ঢাকা, বুধবার, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অপার মহিমার রমজান

লন্ডন পেকহাম জামে মসজিদের অনারারি খতিব বাংলাদেশি আলেম

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪৩ ঘণ্টা, জুন ৫, ২০১৭
লন্ডন পেকহাম জামে মসজিদের অনারারি খতিব বাংলাদেশি আলেম খতিব তাজুল ইসলাম, লন্ডন পেকহাম জামে মসজিদের অনারারি খতিব

বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে দেশের নাম উজ্জ্বল করছেন এমন আলেমের সংখ্যা খুব কম। এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম খতিব তাজুল ইসলাম। তিনি লন্ডন পেকহাম জামে মসজিদে অনারারি খতিবের দায়িত্ব পালন করে দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনছেন। 

লন্ডনে শুধু ইমামতি নয়, সেখানে অনেক কাজের সঙ্গে জড়িত তিনি। ইউকে ইক্বরা বাংলা টিভির ভাষ্যকার, জামেয়া মাদানিয়া ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকের ফাউন্ডার চেয়ারম্যান।

আন নূর ইসলামিক স্কুল ইউকের প্রধান পরিচালক। বিলেতের বাংলা পত্রিকায় নিয়মিত কলামও লেখেন তিনি।  

সত্তরের দশকের জন্মগ্রহণকারী খতিব তাজুল ইসলাম ব্রিটেন আসেন ২০০২ সালে। বিলেত এলেনও জন্মভূমি বাংলাদেশকে ভুলে যাননি। দেশে রয়েছে নিয়মিত যাতায়াত। বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠা করেছেন সিলেট বালাগঞ্জের বোয়াল জোড়ের জামেয়া নূরানিয়া ইসলামিয়া এবং সিলেট শহরে জামেয়া মাদানিয়া কেজি এন্ড হাইস্কুল। এই প্রতিষ্ঠান দু’টির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান পরিচালকও তিনি। সেই সঙ্গে জামেয়া মাদানিয়া ইসলামিয়া কাজির বাজার সিলেটের ভাইস প্রিন্সিপ্যালের দায়িত্ব পালন করছেন।

খতিব তাজুল ইসলাম তরুণ আলেমদের মাঝে ব্যাপক আলোচিত। বিশেষ করে কওমি মাদরাসা শিক্ষা সংস্কার আন্দোলন (কমাশিসা) নামে একটি অরাজনৈতিক সংগঠনের কারণে। তিনি এ নামে একটি নিউজপোর্টালও গড়ে তুলেছেন। তিনি এই সংগঠন ও নিউজপোর্টালের প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি।
জুমার খুতবা দিচ্ছেন খতিব তাজুল ইসলাম
কওমি মাদরাসা শিক্ষা সংস্কার আন্দোলন নামের সংগঠনটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই কওমি মাদরাসা শিক্ষার সংস্কার ও স্বীকৃতির পক্ষে ব্যাপক কাজ করে আসছে।

খতিব তাজুল ইসলামের লেখাপড়ার হাতেখড়ি গ্রামের বাড়ি ইসলামপুর বোয়ালজুড়ে। মাধ্যমিক স্তরের লেখাপড়া করেন জামেয়া হুসাইনিয়া গহরপুর সিলেটে। উচ্চমাধ্যমিক ও টাইটেল শেষ করেন (দাওরা) জামেয়া মাদানিয়া ইসলামিয়া কাজির বাজার সিলেট থেকে। সিলেট গুটাটিকর থেকে দাখিল ও সিলেট আলিয়া থেকে আলিম শেষ করছেন তিনি।

৪ সন্তানের জনক খতিব তাজুল ইসলাম নিজ এলাকায় প্রচুর সামাজিক কাজ করেন। প্রতিবন্দীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ, শীতবস্ত্র বিতরণ, ফ্রি চক্ষু শিবির, গৃহহীনদের ঘর নির্মাণসহ বিভিন্ন সেবামূলক কাজে জড়িত। দরিদ্র ও অসহায়দের জন্য একটি হাসপাতাল নির্মাণের পরিকল্পনাও রয়েছে তার।  

বৃটেনে তিনি ১৫ বছর ধরে আছেন। বাঙালী কমউনিটিতে রয়েছে এই আলেমের পরিচিতি। ইমামতি, জুমার খতিব ও শিক্ষকতা ছাড়াও বৃটেনে ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত।

ইসলামের দাওয়াত, সেমিনারে অংশগ্রহণ ইত্যাদি কাজে ইতিমধ্যে তিনি ভ্রমণ করেছেন ভারত, মিসর, তুরস্ক, জর্দান, ফিলিস্তিন, আল আকসা, আরব আমিরাত, সৌদি আরব, স্পেন, ফ্রান্স ও বেলজিয়াম।  

তার লিখিত গবেষণামূলক গ্রন্থ সংখ্যা ১৪টি। অনলাইনেও তিনি সরব। কোনো প্রকার রাখডাক ছাড়া নিজের মত প্রকাশে দ্বিধা নেই তাই। এ জন্য তাকে প্রচুর সমালোচনাও সইতে হয়। তবুও তিনি কাজ করে যাচ্ছেন।

ইসলাম বিভাগে লেখা পাঠাতে মেইল করুন: [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৪ ঘণ্টা, জুন ০৫, ২০১৭
এমএইউ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa