ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১ রজব ১৪৪৪

পর্যটন

নদী পর্যটন উৎসবে রেজিস্ট্রেশন চলছে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০২২
নদী পর্যটন উৎসবে রেজিস্ট্রেশন চলছে

ঢাকা: চতুর্থ বারের মতো আয়োজন হচ্ছে নদী পর্যটন উৎসবের। চলতি বছরের ১৬ ডিসেম্বর ঢাকা থেকে চাঁদপুর রুটে রিভার ক্রুজে জাঁকালো আয়োজনে অনুষ্ঠিত হবে এ উৎসব।

 

যৌথভাবে এ নদী উৎসবের আয়োজন করছে বাংলাদেশ ট্যুরিজম এক্সপ্লোরারস অ্যাসোসিয়েশন (বিটিইএ) ও ফেস্টিভ্যাল অ্যান্ড কালচারাল ট্যুরিজম কনসোর্টিয়াম (এফসিটিসি)। এ উৎসবে অনলাইন মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকছে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম।

ইতোমধ্যেই পর্যটন উৎসবের রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বর্ণিল এ উৎসবের সহ আয়োজক হিসেবে থাকছে বগুড়া ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, চক্কর ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, ট্রাভেলারস হাব, হ্যামক ট্যুরিজম বিডি, প্যারেন্টস এভিয়েশন ও মায়াবি ট্যুরস।

এ উপলক্ষে বিটিইএ’র প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম সাগর বলেন, বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ। নদীকে ঘিরেই আমাদের সমাজ ও সভ্যতার গোড়াপত্তন। এ নদীকে ঘিরেই তৈরি হয় শহর, নগর ও শিল্পায়ন। ক্রমাগত দখল ও দূষণে আমাদের নদীগুলো হারাতে বসেছে চিরচেনা ঐতিহ্য। সময় এসেছে নদীর প্রতি যত্ন নেওয়ার। এ বিষয়টি মাথায় রেখে প্রতি বছর আমরা এ উৎসবটি আয়োজন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। এ নিয়ে চতুর্থ বারের মতো আয়োজিত হচ্ছে উৎসবটি।  

তিনি বলেন, প্রতি বছর নৌ-ভ্রমণের মাধ্যমে আমরা আয়োজন করি নদীর সঙ্গে সারাদিন সখ্যতা ও ভাব-বিনিময়ের। সেই ছোটবেলা থেকে পড়ে আসছি, বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ। শাখা-প্রশাখাসহ প্রায় ৩১০টি নদ-নদী বিপুল জলরাশি নিয়ে ২৪ হাজার ১৪০ কিলোমিটার জায়গা জুড়ে দেশের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।
 
আয়োজক কমিটি জানায়, এ উৎসবে পরিবার পরিজন বা বন্ধুবান্ধবসহ প্রিয়জনকে নিয়ে নদীতে কাটানো হয় একটি দিন। অনুষ্ঠানগুলো সাজানো হয় পরিবার বান্ধব করে। যেখানে শিশুদের জন্য থাকবে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, নানা ধরনের শিশুতোষ খেলার আয়োজন। থাকবে পরিবারভিত্তিক খেলা, পাপেট শো, দেশীয় খাবার ও বিভিন্ন পণ্যের ছোট মেলা, বাউল গান, পুতুল নাচ ও ব্যান্ড সঙ্গীতের আয়োজন। যেহেতু সারাদিন লঞ্চে কাটবে তাই থাকবে বাহারি খাবারের আয়োজনও।
 
১৬ ডিসেম্বর ঢাকা-চাঁদপুর-ঢাকা। সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে এ উৎসব। উৎসবে যা যা থাকবে সকালের নাস্তা, দুপুরে লাঞ্চ, বিকেলের নাস্তা, সেমিনার এবং প্যানেল আলোচনা, হস্তশিল্পের প্রদর্শনী, ঐতিহ্যবাহী পুতুল নাচ, বাউল গান, ব্যান্ড শোসহ বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বাচ্চাদের ছবি আঁকার প্রতিযোগিতা। র‍্যাফেল ড্র ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। এবারের আয়োজনে প্রথম পুরস্কার ঢাকা-থাইল্যান্ড-ঢাকা ফ্রি এয়ার টিকিট।
 
রেজিস্ট্রেশনের শেষ সময় ৭ ডিসেম্বর। আসন সংখ্যা সীমিত। তাই দ্রুত রেজিস্ট্রেশন করে আসন নিশ্চিত করুন। রেজিস্ট্রেশন ফি ১৮৫০ টাকা, কেবিন ভাড়া সিঙ্গেল ১৫০০ টাকা, কেবিন ডাবল ভাড়া ২৫০০ টাকা, ভিআইপি কেবিন সাত হাজার টাকা।

ফেসবুকে- https://fb.me/e/1XW8FUjrR লিংকে ভিজিট করে বা মোবাইল ফোনে ০১৭৯৬৮০৭০৪৯ নম্বরে যোগাযোগ করে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০২২
এসএইচডি/এসআইএ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa