ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

ফিলিপাইনে ঝড়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩০২ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০১০
ফিলিপাইনে ঝড়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫৩

ম্যানিলা: ফিলিপাইনে ঝড়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৩ জনে পৌঁছেছে। সরকারি ন্যাশনাল ডিসাস্টার কোঅর্ডিনেটিং কাউন্সিল নিহতের সংখ্যা ৩৯ থেকে বেড়ে ৫৩ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ম্যানিলা বে ও বাইকোল উপসাগরে কোস্ট গার্ড ও অন্যান্য উদ্ধারকারীরা নতুন এই মৃতদেহগুলি খূঁজে পেয়েছেন। সব মিলিয়ে এখনও ৮৫ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

নিহত ও নিখোঁজের সংখ্যা আরও অনেক বাড়তে পারে বলে শনিবার সরকারি কর্মকর্তারা সতর্ক করে দিয়েছেন।  

এদিকে সামরিকবাহিনী এক বিবৃতিতে বাইকোল অঞ্চল থেকে তিনজন জেলেকে উদ্ধার করার সংবাদ জানিয়েছে। উদ্ধারকৃতদের একজন ভিক্টর বোরডিওস বলেন, “ঝড়ে আমাদের নৌকা ভেঙে দুইটুকরা হয়ে ডুবে যায়। ”

আঞ্চলিক সামরিক মুখপাত্র মেজর হ্যারল্ড ক্যবুনক জানান, এখনো পর্যন্ত নিখোঁজদেরকে উদ্ধার করার জন্য নৌ ও বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টার সমুদ্রে চিরুনি তল্লাশি চালাচ্ছে।

গত মঙ্গলবার কনসন নামের ঝড়টি রাজধানি ম্যানিলা সহ লুজন অঞ্চলের মূল ভূখন্ডে প্রবল শক্তি নিয়ে আঘাত হানে। এর আগে দেশটির জাতীয় আবহাওয়া দপ্তর ভুল ভবিষ্যৎবাণী করে যে ঝড়টি আরো অনেক উত্তরে আঘাত হানবে। ফিলিপাইনে এটিই এ বছরের প্রথম ঘূর্ণিঝড়। ঘূর্ণিঝড়ে হাজার হাজার ঘরবাড়ি ধ্বংস হওয়া সহ ৬২ টি নৌকা ডুবে যায়। এছাড়া উপড়ে যাওয়া গাছের নিচে চাপা পরে অনেক মানুষ আহত ও নিহত হয়েছেন। বিদ্যুৎ সংযোগ ও বিমান চলাচল ব্যাপকভাবে ব্যহত হয়। প্রায় অচল রাজধানি ম্যানিলা শহরে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা পুনরুদ্ধার করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দুইদিনের ও বেশি সময় লাগে।

উল্লেখ্য, ফিলিপাইন প্রশান্ত মহাসাগরের তথাপথিত ঘূর্ণিঝড় প্রবণ এলাকার মধ্যে অবস্থিত। প্রতি বছর দেশটিতে ২০টির মতো ঘূর্ণিঝড় হয় যাতে শত শত মানুষ মারা যান।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ১২:৪৯ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa