ঢাকা, বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

বাংলানিউজ টি-২০ বিশ্বকাপ-২০২১

'বিদ্রূপের শিকার' শামির পাশে শচীন-শেবাগরা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
'বিদ্রূপের শিকার' শামির পাশে শচীন-শেবাগরা

বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের কাছে হেরেছে ভারত। এরপর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোহলিবাহিনীর মুণ্ডুপাত চলছে।

সমর্থকদের আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু হয়েছেন ম্যাচে খরুচে বোলিং করা পেসার মোহাম্মদ শামি। তাকে নিয়ে চলছে ব্যাঙ্গ-বিদ্রূপ। এমনকি ভারতীয় এই ডানহাতি পেসারকে এক শ্রেণির উগ্র সমর্থক 'পাকিস্তানি', 'দেশদ্রোহী' আখ্যা দিতেও ছাড়েনি।  

শামির ওপর সমর্থকদের এসব আক্রমণ দেখে এবার সরব হয়েছেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটাররা। শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দ্র শেবাগ থেকে শুরু করে খ্যাতিমান ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও শামির পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়েছেন।  

টুইটে কিংবদন্তি ব্যাটার শচীন টেন্ডুলকার লিখেছেন, ‘আমরা যখন টিম ইন্ডিয়াকে সমর্থন করি, তখন দলের প্রত্যেক সদস্যকে সমর্থন করি। মোহাম্মদ শামি একজন বিশ্বমানের বোলার। দলের প্রতি তার দায়বদ্ধতা নিয়ে প্রশ্নই ওঠে না। তারও একটা খারাপ দিন যেতে পারে। আমি শামি এবং টিম ইন্ডিয়ার পাশে আছি। '

সাবেক ভারতীয় ওপেনার শেবাগ লিখেছেন, 'মোহাম্মদ শামির প্রতি এ ধরনের বিদ্রুপ আমাকে অবাক করেছে। দেশকে সে কত সম্মান এনে দিয়েছে, আপনারা কি তা ভুলে গেলেন? ভারতীয় দলের ক্যাপ ও জার্সি একবার কেউ পরলে দেশকে কখনও অসম্মান করতে পারে না। মনে প্রাণে সে দেশকে জেতাতে চাইবে। শামি, তুমি পরের ম্যাচে দেখিয়ে দাও যে কী করতে পার। তোমার পাশে আছি। '

ইরফান পাঠান লিখেছেন, 'ম্যাচে হার-জিত থাকবেই। তাই বলে কোনো একজনকে দোষারোপ করাটা আদৌ কি ভদ্রতা? আমরা কি পিছিয়ে যাচ্ছি? আমিও পাকিস্তানের বিপক্ষে অনেক ম্যাচে ভালো খেলতে পারিনি। হেরেছি। তাই বলে কখনও শুনতে হয়নি, সে দেশে চলে যেতে। এটা কী শুরু হলো?'

ভারতীয় স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহাল লিখেছেন, 'মোহাম্মদ শামি ভাইয়া , আপনাকে নিয়ে আমরা গর্ব করি। '

সাবেক স্পিনার হরভজন সিং লিখেছেন, 'আমরা তোমাকে ভালোবাসি, শামি। '

সাবেক ভারতীয় ব্যাটার ভিভিএস লক্ষণ লিখেছেন, 'মোহাম্মদ শামি টানা আট বছর ধরে ভারতের জার্সিতে দুর্দান্ত পারফর্ম করে আসছে। দলের জয়ে তার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে সে। এক ম্যাচের পারফরম্যান্স দিয়ে তাকে বিচার করা যাবে না। তার প্রতি সবসময় আমার শুভকামনা থাকবে। ভক্ত ও সমর্থকদের প্রতি আমার অনুরোধ, শামি এবং ভারতীয় দলের প্রতি সমর্থন বজায় রাখুন। '

সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন লিখেছেন, 'জয় এবং পরাজয় খেলারই অংশ। শামিকে নিয়ে ব্যক্তিগত আক্রমণ অগ্রহণযোগ্য। আমি শামির পাশে আছি। '

এছাড়া ওয়াসিম জাফর, ভেঙ্কটেশ প্রসাদের মতো সাবেক এবং দীনেশ কার্তিকের মতো বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেটাররাও শামির পাশে থাকার বার্তা দিয়ে টুইট করেছেন। এমনকি আইপিএলে তার দল পাঞ্জাব কিংসও ভারতের জার্সিতে তার কীর্তির কথা তুলে ধরে পাশে থাকার বার্তা দিয়েছে।

এদিকে শামির ছবি দিয়ে নিজের প্রোফাইল ছবি বানিয়েছেন খ্যাতিমান ক্রীড়া লেখক ও ক্রিকেট বিশ্লেষক আকাশ চোপড়া। আরেক খ্যাতিমান ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে লিখেছেন, 'যারা মোহাম্মদ শামিকে নিয়ে নোংরা মন্তব্য করছেন, তাদের অনুরোধ করছি আপনারা ক্রিকেট খেলা দেখবেন না। এতে আপনাকে আর কষ্ট করে গালি দিতে হবে না। '

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের ম্যাচে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে পাকিস্তানের দুর্দান্ত পেস আক্রমণে নাস্তানাবুদ ভারত তুলেছিল মাত্র ১৫১ রান। দুবাই এমনিতেই পাকিস্তানের 'ঘরের মাঠ'। তাই সেখানে বাবর আজমদের আটকাতে এই রান যথেষ্ট ছিল না। তা ছাড়া যে ধরনের বোলিং আক্রমণের দরকার ছিল, ভারতের কোনো বোলারই তা করতে পারেননি।

পাকিস্তান জিতেছে ১০ উইকেটে! যা রীতিমতো অবিশ্বাস্য। ভারতীয় বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে খরুচে ছিলেন মোহাম্মদ শামি। ৩.৫ ওভারে ৪৩ রান দিয়েছেন। অর্থাৎ ওভারপ্রতি ১১ রানের বেশি।

আর এতেই শামির ওপর ক্ষিপ্ত ভারতের উগ্র সমর্থকেরা। শামির ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে গিয়ে একজন লিখেছেন 'পাকিস্তানের দ্বাদশ খেলোয়াড়'। আরেকজন লিখেছেন, 'বিশ্বাসঘাতক, নিজের ক্ষমতা দেখিয়ে দিলে। ' আরেক সমর্থক লেখেন 'ভারতীয় দলের পাকিস্তানি ক্রিকেটার। ' 

প্রকাশের অযোগ্য ভাষায়ই আক্রমণ হয়েছে বেশি। অনেকেই শামির ধর্মীয় দিকেও ইঙ্গিত করে খোঁচা মেরেছেন। এক সমর্থক যেমন বলেছেন, 'পাকিস্তানে চলে যাও। সেখানে গেলে তুমিও শান্তি পাবে, আমরাও পাব। '

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa