ঢাকা, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

‘পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মানুষের মনোভাবও পাল্টে যাবে’

ডিপ্লোম্যাটিক অ্যাফেয়ার্স এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৭ ঘণ্টা, জুলাই ২৭, ২০১৫
‘পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মানুষের মনোভাবও পাল্টে যাবে’ ছবি: শাকিল/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: দেশে পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ হলে শুধু বিদ্যুতের চাহিদাই পূরণ হবে না, মানুষের সার্বিক মনোভাবও পাল্টে যাবে।

সোমবার (২৭ জুলাই) রাজধানীর আগারগাঁও বাংলাদেশ পারমাণু শক্তি কমিশন মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এসব কথা বলেন।



অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, শান্তিপ‍ূর্ণ উপায়ে পরমানুভিত্তিক শক্তি ব্যববহারে বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। দেশের উন্নয়নের জন্য পারমানবিক জ্বালানির বিকল্প নেই। আর সে লক্ষ্যেই পরিকল্পনা অনুযায়ী এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

‘পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মিত হলে আমরা নিজেদের উন্নত চিন্তা চেতনার মধ্যে নিয়ে যেতে পারবো,’ যোগ করেন মন্ত্রী।  

বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (বাংলাদেশ অ্যাটমিক এনার্জি রেগুলেটরি অথরিটি-বিএইআরএ) উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রকৌশলী ড. মনিরুল ইসলাম।

এতে মূল প্রবন্ধ উত্থাপন করেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. নঈম চৌধুরী আর বিএইআরএ এর সদস্য   প্রফেসর ড. শাহানা আফরোজ শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন।

মূল প্রবন্ধে নঈম চৌধুরী বলেন, পারমানবিক শক্তি শুধু বিদ্যুৎ নয়, এটা দেশের আর্থসামাজিকসহ বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে নানা পরিবর্তন আনয়ন করে।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি প্রকৌশলী ড. মনিরুল ইসলাম বলেন, পারমানবিক বর্জ্য নিয়ন্ত্রণ করতেই বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলাটরি অথোরিটি গঠন করা করা হয়েছে। আমরা সেভাবে কাজ করবো।

পারমানবিক শক্তি ব্যবহারে বাংলাদেশে বিজ্ঞান ভিত্তিক গবেষণার ক্ষেত্রে অনেক দূর এগিয়ে যাবে বলেও মনে করেন তিনি।

সেমাবার শুরু হওয়া চার দিনব্যাপী এ সেমিনার ৩১ জুলাই পর্যন্ত চলবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৭ ঘণ্টা, জুলাই ২৭, ২০১৫
কেজেড/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।