ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

প্রবাসে বাংলাদেশ

লস এঞ্জেলেসে জিয়াউর রহমানের ৩১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

শিহাব উদ্দীন কিসলু, নিউইয়র্ক প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৬ ঘণ্টা, জুন ১, ২০১২

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বুধবার সন্ধ্যায় লস এঞ্জেলেসের শ্যাটো রিক্রিয়েশনাল সেন্টারে বিএনপির ক্যালিফোর্নিয়া, যুক্তরাষ্ট্র শাখা আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

সভায় বক্তারা মুক্তিযুদ্ধের এই বীর সেক্টর কমান্ডার, বহুদলীয় গণতন্ত্র ও জাতীয়তাবাদী রাজনীতির বিকাশের অগ্রদূত রাষ্ট্রনায়ক জিয়াউর রহমানের বর্ণাঢ্য অথচ সাধারণ জীবন যাপনের ধারাকে স্মরণ করেন।


বাংলাদেশের ক্রান্তিলগ্নে জিয়ার আবির্ভাব, দেশ জাতিকে নির্দেশনা প্রদান, স্বাধীনতার ঘোষণা, প্রেসিডেন্ট জিয়ার দেশ গড়া, বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের মাথা তুলে দাঁড়ানো, খাল কাটা, নিরক্ষরতা দূরীকরণ, মুসলিম বিশ্বে শান্তি ও ঐক্য প্রতিষ্ঠার কথাও স্মরণ করেন তারা।

সার্কের স্বপ্ন এবং সে স্বপ্নসহ বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন অসম্পূর্ণ রেখে চট্টগ্রামে ১৯৮১ সালের ৩০ মে একদল বিপথগামী সৈন্যের হাতে জিয়ার নিহত হওয়া নিয়েও আলোচনা করেন বক্তারা।

বক্তারা বলেন, আওয়ামী লীগ নেতাদের দুর্নীতির বিচারের ভয়ে সরকার তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা বদলে ফেলেছে। জনগণ আওয়ামী লীগের অপকর্মের জবাব ব্যালটে যাতে না দিতে পারে তাই আওয়ামী লীগ দলীয় সরকারের অধীনে প্রহসনের নির্বাচনে ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন দেখছে। তাদের স্বপ্ন জনগণ বাস্তবায়ন হতে দেবে না।

বক্তারা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১৮ দলীয় জোট নেতাদের মুক্তি ও মামলা প্রত্যাহার এবং অবিলম্বে ইলিয়াস আলীকে ফেরত দেওয়ার দাবি জানান। তারা বলেন, খুন, গুম, হামলা, মামলা দিয়ে আন্দোলন দমানো যাবে না, বরং তা আন্দোলনে আরো গতি এনে দেবে।

আন্দোলনকামী বাঙালিকে জেল-জুলুমের ভয় দেখিয়ে ক্ষমতায় অাঁকড়ে থাকা যায় না। জনগণ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চায়। জনগণ এ হত্যা-গুমের বাকশালী শাসনের অবসান চায় বলেও বক্তারা মন্তব্য করেন।

কাঞ্চন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও নিয়াজ মুহায়মেনের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ডাবলু আমিন, আব্দুল বসিত, ড. জয়নাল আবেদিন, সামসুজ্জোহা বাবলু, মুর্শেদুল ইসলাম, বদরুল আলম চৌধুরী শিপলু, আবুল ইব্রাহিম প্রমুখ ।

সভায় উপস্থিত  ছিলেন আব্দুল হাকিম, মাহতাব আহমেদ, মিজান রহমান নন্দী, শাহীন হক, মার্শাল, মুকুল, ফারুক হাওলাদার, এম ওয়াহিদ রহমান, শাহীন রহমান, ইলিয়াস মিয়া, জুনেল আহমেদ, মারুফ খান, ওমর ফারুক, সাইফুল ইসলাম, মুশফিক চৌধুরী, হোসেন এরশাদ, আলমগীর হোসেন, লায়েক আহমেদ, মন্টু চৌধুরী, আমজাদ হোসেন, হাসানুজ্জামান মিজান, বদরুল আহমেদ, আবুল খায়ের, রুবেল, নাসির উদ্দিন জেবুলসহ বহু বিএনপি নেতাকর্মী এবং শুভাকাঙ্খীরা।

শিশু ওয়াহিদা রহমানের পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে দোয়া পর্ব শুরু হয়। জিয়াউর রহমানের আত্মার মাগফেরাত, তার পরিবার, দেশবাসী এবং বিএনপির উন্নতি এবং বিএনপির নেতাদের  মুক্তি  কামনা করে মহান আল্লাহের দরবারে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা হেলালউদ্দিন।

বাংলাদেশ সময় : ১৭৪৩ ঘণ্টা, জুন ০১, ২০১২
সম্পাদনা : অশোকেশ রায়, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa