্তব্য করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৭ ঘণ্টা, মার্চ ০৯, ২০২৩
এসকেবি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।