ঢাকা, সোমবার, ৯ কার্তিক ১৪২৮, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বাণিজ্যমেলা

বাণিজ্যমেলায় আগুন ও দুর্ঘটনায় প্রস্তুত ফায়ার সার্ভিস

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০১৮
বাণিজ্যমেলায় আগুন ও দুর্ঘটনায় প্রস্তুত ফায়ার সার্ভিস ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের অ্যাম্বুলেন্স ও মোটরসাইকেল-ছবি- কাশেম হারুন

বাণিজ্যমেলা থেকে: বাণিজ্যমেলায় অগ্নিকাণ্ড কিংবা অন্য কোনো দুর্ঘটনায় সহায়তা দেওয়ার জন্য ২৪ ঘণ্টা প্রস্তুত রয়েছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স টিম।

মঙ্গলবার (০২ জানুয়ারি) সরেজমিন বাণিজ্যমেলায় দেখা যায়, ফায়ার সার্ভিসের ওয়াটার মিক্সড টু-হুইলার মেলার ভেতরে টহল দিচ্ছে। এটি বিশেষ ধরনের মোটরসাইকেল।

যার পেছনে একটি গোল ট্যাংকিতে রয়েছে পানি ও ফোম মিক্সড। অগিকাণ্ডের মতো কোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে পারবে এ বাইক। এছাড়া মেলার ভেতরে প্রস্তুত রয়েছে পানির বড় গাড়ি। আছে অ্যাম্বুলেন্স।

পুরো টিমের তদারকিতে আছেন ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা-৩ জোনের ডিএডি মামুন মাহমুদ। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, বাণিজ্য মেলায় ফায়ার সার্ভিসের ২৬ জন কর্মী আছেন। তাদের মধ্যে ২ জন অফিসার, ২ জন লিডার, ১৮ জন ফায়ারম্যান ও ৪ জন ড্রাইভার আছেন। তারা ২৪ ঘণ্টা সেবা দিয়ে থাকেন। তবে প্রতি ২ ঘণ্টা পরপর টিম পরিবর্তন করা হয়। তদারকির জন্য প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত একজন ইন্সপেক্টর দায়িত্বে থাকেন। সবার দায়িত্বে সার্বক্ষণিক একজন স্টেশন ম্যানেজার থাকেন। এছাড়া ঢাকা-৩ জোনের উপ-পরিচালক, সহকারী পরিচালক ও উপ-সহকারী পরিচালক প্রতিদিন একবার পুরো টিমের কার্যক্রম তদারকির জন্য মেলা পরিদর্শন করেন।
 
তিনি বলেন, বাণিজ্য মেলার মধ্যে ৯টি হিডেন পয়েন্ট (পানির লাইন) আছে। ওই ৯টিতে সার্বক্ষণিক ৯ জন দায়িত্বে থাকেন। এছাড়া একটি পানির গাড়ি মেলার ভেতরে রিজার্ভ থাকে ও দু’টি মোটরবাইক (পানি ও ফোম মিক্সড) টহল ডিউটিতে থাকে। কোনো অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে খবর পাওয়ার ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে রিজার্ভ গাড়ি মুভ করবে।  
 
মামুন মাহমুদ আরো বলেন, অগ্নিকাণ্ড ছাড়াও মেলায় কোনো দুর্ঘটনায় কেউ আহত হলে কিংবা কেউ অসুস্থ হলেও আমাদের অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে বিনা খরচে হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়া হয়। এজন্য একটি অ্যাম্বুলেন্স ও একজন চালক রিজার্ভ ডিউটিতে থাকেন। হাসপাতালে নেওয়ার মতো না হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ারও ব্যবস্থা আছে।

ডিউটিতে থাকা ইন্সপেক্টর আব্দুল মালেক ও লিডার আবু বকর সিদ্দিক বলেন, আমরা ২৪ ঘণ্টাই প্রস্তুত আছি। যেকোনো অগ্নিকাণ্ড কিংবা দুর্ঘটনার খবর আসার সঙ্গে সঙ্গে সেখানে উপস্থিত হয়ে উদ্ধার তৎপরতা ও অগ্নিনির্বাপনের ব্যবস্থা করে থাকি।  
  
বাংলাদেশ সময়: ১৬৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২, ২০১৮
এমএইচ/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa