ঢাকা, রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

তারার ফুল

কনার সঙ্গে কিছুক্ষণ

‘আমি সাধারণ একজন কণ্ঠশিল্পী’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৫ ঘণ্টা, জুন ২৯, ২০১৬
‘আমি সাধারণ একজন কণ্ঠশিল্পী’ দিলশাদ নাহার কনা-ছবি: নূর-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নিজেকে ছাড়িয়ে গেলেন কনা। তার গাওয়া ‘রেশমি চুড়ি’ গানের ভিডিও এখন পর্যন্ত দেখা হয়েছে ৪০ লাখ বারের কাছাকাছি।

তার আর কোনো গানের ভিডিওতে এতো হিট পড়েনি আগে।

পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে গত ১ এপ্রিল ইউটিউবে কনার চ্যানেলে ‘রেশমি চুড়ি’ আপলোড করা হয়। স্বাভাবিকভাবে এমন সাড়া পেয়ে দারুণ আনন্দিত কনা। এই গানসহ মোট সাতটি গান নিয়ে কনার নতুন অ্যালবাম ‘সেলফি’ মিউজিক প্ল্যাটফর্ম রবি ইয়ন্ডার মিউজিক অ্যাপে এসেছে। এ ছাড়া ঈদ উপলক্ষে জিপি মিউজিক ও সিএমভি থেকে বের হয়েছে ‘রিদমিক কনা’।

‘রেশমি চুড়ি’র অভাবনীয় সাফল্য, নতুন দুই অ্যালবাম ও ব্যক্তিগত নানান বিষয় নিয়ে বাংলানিউজের সঙ্গে কথা বলেছেন কনা।

বাংলানিউজ: রেশমি চুড়ি প্রথম হাতে দিয়েছিলেন কবে?
দিলশাদ নাহার কনা:
তা তো মনে নেই। তবে ছোটবেলায় গ্রামে বেড়াতে গেলে চুড়ি বিক্রেতা মহিলারা বাড়িতে আসতো। তখন তাদের কাছ থেকে নিয়ে খুব চুড়ি পরতাম।

বাংলানিউজ: এখন গ্রামে যান না?
কনা:
খুব কম। যাই না বললেই চলে। যদিও আমাদের গ্রামের বাড়ি কাছেই, গাজীপুর। এখন আগের মতো বেড়ানো হয় না। তাছাড়া গ্রামে গেলে আর আসতে মন চায় না!

বাংলানিউজ: ‘রেশমি চুড়ি’ নিয়ে অনেক প্রশংসাই তো পেলেন। এটা এতো হিট হলো কেনো?
কনা:
যেদিন গানটা গাইলাম সেদিনই বুঝেছি এটা জনপ্রিয় হতে পারে। কয়েক বছর পর নতুন ভিডিও নিয়ে সংগীতাঙ্গনে ফেরার বেলায় আমি চেয়েছিলাম, সবার মধ্যে ফুর্তি মেজাজ ছড়িয়ে দেবো। ভিডিওটা সেভাবেই বানানো।

ভিডিওটি দেখা ও পছন্দ করার জন্য দর্শক-শ্রোতার কাছে আমি কৃতজ্ঞ। ধন্যবাদ জানাই এর ভিডিও নির্মাতা শিবরাম শর্মা, গীতিকার প্রিয় চট্টোপাধ্যায় এবং সুরকার ও সংগীত পরিচালক আকাশ সেনকে। ‘রেশমি চুড়ি’সহ সাতটি গান নিয়ে রবি ইয়ন্ডার অ্যাপে এসেছে আমার সেলফি অ্যালবামটি।

বাংলানিউজ: সাম্প্রতিক কয়েকটি অনুষ্ঠানে আপনার পরিবেশনা এবং ভিডিওর উপস্থাপনা দেখে মনে হচ্ছে, কনার ভেতরে নাচিয়ে সত্ত্বা খুব কাজ করে...
কনা:
করারই কথা! শৈশবে নার্সারিতে পড়ার সময় নাচ শিখতাম। মনপ্রাণে নাচটাই ছিলো তখন। আর আমার বড় বোন লিসা শিখতো গান। আমাদের দু'জনের গলা প্রায় এক। মজার একটা ঘটনা বলি, একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) কণ্ঠ সংশোধনীর দরকার ছিলো, কিন্তু তখন আমি দেশের বাইরে। এদিকে সময়ও নেই। আমার জায়গায় তখন লিসা কণ্ঠ দিয়েছিলো। কিন্তু কেউ বুঝতেই পারেনি!

বাংলানিউজ: অ্যালবামের নাম ‘রিদমিক কনা’, এখানে কি নাচের গান বেশি?
কনা:
হঠাৎ নামটা শুনলে এটাই মনে হতে পারে সবার। আসলে তা না। রিদম বা তাল তো অনেক রকমের হয়। ধীরগতির তালও আছে, আবার দ্রুতলয়ের তালেও গান করি। এ অ্যালবামে দুটোরই সম্মিলন পাবেন শ্রোতারা। আর আমার আগের এককগুলোর চেয়ে এবার প্রেমে টইটম্বুর গান করেছি বেশি।

এ অ্যালবামে গান আছে ছয়টি। দুটি করে গানে সুর ও সংগীত দিয়েছেন ইমরান মাহমুদুল, সাজিদ সরকার ও প্রীতম হাসান। ছয়টি গানের চারটি সোমেশ্বর অলি এবং একটি করে লিখেছেন জনি হক ও মাহমুদ মানজুর। একক ছাড়াও দ্বৈত গান আছে এতে।

বাংলানিউজ: আপনার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে কোন গান?
কনা:
আমি গান করি ২০০০ সাল থেকে। অ্যাঞ্জেল ফোর ব্যান্ডে গান করেছি। তবে ‘জ্যামিতিক ভালোবাসা’ (২০০৬) আমার সংগীত জীবনের টার্নিং পয়েন্ট। এরপর ‘কনা’ (২০০৮) অ্যালবামের ‘বরষা’ গানটি পরিচিতি দিয়েছে। তবে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছি ‘সিম্পলি কনা’র ‘ধিমতানা’ গানের সুবাদে।

বাংলানিউজ: অনেক সাধনা করে এখানে আসতে হয়েছে আপনাকে। এতোটা পথ পেরিয়ে আসার উপলব্ধি কী?
কনা:
কাঠখড় পুড়িয়ে সাফল্য পেলে ভালো। সুবিধাও আছে। কষ্ট করার পর অবস্থান তৈরি হলে আবেগ আর ধৈর্যটা কাজে লাগে। মানুষ হিসেবে আমি অল্পতে হতাশ হয়ে পড়ি না। এখন যা অর্জন করি তাতেই সন্তুষ্ট হই। এমনও হতো পারতো আমি এতো কিছু পেতাম না!

বাংলানিউজ: নায়িকা কনাকে দর্শকরা মিস করে...
কনা:
অভিনয়টা এখন ভেতর থেকে আসে না। তবে কখনও ইচ্ছে হলে আর ব্যাটে-বলে মিলে গেলে অভিনয় করতেও পারি। এখন অভিনয়টা অনেক কষ্ট মনে হয়। নাটক করার সময় কিন্তু এটা মনে হতো না।

বাংলানিউজ: কখনও গীতিকার বা সুরকার হবেন?
কনা:
ওরে বাবা! সুর করা, গান লেখা বড় বড় কাজ। আমি সাধারণ একজন কণ্ঠশিল্পী। গীতিকার আর সুরকাররা যা তৈরি করেন, আমি শুধু শ্রোতাদের কাছে তা উপস্থাপন করি। বলতে পারেন রান্না করে দিলে আমি সুন্দরভাবে পরিবেশন করতে পারি (হাসি)।

বাংলানিউজ: কনা অবসরে কি করে?
কনা:
অবসর পাইনারে ভাই! যদি কাজ না থাকে তাহলে ঘুমিয়ে কাটে। এ ছাড়া প্রচুর টিভি দেখি। বলতে পারেন টিভি দেখা আমার শখ!

বাংলানিউজ: এবার ব্যক্তিগত প্রশ্ন। বিয়ের সানাই বাজবে কবে?
কনা:
আমি কিন্তু বিয়ের জন্য তৈরি। সুতরাং তাড়াতাড়িই খবর পাবেন।

* ‘রেশমি চুড়ি’ গানের ভিডিও :

বাংলাদেশ সময় : ১৯৫৮ ঘণ্টা, জুন ২৯, ২০১৬
জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa