ঢাকা, শনিবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০২ মার্চ ২০২৪, ২০ শাবান ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

‘পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে আরও সংহত করবে’

শামীম খান, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০২২
‘পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে আরও সংহত করবে’ অনুষ্ঠানে অ্যালেক্সি লিখাচেভসহ অন্যরা।

রূপপুর, (ঈশ্বরদী, পাবনা) থেকে: পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের মাধ্যমে বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে আরও সংহত করবে বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি করপোরেশনের (রোসাটম) মহাপরিচালক অ্যালেক্সি লিখাচেভ।

জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রেও এটি ভূমিকা রাখবে বলে তিনি জানান।

নির্মাণাধীন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের (আরএনপিপি) দ্বিতীয় ইউনিটের রিঅ্যাক্টর প্রেসার ভেসেল (পারমাণবিক চুল্লিপাত্র) স্থাপন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

বুধবার (১৯ অক্টোবর) এ রিঅ্যাক্টর স্থাপন ভার্চ্যুয়ালি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।

এই প্রকল্পের নির্মাণ সংস্থা রোসাটম মহাপরিচালক অ্যালেক্সি লিখাচেভ বলেন, এই প্রকল্পের দ্বিতীয় ইউনিটে রিঅ্যাক্টর স্থাপন একটি মাইলফলক অর্জন। প্রথম ইউনিটেরও অনেক কাজ হয়েছে। কংক্রিটের মূল কাজ ৮ মাস আগেই হয়েছে। সক্রিয়ভাবে কাজ করে আমরা চেষ্টা করছি আগামী বছর ফ্রেশ পারমাণবিক ফুয়েল (জ্বালানি) যাতে লোডিং করা যায়। এই পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে যে বিশেষজ্ঞরা পরিচালনার কাজ করবেন তাদের আমরা তৈরি করছি। ৬২০ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়েছি। পুরোপুরি প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ৩০০ জন। আরও ২৪০ জন প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। আমরা আরও বিশেষজ্ঞ তৈরি করব। এরা রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে কাজ করবে।

অ্যালেক্সি লিখাচেভ বলেন, আমি এ কথা বলতে চাই যে, কর্তৃপক্ষের (বাংলাদেশ) সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে না পারলে এত অগ্রগতি হতো না। যৌথভাবে কাজ করার ফলে এর অগ্রগতি সম্ভব হয়েছে।

এ সময় রোসাটমের মহাপরিচালক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি উক্তি উল্লেখ করে বলেন, আমি আপনাদের স্বাধীনতা দিয়েছি, আপনারা রক্ষা করুন। এ পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের মাধ্যমে বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে আরও সংহত করবে। আজ বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের উন্নয়নে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তার সাহসের জন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই। জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করার চেষ্টা তিনি চালিয়ে যাচ্ছেন। আমাদের বিশ্বাস দেশটিকে সমৃদ্ধ করার ক্ষেত্রে এই পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র তার একটি অংশ। আমি কৃতজ্ঞতা জানাই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রীকেও।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০২২
এসকে/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।