ঢাকা, রবিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

দেশি-বিদেশিদের স্বার্থে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি: আনু মুহাম্মদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
দেশি-বিদেশিদের স্বার্থে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি: আনু মুহাম্মদ

ঢাকা: দেশি-বিদেশি গোষ্ঠীকে মুনাফা দেওয়ার জন্য বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ।

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির পর বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে এক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আনু মুহাম্মদ বলেন, বিদ্যুতের দাম বাড়লে সর্বক্ষেত্রে তার প্রভাব পড়ে।

যারা বিদ্যুৎ ব্যবহার করে এবং যারা বিদ্যুৎ ব্যবহার করে না তাদের ওপরেও বিদ্যুতের এ প্রভাব পড়ে। বিদ্যুতের দাম বাড়ার ফলে জিনিসপত্রের দাম বাড়বে। সুতরাং যারা বিদ্যুৎ ব্যবহার করবে না তাদের জীবনযাত্রার ব্যয়ও বাড়বে।

তিনি বলেন, দেশি-বিদেশি কিছু গোষ্ঠীকে ভর্তুকি দেওয়ার জন্য, তাদের ব্যবসা এবং মুনাফা দেওয়ার জন্য বিদ্যুতের উৎপাদন খরচ বাড়ছে, ফলে বিদ্যুতের দাম বারবার বাড়াতে হচ্ছে। বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর কোনো যুক্তি নেই। এখানেই শেষ নয়, সরকার ক্রমাগত বিদ্যুতের দাম বাড়াতেই থাকবে।

যারা বিদ্যুৎ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত তাদের লোভের শেষ নেই এবং তাদের লোভের ওপরে কোনো নিয়ন্ত্রণও নেই। সরকারও তাদের মুনাফা দিতে ব্যস্ত। সুতরাং জনগণ যতই অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হোক বিদ্যুতের দাম বাড়বেই।

বিদ্যুতের দাম পরিবর্তনের গণশুনানি প্রসঙ্গে অর্থনীতির এ অধ্যাপক আরও বলেন, গণশুনানি এটা একটা প্রহসন এবং নাটক। গণশুনানির নামে মানুষের সঙ্গে তামাশা করা হয়। প্রত্যেকটা গণশুনানিতে সিদ্ধান্ত হয়, প্রমাণিত হয় বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর কোনো যুক্তি নেই। সরকার তার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দাম বাড়ায়। সুতরাং এ থেকে প্রমাণিত হয় সরকার আগে থেকে দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত দেয়। এরপর গণশুনানির আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
আরকেআর/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।