ঢাকা, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

শিল্প

সড়ক অবরোধ তুলে নিয়েছেন ট্যানারি শ্রমিক-মালিকরা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১, ২০১৭
সড়ক অবরোধ তুলে নিয়েছেন ট্যানারি শ্রমিক-মালিকরা ট্যানারি শ্রমিক-মালিকদের সড়ক অবরোধ- ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: রাজধানীর হাজারীবাগে রয়ে যাওয়া ট্যানারিগুলোতে বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ বন্ধ ঘোষণার প্রতিবাদে অনির্ধারিত সড়ক অবরোধ তুলে নিয়েছেন ট্যানারি শিল্পের শ্রমিক ও মালিকরা।

শনিবার (‍০১ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত ঝিগাতলা-শংকর সড়ক অবরোধ করে করে মানববন্ধন করেছেন তারা।

সাভারে ট্যানারি স্থানান্তর না করায় সর্বোচ্চ আদালত আগামী বৃহস্পতিবারের (০৬ এপ্রিল) মধ্যে হাজারীবাগের ট্যানারিগুলো সম্পূর্ণ বন্ধের (ক্লোজ ডাউন) নির্দেশ দিয়েছেন মালিকদের।

গত মাস থেকে হাইকোর্টের নির্দেশে বন্ধ রয়েছে কারখানাগুলোর বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগও।

সর্বশেষ আগামী ঈদ-উল আযহা পর্যন্ত হাজারীবাগে থাকতে চেয়ে ট্যানারি মালিকদের করা আবেদনও খারিজ করে দেন হাইকোর্ট।

ফলে হাজারীবাগে কোনোভাবেই আর থাকার সুযোগ নেই ট্যানারিগুলোর।

এর আগে গত কয়েক বছরে সাভারে গড়ে ওঠা চামড়া শিল্পনগরীতে হাজারীবাগের ট্যানারি কারখানা স্থানান্তরে সরকারের দফায় দফায় দেওয়া নির্দেশেও কান দেননি ব্যবসায়ীরা।

২০১০ সালের অক্টোবরে ট্যানারি স্থানান্তরে ছয়মাস সময় দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। সে অনুসারে ২০১১ সালের ৩০ এপ্রিলের পর থেকে হাজারীবাগে ট্যানারি চালানোর অনুমোদন নেই। এরপরও সরকার গত ৩১ মার্চ পর্যন্ত সময় বেঁধে দিলেও ট্যানারি সরিয়ে নেননি মালিকরা।

মানববন্ধনে ট্যানারি মালিকদের ‘দাবি’ মেনে না নেওয়া হলে অনির্দিষ্টকালের জন্য হাজারীবাগের সকল ট্যানারি বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেন হাজারীবাগ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী ইলিয়াসুর রহমান বাবলু।

বাবলু বলেন, ‘সাভারের চামড়া শিল্পপার্ক এখনো সম্পূর্ণ তৈরি হয়নি। তারপরও আমরা ট্যানারি সরিয়ে নিতে মাত্র তিনমাস সময় চেয়েছি। সামনে ঈদ, এখন কারখানা বন্ধ হয়ে গেলে আমরা বিশাল ক্ষতির মুখে পড়বো। আমাদের দাবি মেনে নেওয়া না হলে অনির্দিষ্টকালের জন্য সকল ট্যানারি বন্ধ করে দেওয়া হবে’।

ট্যানারি শ্রমিক-মালিকদের সড়ক অবরোধ

বাংলাদেশ সময়: ১২১২ ঘণ্টা, এপ্রিল ০১, ২০১৭
 ইউএম/এসআরএস/এমজেএফ/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa