ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

ধর্ষণের অভিযোগে ব্যবস্থাপককে চাকরিচ্যুত করছে আলিবাবা

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২০ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০২১
ধর্ষণের অভিযোগে ব্যবস্থাপককে চাকরিচ্যুত করছে আলিবাবা

ঢাকা: এক নারী সহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে ‘ব্যবস্থাপক’ পদমর্যাদার এক কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করছে চীনা ই-কমার্স জায়ান্ট আলিবাবা।

সোমবার (৯ আগস্ট) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে আসে।

আলীবাবার প্রধান নির্বাহী ড্যানিয়েল জ্যাং ওই ব্যবস্থাপককে চাকরিচ্যুত করার ঘোষণা দিয়ে কর্মীদের কাছে পাঠানো ই-মেইলের সূত্রে প্রতিবেদনটি করে বিবিসি।

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ওই নারীর অভিযোগ, বেহুশ অবস্থায় নিজের হোটেল রুমে ওই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা তাকে ধর্ষণ করেন। এমনকি তাকে বেহুশ করতে ওই কর্মকর্তা জোর করে মদ পান করান বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

গত ২৭ জুলাই রাতে আলিবাবার সদর দপ্তর থেকে ৯০০ কিলোমিটার দূরে জিনান শহরে ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।  

ভুক্তভোগী নারী জানান, এক গ্রাহকের সঙ্গে মিটিং থাকায় দাপ্তরিক ভ্রমণে সেই হোটেলে যান তিনি। এ সময় তার সঙ্গে থাকা ‘বস’ সেই গ্রাহকের সামনে তাকে মদ পান করতে বাধ্য করেন। এ সময় সেই গ্রাহক তাকে চুম্বন করেন বলেও জানান তিনি। এক পর্যায়ে বেহুশ হয়ে গেলে পরের ঘটনা আর তিনি মনে করতে পারেননি।

তবে পরের দিন সকালে হোটেলে নিজ কক্ষে নিজেকে বিবস্ত্র অবস্থায় পান সেই নারী কর্মী।
এরপর হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তিনি নিশ্চিত হন যে, তার বস সেই রাতে চারবার তার রুমে আসেন। এজন্য তিনি জিনান শহরের পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

রোববার (৮ আগস্ট) স্থানীয় পুলিশ জানায়, অভিযোগের তদন্ত করা হচ্ছে।

তবে মামলা দায়ের করার আগে বিষয়টি আলিবাবার মানবসম্পদ বিভাগকে জানান সেই নারী কর্মকর্তা। কিন্তু মানবসম্পদ বিভাগকে বিভাগ থেকে প্রথমে অভিযুক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানানো হলেও কার্যত কোনো পদক্ষেপ দেখতে না পেয়ে মামলার সিদ্ধান্ত নেন ওই নারী।

অন্যদিকে অভিযুক্ত ওই কর্মকর্তা ধর্ষণের অভিযোগ স্বীকার না করলেও ওই নারী কর্মকর্তার সঙ্গে ‘ঘনিষ্ঠ’ হয়েছিলেন বলে প্রতিষ্ঠানের কাছে স্বীকার করেছেন বলে ই-মেইলে কর্মীদের জানান আলীবাবার প্রধান নির্বাহী ড্যানিয়েল ঝ্যাং। একই সঙ্গে অভিযোগকারী নারীর কল্যাণে সম্ভবপর সবকিছু আলীবাবা করবে বলেও জানান তিনি।  
একই সঙ্গে মানবসম্পদ বিভাগ দ্রুত বিষয়টিতে সাড়া না দেওয়ায় তিরস্কার করেন তিনি।  

ড্যানিয়েল ঝ্যাং জানান, তাকে (অভিযুক্ত কর্মকর্তা) চাকরিচ্যুত করা হবে এবং আর কখনোই তাকে চাকরিতে নেওয়া হবে না। আর তিনি আসলেই ধর্ষণ বা অশোভন আচরণ করেছিলেন কিনা সে বিষয়টি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মাধ্যমেই প্রমাণিত হবে। তার (অভিযোগকারী নারী) জন্য আমরা সম্ভবপর সবকিছু করবো। এই পুরো বিষয়টিতে মানবসম্পদ বিষয়ক কার্যক্রম যথাযথ মনোযোগ দেয়নি এবং আমাদের কর্মীদের সুরক্ষায় যথাযথ পদক্ষেপ নেয়নি। একই সঙ্গে জরুরি পরিস্থিতিতে সাড়া দেওয়ার মতো একটি দলের অনুপস্থিতি ছিল এবং একটি গুরুতর ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

 আলীবাবার ‘ওয়ার্ক কালচার’ এ কোনো কর্মীকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে মদ পান করানোর বিধান ও অতীতে নজির নেই বলেও সেই ই-মেইল বার্তায় উল্লেখ করা হয় বলেও জানা গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২০ ঘণ্টা, আগস্ট ১০, ২০২১
এসএইচএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa