ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

টেনিস

দশক সেরা ধনী ক্রীড়াবিদ: দুইয়ে রোনালদো, তিনে মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯
দশক সেরা ধনী ক্রীড়াবিদ: দুইয়ে রোনালদো, তিনে মেসি ছবি: সংগৃহীত

একটা সময় ছিল শুধু খেলাধুলার মাধ্যমেই আয় করতেন ক্রীড়া জগতের তারকারা। কিন্তু বর্তমান যুগে ক্রীড়াবিদদের আয়ের উৎসের অভাব নেই। বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলের সঙ্গে মেগা চুক্তি ছাড়াও আছে শীর্ষ জুতা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান নাইকি ও অ্যাডিডাসের মধ্যে লড়াইয়ের ফলে শীর্ষ তারকাদের জন্য অবিশ্বাস্য সব চুক্তির সুযোগ। এসব মিলিয়ে গত এক দশকে ক্রীড়া জগতের তারকাদের আয়ের পরিমাণ এখন আকাশছোঁয়া।

এই দশক শুরুর আগে ক্রীড়া জগতের সবচেয়ে বেশি উপার্জনকারী ছিলেন মার্কিন গলফার টাইগার উডস। প্রতি বছর কমপক্ষে ৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পকেটে পুরেছেন তিনি।

তবে ২০১০ সাল থেকে সমান পরিমাণ অর্থ অনায়াসেই আয় করেছেন কমপক্ষে এক ডজন ক্রীড়া তারকা। তবে বক্সিং চ্যাম্পিয়ন ফ্লয়েড মেওয়েদারের চেয়ে বেশি কেউ আয় করতে পারেননি। গত ১০ বছরে তার মোট আয় ৯১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এখন পর্যন্ত কোনো বক্সিং ম্যাচে না হারা (৫০-০) মেওয়েদার বর্তমানে অবসরে থাকলেও ২০২০ সালে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

মেওয়েদারের আয় দশক সেরা উপার্জনকারী ক্রীড়া তারকাদের তালিকায় থাকা দ্বিতীয়জনের চেয়ে ১১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বেশি। কিন্তু মজার ব্যাপার হচ্ছে, এত বিশাল পরিমাণ অর্থ আয় করতে তাকে কোনো দলের মালিক কিংবা চোখ ধাঁধানো চুক্তির অপেক্ষায় থাকতে হয়নি। বক্সিং রিং থেকে যা আয় হয় তা তিনি নিজের পকেটেই পুরেন। তিনি ২০০৭ সালে বব অ্যারামের টপ র‍্যাঙ্ক থেকে বের হয়ে মেওয়েদার প্রমোশন প্রতিষ্ঠা করেন। তার বিশাল আয়ের মধ্যে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার এসেছিল শুধু ম্যানি পাকুইয়াও এবং কনর ম্যাকগ্রেগরকে হারানোর মাধ্যমে। অর্থাৎ মাত্র দুই রাতের আয় ৫০০ মিলিয়ন!

মেওয়েদারের পর তালিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে আছেন যথাক্রমে দুই ফুটবল সুপারস্টার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (৮০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) এবং লিওনেল মেসি (৭৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার)। গত দশকে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে এই দুজনের নাম। তাই তাদের নিজ নিজ ক্লাবও তাদের সঙ্গে একের পর এক নতুন চুক্তি করেছে, যেখানে তাদের বেতন ক্রমেই আকাশ ছুঁয়েছে। ২০১৯ সালে সবচেয়ে বেশি উপার্জনকারী অ্যাথলেট ছিলেন মেসি। তার ১২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয়ের মধ্যে ৯২ মিলিয়ন এসেছে বার্সেলোনার কাছ থেকে। তবে মেসির চেয়ে বেতন কম হলেও নাইকি ও অন্যান্য কোম্পানির সঙ্গে চুক্তির কারণে রোনালদোর আয়ের পরিমাণ বেশি।  

তালিকার শীর্ষ দশে স্থান পাওয়াদের মধ্যে আছেন দুজন করে বক্সার, ফুটবলার, বাস্কেটবল এবং গলফ তারকা। সবার সম্মিলিত আয় মোট ৬.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তবে কোনো বাস্কেটবল, আমেরিকান ফুটবল এবং হকি তারকার তালিকায় জায়গা হয়নি। এছাড়া অবসরে যাওয়া এনবিএ তারকা কোবে ব্রায়ান্ট এবং মাইকেল জর্ডানের মতো তারকাদেরও রাখা হয়নি। আর শীর্ষ ৪০ জন শীর্ষ উপার্জনকারী ক্রীড়া তারকাদের মধ্যে একমাত্র নারী হিসেবে স্থান পেয়েছেন সেরেনা উইলিয়ামস (২১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার)।

দশক সেরা ১০ শীর্ষ ক্রীড়া তারকা
১০. লুইস হ্যামিল্টন- ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০৯. কেভিন ডুরান্ট-  ৪২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০৮. ম্যানি পাকুইয়াও- ৪৩৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০৭. ফিল মাইকেলসন- ৪৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০৬. টাইগার উডস- ৬১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০৫. রজার ফেদেরার- ৬৪০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০৪. লেব্রন জেমস- ৬৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০৩. লিওনেল মেসি- ৭৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০২. ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো- ৮০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার
০১. ফ্লয়েড মেওয়েদার- ৯১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa