ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

তারার ফুল

তারকাদের ফেসবুক মঞ্চ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৭ ঘণ্টা, জুন ২৮, ২০১৬
তারকাদের ফেসবুক মঞ্চ

প্রতি মুহূর্তের ভালোলাগা ভাগাভাগির সঙ্গী ফেসবুক। তাই বলে ক্ষোভ, অভিমান বা মন্দলাগার কথা চাপা পড়ে থাকবে? তেমনটি নয়।

সাধারণ মানুষের মতো বিনোদন অঙ্গনের শিল্পীরাও সামাজিক বিভিন্ন অসঙ্গতি নিয়ে কথা বলছেন, ফেসবুক মঞ্চে দাঁড়িয়ে আওয়াজ তুলছেন। টাইমলাইন ঘুরে নির্বাচিত তেমন কিছু স্ট্যাটাস নিয়ে বাংলানিউজের নতুন বিভাগ ‘ফেসবুক মঞ্চ’…

‘শিল্পী সমিতি থেকে লাভটা কি?’
অঞ্জনা সুলতানা, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী

আজ (শনিবার) আমাদের বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি কর্তৃক আয়োজিত ইফতার মাহফিল ছিলো। আমি এফডিসিতে পৌঁছানোর পর কয়েকটা ব্যাপারে এতোটা অবাক হয়েছি যা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। শিল্পীরা সমিতির ইফতারে যথাযথ দাওয়াত পাবেন, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আমি গিয়ে দেখলাম যারা আমাদের শিল্পী সমিতির কেউনা, আমাদের পাশে বসার যারা যোগ্যতা রাখেনা তারা এসে শামিল হয়েছে ইফতার মাহফিলে।

অনেক দুঃখের সঙ্গে বলছি, আমাদের বাংলা চলচ্চিত্রের অনেক খ্যাতিমান অভিনেতারাও দাওয়াত পাননি। বিশেষ করে নায়ক, চলচ্চিত্র পরিচালক, নৃত্য পরিচালক ইলিয়াস জাভেদ ভাই ইফতার দাওয়াতপত্র পাননি, চিত্রনায়ক রুবেলসহ অনেকে দাওয়াতপত্র পাননি। তাদের মতো খ্যাতিমান অভিনেতারা যদি দাওয়াত না পায়, এই যদি অবস্থা হয়, তাহলে শিল্পী সমিতি থেকে লাভটা কি?

‘অনর্থক অলংকরণের প্রবণতা বেড়ে গেছে’
অনিমেষ আইচ, নির্মাতা

ফেসবুকের কল্যাণে এখন অনেক নির্মাতার নাটকের প্রোমোশনাল আগে ভাগেই দেখার সূযোগ হয়। প্রোমোশনাল দেখে যতোবার মুগ্ধ হয়ে নাটক কিংবা টেলিফিল্ম দেখতে বসেছি ততোবারই হতাশ হয়েছি। বরং খুব বিশ্রী প্রোমোশনালের অনেক নাটক দেখে আরাম লেগেছে।

ইদানীং খেয়াল করছি, আমাদের নির্মাতাদের ভেতরে অনর্থক অলংকরণের প্রবণতা অহেতুক বেড়ে গেছে। গল্পের সঙ্গে কোনো সংযোগ নাই, অহেতুক ড্রোন শট, কালার কারেকশন, ফোকাস ডি-ফোকাসের খেলা, ক্যামেরার অহেতুক নড়াচড়া নিয়ে উত্তেজনা আর সাম্প্রতিক যুক্ত হয়েছে গিমিকের নামে গায়ক ক্রিকেটারদের দিয়ে অভিনয় করানো।

গল্পই ফিকশনের প্রাণ- যেখানে ঠিক গল্প নাই, নাই সহজভাবে গল্প বলার চেষ্টা, সেখানে হুদাই অলংকার কিছুতেই কিছু করতে পারবে না। প্রোমোশনাল না, ভেতরের গল্পটা দেখতে চাই।

‘নির্মাতারা ভলান্টিয়ার সার্ভিস দিতে অাসেননি!’
ইমরাউল রাফাত, নাট্য নির্মাতা

টেলিভিশনে নিয়মিত এক ঘণ্টার নাটকের নূন্যতম বাজেট ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা হতে হবে। বিশেষ দিবসের নাটকের নূন্যতম বাজেট ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা হতে হবে। ধারাবাহিক নাটকের নূন্যতম বাজেট ১ লাখ পাঁচ হাজার টাকা হতে হবে। এই বাজেটে ভ্যাট প্রযোজ্য হবে না। ভ্যাট অালাদা যুক্ত হবে। মনে রাখা জরুরি, নির্মাতারা ভলান্টিয়ার সার্ভিস দিতে অাসেননি! (সৌজন্যে সেতু আরিফ)

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৪ ঘণ্টা, জুন ২৮, ২০১৬
এসও/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa