ঢাকা, বুধবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৬ জিলহজ ১৪৪৩

তারার ফুল

‘বার্ডম্যান’ মনে হবে এক টেকেই করা

সালেহ শফিক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৪
‘বার্ডম্যান’ মনে হবে এক টেকেই করা

বার্ডম্যান পরিচিতি
পরিচালক : আলেহান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিত
দৈর্ঘ্য : ১১৯ মিনিট
রোটেন টমেটো রেটিং : ৯৩/১০০
অর্জন : সাতটি বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব মনোনয়ন। আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউটের দৃষ্টিতে বছরের সেরা দশ ছবির তালিকায় স্থান পাওয়া।



আলেহান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতুর সাম্প্রতিক ছবি ‘বার্ডম্যান’। এতে নাম ভ‚মিকায় অভিনয় করেছেন মাইকেল কিটন। ১৯৮৯ সালে তিনিই প্রথম ব্যাটম্যান হয়েছিলেন রূপালি পর্দায়। পরে ১৯৯২ সালে ‘ব্যাটম্যান রিটার্নস’ ছবিতেও নাম ভ‚মিকায় দেখা গেছে তাকে। প্রায় দুই যুগ পরে তিনি হলেন বার্ডম্যান। ছবিটি এতোই প্রশংসা কুড়িয়েছে যে কিটনকে সবাই বার্ডম্যান নামেই ডাকছে।

ইনারিতু ‘বার্ডম্যান’-এর চিত্রনাট্য পাঠানোর পর কিটন তা মন দিয়ে পড়েছেন। পরে দু’জনে এক নৈশভোজে যোগ দিয়েছেন। কিটন তখন ইনারিতুকে বললেন, ‘তুমি কি আমাকে নিয়ে ঠাট্টা করছো?’ ইনারিতু উত্তরে বললেন, ‘আপনি তো পড়েছেন, আপনার বোঝা কঠিন নয় যে ছবিটা হাসির নয়। এর মধ্যে আধ্যাত্মিকতাই বেশি। ’ ইনারিতু আর কিটনের বয়সের ব্যবধান প্রায় এক যুগ। দু’জনে এর আগে কিছু স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও বিজ্ঞাপনচিত্রে একত্র হয়েছিলেন। কিন্তু পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনীচিত্র এটাই প্রথম। ইনারিতু বলেন, ‘কিটন শুধু ভালো অভিনেতা নন, ভালো মানুষও। ’

এটি ইনারিতুর পঞ্চম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। প্রথমটির নাম ‘এমোরেস পেররস’ (২০০০)। ছবিটি বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র হিসেবে অস্কার পেয়েছিল। তারপর ইনারিতু ‘টোয়েন্টি ওয়ান গ্রাম’ (২০০৩) ও ‘বাবেল’ (২০০৬) দিয়ে বিশ্বজয় করেছেন। চতুর্থ ছবি ‘বিউটিফুল’ বানিয়েছেন ২০১০ সালে। তার সব ছবিই প্রশংসিত ও পুরস্কৃত। ব্র্যাড পিট, হাভিয়ের বারদেম, কেট ব্ল্যানচেটের মতো হেভিওয়েটদের নিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে তার। যদিও ১৫ বছরে ছবি বানিয়েছেন মোটে পাঁচটি। ‘বাবেল’-এর কাজ করেছেন তিন মহাদেশের চারটি দেশে।

ইনারিতু জন্মেছেন ১৯৬৩ সালে, মেক্সিকোয়। ১৭ থেকে ১৯ বছর বয়সের মধ্যে তিনি আটলান্টিক পাড়ি দিয়েছেন। সমুদ্র পাড়ি দেওয়ার অভিজ্ঞতা তার সব জীবনকে নিয়ন্ত্রণ করে। ছবিতেও সেসব দিনের প্রভাব এড়াতে পারেন না তিনি। সমুদ্র থেকে ফিরে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে যোগাযোগ বিষয়ে পড়তে থাকেন। তারপর একটি মেক্সিকান রেডিওতে অনুষ্ঠান উপস্থাপক হিসেবে কাজ করেছেন। সেটা ১৯৮২ সাল। চার বছরের মধ্যেই হয়ে যান রেডিওর পরিচালক। রক আর পপতারকাদের অনেক সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। তাদের গান সাজিয়ে দিয়েছেন, গান লিখেছেনও। পাশাপাশি চলচ্চিত্রের জন্য সংগীত তৈরি করেছেন তিনি। পরে টিভির জন্য অনুষ্ঠান নির্মাণ করেছেন। ইনারিতু এখন পরিবার নিয়ে থাকেন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে। তিনি বলে থাকেন, ‘সংগীতই আমাকে শিল্পী মন দিয়েছে, চলচ্চিত্র নয়। ’

‘বার্ডম্যান’কে বলা হচ্ছে ব্ল্যাক কমেডি। ঘটনা এমন- হলিউডের একজন সুপারহিরো কুড়ি বছর আগে বিশ্ব কাঁপিয়েছিলো, কিন্তু এখন একটি মঞ্চনাটকে কাজ করতে গিয়ে বিপাকে পড়ে সে। খসে পড়ে তার মুখোশ। সুপারহিরোর অহংকার তাকে তাড়িয়ে বেড়ায়। মাঝে মধ্যে বার্ডম্যান হয়ে উড়ে যেতে মন চায় তার। বার্ডম্যানের দিনগুলোয় ফিরে যেতে চায় সে। তেমন শক্তি আর উড্ডয়ন চায় আবার। নাটকের শেষ দৃশ্যে সত্যিকারের পিস্তল দিয়ে নিজেকে গুলি করে সে। ছবিটি বাস্তবতা আর কল্পনার এক মিশেল। বিখ্যাত ভ্যারাইটি পত্রিকা লিখেছে, চলচ্চিত্র দর্শককে বিভ্রম যোগায় আর ‘বার্ডম্যান’ চলচ্চিত্রকেই বিভ্রমে ঢুকিয়ে দিলো। এমনটা বুঝি চলচ্চিত্রের ইতিহাসে এবারই প্রথম হলো।

ছবিটি দেখে মনে হবে পুরোটা একটি টেকেই তৈরি করা। দৃশ্যধারণ শুরুর আগের সময়টায় বিষয়টি নিয়ে ইনারিতু ভাবার সময় অন্যরা বলেছিল, এটা হবে পাগলামি! আজ যখন ব্যাপারটি সফল হয়েছে অর্থাৎ এক টেকে নেওয়ার বিভ্রম তৈরি করা গেছে তখন আশা করা হচ্ছে ছবির চিত্রগ্রাহক এমানুয়েল লুবেস্কি অস্কার জিতে নেবেন। এ প্রসঙ্গে ইনারিতু বলছেন, ‘৫০ পেরিয়ে এসে এমন একটি কাজই তো হাতে নেবো যা আমাকে ভয় পাইয়ে দেবে। সেখানেই তো মজা!’

সবমিলিয়ে ৯৮টি চরিত্র আছে ‘বার্ডম্যান’ ছবিতে। প্রধান পাত্র-পাত্রী ছাড়া আছে পর্যটক, প্রতিবেদক, সাংবাদিক, প্রতিবেশী, ক্যাব ড্রাইভার, থিয়েটার মালিক, দর্শক ইত্যাদি। মাইকেল কিটন ছাড়াও এতে অভিনয় করেছেন এডওয়ার্ড নর্টন, নাওমি ওয়াটস, এমা স্টোন, জ্যাক গ্যালিফিয়ানাকিস, আন্ড্রিয়া রাইজবোরো, এমি রায়ান প্রমুখ। ছবিটি প্রথম প্রদর্শিত হয় ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী ছবি হিসেবে। যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পায় গেলো অক্টোবরে। ছবিটি নির্মাণে খরচ হয়েছে ১ কোটি ৮০ লাখ ডলার। আর ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত আয় করেছে ২ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার।

গোল্ডেন গ্লোবে সর্বাধিক মনোনয়নের পাশাপাশি স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড অ্যাওয়ার্ডেও মনোনীত তালিকায় এগিয়ে ছবিটি। এ ছাড়া ক্রিটিস মুভি অ্যাওয়ার্ডসে সবচেয়ে বেশি (১৩টি) মনোনয়ন পেয়েছে এটি। অস্কারের মনোনয়ন তালিকায়ও এগিয়ে থাকলে অবাক হবেন না। এই হলো ইনারিতুর জাদু!

বাংলাদেশ সময় : ২০৩১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa